cockroach

ওয়েবডেস্ক: নিয়মের কড়াকড়়ির জন্য অনেকেই বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীদের চোখে ধুলো দিয়ে নিয়ে যেতে চান অনেক কিছুই! বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সঞ্জয় দত্তই যেমন কবুল করেছিলেন সংবাদমাধ্যমে- কাস্টমসকে ফাঁকি দিয়ে তিনি জুতোয় লুকিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন মাদকদ্রব্য। কিন্তু সবার ভাগ্য তো তেমন প্রসন্ন নয়। ফলে কাস্টমস কর্মীদের চোখে ধুলো দিতে চাইলেও হাতেনাতে ধরা পড়ে গেলেন এক বয়স্ক চিনা দম্পতি।

চিনা দৈনিক বেজিং ইয়ুথ ডেইলি জানিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে গুয়াংদংয়ের আন্তর্জাতিক বেইয়ুং বিমানবন্দরে। সম্প্রতি সেখানে এক বয়স্ক দম্পতির মালপত্র স্ক্যান করতে গিয়েই সন্দেহ হয় কর্মীদের। “ওই দম্পতির হাতে একটা সাদা প্লাস্টিকের ব্যাগ ছিল। ব্যাগটা স্ক্যান করতে দেখা যায়, ভিতরে কালো কালো কী সব নড়েচড়ে বেড়াচ্ছে। তখন আমরা ব্যাগটা খুলে দেখার সিদ্ধান্ত নিই”, বলেছেন বিমানবন্দরের এক নিরাপত্তাকর্মী জু ইয়ুইয়ু।

সিদ্ধান্তটা যে ভুল ছিল, তা জুয়ের এক সহকর্মিনী ব্যাগটা খুলেই বুঝতে পারেন। ভাল করে ভিতরে উঁকি দেওয়ার আগেই তাঁর হাতে উঠে আসে একটা আরশোলা। “আতঙ্কে প্রায় অজ্ঞান হওয়ার জোগাড় ওর”, জানিয়েছেন জু! তাঁর তথ্য বলছে, ব্যাগের মধ্যে নাকি ২০০টার কাছাকাছি আরশোলা ছিল।

সঙ্গত কারণেই এর পর জেরার মুখে পড়তে হয় ওই দম্পতিকে। জেরায় বৃদ্ধ জানান, ওই আরশোলাগুলো দরকার তাঁর স্ত্রীর ত্বক সুন্দর রাখার জন্য। তিনি এর বেশি কিছু না বললেও বৃদ্ধা খুলে বলেন ব্যাপারটা। চিনের প্রাচীন এক রূপচর্চা পদ্ধতি বলে, আরশোলা বেটে কোনো মলমের সঙ্গে মিশিয়ে মাখলে ত্বকে যৌবনের জেল্লা বহাল থাকে। সেই জন্যই ওই আরশোলাদের বাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলেন তাঁরা।

যাই হোক, বিমানে জীবন্ত প্রাণী নিয়ে যাওয়ার অনুমতি না থাকায় সাধের আরশোলাদের ফেলে রেখেই যাত্রা করতে হয় দম্পতিকে। তবে ওই বিমানবন্দরের নিরাপত্তাকর্মীরা, বিশেষ করে ব্যাগ খুলে ফাঁপরে পড়েছিলেন যিনি, মহিলা এখনও ঘটনার কথা ভেবে রয়েছেন ঘোর অস্বস্তিতেই!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here