trump

ওয়াশিংটন: রাশিয়াকে খুবই সংবেদনশীল তথ্য জানানোর কথা স্বীকার করে নিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রাশিয়াকে সেই তথ্য জানানোর তাঁর যে সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে, মঙ্গলবার টুইটের মাধ্যমে সেই কথাও জানিয়ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

উল্লেখ্য, সোমবার হোয়াইট হাউসে রুশ রাষ্ট্রদূত সের্জেই কিস্লিয়াকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ট্রাম্প। এই বৈঠকে গোপন কিছু তথ্য রাশিয়াকে ফাঁস করে দিয়েছেন ট্রাম্প, এমনই অভিযোগ করে মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট। তথ্যগুলি কোনো মিত্র দেশ দিয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে। সঙ্গে সঙ্গে দৈনিকটির অভিযোগ খণ্ডন করতে আসরে নেমে পড়ে হোয়াইট হাউস। মার্কিন প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয় কোনো তথ্যই রাশিয়ার দূতকে জানাননি ট্রাম্প।

কিন্তু মঙ্গলবার টুইটারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, সন্ত্রাসবাদ এবং বিমান চলাচল নিয়ে নিরাপত্তার ব্যাপারে কিছু তথ্য রাশিয়ার দূতকে জানিয়ছেন ট্রাম্প। সেই সঙ্গে ট্রাম্পের আবেদন, ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ করুক রাশিয়া। সেই তথ্য ভাগ করে নেওয়ার পুরো অধিকার তাঁর রয়েছে এমনও জানান ট্রাম্প।

সোমবার ওই বৈঠকের পর কানাঘুষো শোনা গিয়েছিল যে সংবেদনশীল কিছু সাংকেতিক শব্দও নাকি রুশ দূতকে বলেছেন ট্রাম্প। এর ফলে আইএস জঙ্গিদের ব্যাপারে গোয়েন্দা সূত্র বিপন্ন হতে পারে বলেও মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। যদিও সে ব্যাপারে কিছু জানাননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

যদিও কার সঙ্গে কোন তথ্য ভাগ করেন নেবেন তাঁর সম্পূর্ণ অধিকার মার্কিন প্রেসিডেন্টের রয়েছে, তাই কোনো বেআইনি কাজ করেননি ট্রাম্প। কিন্তু  এ ভাবে একটি ‘শত্রু’ দেশকে নিজেদের মিত্র দেশের থেকে পাওয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানানো কি আদৌ উচিত হল, এই প্রশ্নই তুলেছে ওয়াশিংটন পোস্ট। এর ফলে দেশের স্বার্থও জলাঞ্জলি দিয়েছেন ট্রাম্প, এমন অভিযোগও করে দৈনিকটি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here