Connect with us

বিদেশ

আমেরিকায় এক লক্ষ মানুষের প্রাণ নিল করোনা

খবর অনলাইনডেস্ক: কোভিড ১৯-এ (Covid 19) আক্রান্ত হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা এক লক্ষের গণ্ডি ছাড়াল। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের (Jon Hopkins University) হিসেব অনুযায়ী আমেরিকায় এখন মৃতের সংখ্যা ১ লক্ষ ২৭৬ জন।

মৃতের সংখ্যা এক লক্ষ যে দিন পেরিয়েছে সে দিনই মোট সংক্রমিতের সংখ্যা প্রায় ১৯ লক্ষ ছুঁইছুঁই হয়েছে। পুরো বিশ্বে যত মানুষ করোনাভাইরাসে (Coronavirus) সংক্রমিত হয়েছেন তাঁর ৩০ শতাংশই যুক্তরাষ্ট্রে।

গত ২১ জানুয়ারি ওয়াশিংটনে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। তবে প্রথম দিকে গুণিতকের হারে বাড়েনি আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু মার্চের শুরুতেই সেই দেশে লাগামছাড়া ভাবে বৃদ্ধি পায় করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা। পরিস্থিতি কার্যত হাতের বাইরে যেতে শুরু করে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় কড়া সমালোচনার মুখে পড়েন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (DonaldTrump)। যদিও তিনি এ সব কিছুই মানতে চাননি। বরং চিন আর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওপরেই দায় ঠেলার দিকে বেশি ঝুঁকে পড়েন তিনি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরুর দিকে ট্রাম্প বিষয়টিকে ছোটো করে দেখানোর চেষ্টা করেন। করোনাকে তিনি একটি মৌসুমি ফ্লু হিসেবে বর্ণনা করেন। যুক্তরাষ্ট্রের কলোম্বিয়া ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় বলা হয়েছে, আগে পদক্ষেপ নিলে মৃতের সংখ্যা ৩৬ হাজার কম হতে পারত।

মার্কিন এক বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণে যুক্তরাষ্ট্রে যত মানুষ মারা গিয়েছে, সেটি গত ৪৪ বছর যাবৎ কোরিয়া, ভিয়েতনাম, ইরাক এবং আফগানিস্তান সংঘাতের সময় আমেরিকার নিহত সৈন্যের সমান।

এ দিকে আমেরিকার ২০টি অঙ্গরাজ্যে নতুন করে সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধির প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে নর্থ ক্যারোলিনা, উইসকনসিন এবং আরকানসাস। তবে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে নিউ ইয়র্কে। সেখানে এখন মৃত্যুর হার কমে এসেছে। নিউইয়র্কে এখনো পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২১ হাজার।

এ দিকে গোটা বিশ্বে করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা এখন ৫৮ লক্ষ ছুঁতে চলেছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার ৪৭১ জনের। তবে প্রায় ২৫ লক্ষ মানুষ ইতিমধ্যেই করোনাকে জয় করে সুস্থ হয়ে উঠেছে। ফলে বিশ্বব্যাপী এখন সুস্থতার হার কিছুটা বেড়ে ৪৩.১ শতাংশ হয়েছে।

বিদেশ

এই প্রথম মাস্ক পরে জনসমক্ষে এলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

ওয়াল্টার রিড মিলিটারি হাসপাতালের করিডোর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ট্রাম্পের মুখে একটি কালো রঙের মাস্ক দেখা যায়।

ওয়েবডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড (Donald Trump) ট্রাম্প শনিবার এই প্রথমবার জনসমক্ষে ফেস মাস্ক (Face mask) পরে দেখা দিলেন। আমেরিকা জুড়ে করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ নিয়ে জনস্বাস্থ্যের বিষয়ে তীব্র চাপের মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। এর আগে মাস্ক না পরার কথা জোরের সঙ্গে দাবি করেছিলেন ট্রাম্প।

ওয়াশিংটনের বাইরে ওয়াল্টার রিড মিলিটারি হাসপাতালের করিডোর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ট্রাম্পের মুখে একটি কালো রঙের মাস্ক দেখা যায়।

এত দিন পর মাস্ক পরার কারণ হিসাবে ট্রাম্প বলেন, “আমি কখনোই মাস্কের বিরুদ্ধে ছিলাম না। তবে আমি বিশ্বাস করি এটি ব্যবহারে নির্দিষ্ট সময় এবং জায়গা রয়েছে।”

সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে অবশ্য এমনটা বলা হয়েছে, এর আগে মাস্ক পরার বিষয়ে নিজের অনীহার কথা জানিয়েও বর্তমান পরিস্থিতিতে নিজের অবস্থান থেকে একশো আশি ডিগ্রি ঘুরেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। নভেম্বরের নির্বাচনের আগে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বিডেনকে নাম না করেই এ বিষয়ে কটাক্ষের পর সংবাদ মাধ্যমে নিজের মাস্ক পরা মুখের ছবি তুলে ধরতেই এমন পদক্ষেপ নিতে পারেন।

তবে আগের মতোই ট্রাম্প দাবি করেছেন, কোভিড-১৯ মহামারি (Covid-19 pandemic) ব্যবস্থাপনায় তাঁর প্রশাসন দৃঢ়তার সঙ্গে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। আমেরিকা বিশ্বের সব থেকে বেশি সংক্রামিত দেশ। কয়েক দিন ধরে চব্বিশ ঘণ্টায় ৬০ হাজারের বেশি আক্রান্তকে শনাক্ত করা হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত প্রায় ১ লক্ষ ৩৫ হাজার করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে।

আগে যা বলেছিলেন ট্রাম্প

এর আগে গত মে মাসে ট্রাম্প জানিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি মাস্ক পরবেন না। তার আগেই অবশ্য আমেরিকার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) করোনা প্রতিরোধে মাস্ক পরার পরামর্শ দিয়েছিল।

তবে ট্রাম্প স্পষ্টতই জানিয়ে দেন, কেউ মাস্ক পরবেন কি না, “সেটা তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়। মাস্ক পরার মাধ্যমে আমি সংবাদ মাধ্যমকে আনন্দ দিতে চাই না”।

ওই সময় মিশিগানে একটি কারখানা পরিদর্শনে গিয়ে তিনি সাংবাদিকদের কাছে বলেন, “ক্যামেরার সামনে আসার আগে আমি মাস্ক খুলে ফেলেছি”। পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেন, কিছু মানুষ তাঁর বিরুদ্ধে রাজনীতি করতেই মাস্ক পরছেন। সে ক্ষেত্রে তিনি যে বিডেনকেই নিশানা করেছিলেন, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে কি!

Continue Reading

বিদেশ

কোভিড পজিটিভ হলেন বোলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট

শারীরিক অবস্থার অবনতি না হলে বাড়িতেই থাকবেন আনেজ।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কিছু দিন আগেই করোনা রিপোর্ট পজিটিভ হয়েছে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারোর (Jair Bolsonaro)। এ বার তার পড়শি দেশ বোলিভিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট খেয়ানিনে আনেজও (Jeanine Anez) করোনায় আক্রান্ত হলেন।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরটি টুইটারে তিনিই পোস্ট করেন। সেখানে ৫৩ বছরের এই রাষ্ট্রনেতা লেখেন, “আমি ভালো আছি। আইসোলেশনে থেকেই নিজের কাজ করে যাব।”

শারীরিক অবস্থার অবনতি না হলে বাড়িতেই থাকবেন আনেজ। ১৪ দিন পর করোনার দ্বিতীয় পরীক্ষা তিনি করবেন বলে জানিয়েছেন।

কিছু দিন আগে আনেজের মন্ত্রিসভার চার জন সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। সেখান থেকেই তাঁর সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, এই মুহূর্তে এশিয়া আর দুই আমেরিকায় করোনার বাড়বাড়ন্ত সব থেকে উদ্বেগজনক। সেই আশঙ্কা যে এক্কেবারেই অমূলক নয়, সেটা এই দুই রাষ্ট্রনেতার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরেই বোঝা যাচ্ছে।

কিছু দিন আগে ভেনেজুয়েলার সাংবিধানিক অ্যাসেম্বলির প্রেসিডেন্ট দিয়োসদাদো কাবেয়োও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর পর তিনিই দেশের সব থেকে শক্তিশালী নেতা হিসেবে গণ্য হন।

আগামী সেপ্টেম্বরে সাধারণ নির্বাচন হওয়ার কথা বোলিভিয়ায়। তার দু’ মাস আগেই করোনায় আক্রান্ত হলেন প্রেসিডেন্ট।

এখনও পর্যন্ত, ১১ কোটির দেশ বোলিভিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩ হাজার জন। মৃত্যু হয়েছে দেড় হাজার জনের।

Continue Reading

বিদেশ

বিদেশি ছাত্রদের বিতাড়ন সংক্রান্ত নয়া মার্কিন নির্দেশিকার বিরুদ্ধে মামলা হার্ভার্ড ও এমআইটির

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট লরেন্স ব্যাকো বলেছেন এই নির্দেশিকায় যে যে অপরিমাণদর্শিতা রয়েছে, তাকেও ছাপিয়ে গেছে এর নিষ্ঠুরতা।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনলাইনে পাঠরত বিদেশি ছাত্রদের ব্যাপারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (USA) যে নির্দেশিকা জারি করেছে, তার বিরুদ্ধে মামলা হল। মামলা করেছে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি (Harvard University) এবং ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি, MIT)।

নতুন মার্কিন নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ‘ফল’ (শরৎকাল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ‘ফল’ নামে অভিহিত, সময়কাল ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ২১ ডিসেম্বর) মরশুমে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি যদি শুধুমাত্র অনলাইন ক্লাস চালায়, তা হলে বিদেশি ছাত্রদের এ দেশ ছাড়তে হবে।

আরও পড়ুন: অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড নিরাপত্তা দফতর (Homeland Security Department) এবং ফেডারেল অভিবাসন এজেন্সির (Federal Immigration Agency) বিরুদ্ধে বস্টনের আদালতে মামলা করেছে হার্ভার্ড এবং এমআইটি।

এই নির্দেশিকা আপাতত অস্থায়ী ভাবে স্থগিত করা এবং পরবর্তী কালে নির্দেশিকা মোতাবেক আন্তর্জাতিক ছাত্রদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে বাধ্য করার ব্যাপারে ওই দুই দফতরকে আটকাতে স্থায়ী ইনজাঙ্কটিভ রিলিফ দেওয়ার বিষয়ে আবেদন জানিয়েছেন মামলাকারীরা।

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি কী বলছে

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট লরেন্স ব্যাকো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলিকে ই মেল পাঠিয়ে বলেছেন, “হঠাৎ এই নোটিশ এসেছে। এর মধ্যে যে অপরিমাণদর্শিতা রয়েছে, তাকেও ছাপিয়ে গেছে এর নিষ্ঠুরতা। ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্টের (আইসিই, ICE) এই নির্দেশ খুব বাজে জননীতি এবং আমাদের বিশ্বাস এটি অবৈধও।”

লরেন্স ব্যাকো হার্ভার্ডের সংবাদপত্র ‘দ্য হার্ভার্ড ক্রিমসন’কে বলেন, “এই মামলাটা আমরা আপ্রাণ লড়ব যাতে আমাদের এবং সারা দেশে আমাদের অধীনস্থ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলির আন্তর্জাতিক ছাত্ররা বিতাড়নের হুমকির পরোয়া না করে তাদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে।”

আইসিই গত ৬ জুলাই এক বিবৃতি প্রকাশ করে বলেছেল, “এফ-১ এবং এম-১ ভিসা নিয়ে পড়তে গিয়ে এখন যে সমস্ত পড়ুয়া অনলাইন ক্লাস করছেন, তাঁদের আমেরিকায় থাকার ভিসা প্রত্যাহার করা হবে। এমনকী ওই ভিনদেশি পড়ুয়ারা আমেরিকায় থাকতেও পারবেন না”।

Continue Reading
Advertisement
দেশ2 mins ago

সংকটে রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার! জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পথে সচিন পায়লট?

দেশ30 mins ago

জয়া বচ্চন, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন করোনা নেগেটিভ

ক্রিকেট2 hours ago

প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার চেতন চৌহান করোনা পজিটিভ

দেশ2 hours ago

অমিতাভ বচ্চনের ‘জলসা’কে কনটেনমেন্ট জোন ঘোষণা করল স্থানীয় পুরপ্রশাসন

রবিবারের পড়া3 hours ago

রবিবারের পড়া: মাহেশের জগন্নাথ মন্দির ও নয়নচাঁদ মল্লিক

দেশ3 hours ago

দৈনিক আক্রান্তে রেকর্ড, সুস্থতার হারেও ধারাবাহিক বৃদ্ধি

রবিবারের খবর অনলাইন3 hours ago

প্রকাশিত হল খবরঅনলাইন-এর সাপ্তাহিক পিডিএফ সংস্করণ

দেশ4 hours ago

ব্যাঙ্কে চাকরি মেলেনি, নিজের বাড়িতে এসবিআইয়ের ভুয়ো শাখা বানিয়ে গ্রেফতার যুবক

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা5 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা6 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা7 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে