বড়োসড়ো বিপাকে ডোনাল্ড ট্রাম্প! মেয়াদ শেষের আগেই হারাতে পারেন গদি

0

ওয়াশিংটন: ইমপিচমেন্ট নিয়ে ভোটাভুটির সম্মুখীন হচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তিনি তিন নম্বর প্রেসিডেন্ট যাঁকে এই ভয়াবহ পরীক্ষাটি দিতে হবে।

ট্রাম্পকে ইমপিচমেন্টের মুখোমুখি হতে হবে কি না, সেই নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসের জুডিশিয়াল কমিটিতে শুক্রবার ভোটাভুটি হয়। কমিটির ডেমোক্র্যাট আর রিপাবলিকান সদস্যরা নিজেদের পার্টি লাইন মেনে ভোট দেন।

২৩-১৭ ভোটে গৃহীত হয়ে যায় এই ইমপিচমেন্ট প্রস্তাবটি। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ওঠা ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ সত্য, এমনই জানিয়ে দিয়েছে জুডিশিয়াল কমিটি। এই প্রস্তাবটি নিয়ে এ বার সামনের সপ্তাহে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে ভোটাভুটি হবে।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখতে জুডিশিয়াল কমিটি নিয়োগ করেছিল হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভ। শুক্রবার সেই কমিটি তাদের রিপোর্ট পেশ করেছে। যদি ইমপিচমেন্ট প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয় হাউজ, তা হলে গদি ছাড়তে হবে ট্রাম্পকে। সেটা যে তাঁর পক্ষে খুব একটা ভালো বিজ্ঞাপন হবে না, তা বলাই যায়।

আরও পড়ুন ব্রিটেনে জিতলেন রেকর্ড সংখ্যক ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রার্থী

২০২০ সালে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তখন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে প্রার্থী হতে পারেন ডেমোক্র্যাট পার্টির জো বিডেন। তিনি বারাক ওবামার আমলে আট বছর আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে ছিলেন। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে সেটা এই বিডেনকে কেন্দ্র করেই।

ট্রাম্প নাকি ইউক্রেনকে ৪০ কোটি ডলারের সামরিক সাহায্য বন্ধ করে দিয়েছিলেন। পরে তিনি সে দেশের প্রেসিডেন্টকে কার্যত ব্ল্যাকমেলের সুরে ফোন করে বলেন, দু’টি শর্তে ফের সাহায্য চালু করতে পারেন। প্রথমটি হল জো বিডেন ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়ে যেতে হবে। আর দ্বিতীয় শর্তটি আরও সাংঘাতিক। ২০১৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময়ে রাশিয়া নয়, আমেরিকার হয়ে প্রচার করেছিল ইউক্রেন, এই প্রচারটা তাদের করতে হবে।

ট্রাম্পের এই কথা প্রকাশ্যে আসার পরেই তাঁর বিরুদ্ধে ইম্পিচমেন্ট প্রক্রিয়া চালু করেন স্পিকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.