বানান ভুল কার না হয়?  শুভাকাঙ্খীরা বলবেন কাজ করলেই ভুল হয়, না হলে নয়। নিন্দুকেরা কি না কয়?

তবে তেমন লোকের বানান ভুল হলে ঝড় ওঠে বই-কি! আর তিনি যদি হন বিশ্বের অলিখিত এক নম্বর পদের দাবিদার, তা হলে তো কথাই নেই।

বানান ভুল করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বর্তমান বিশ্বের পাঠক-দর্শক মহলের কাছে টক-ঝাল-মিষ্টি চরিত্রে পরিণত হয়েছেন। প্রতি দিন নতুন কিছু বিতর্ক উস্কে দিচ্ছেন, যা সঙ্গে সঙ্গে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে আলোচনার খোরাক হয়ে।

ডেমোক্র্যাটিক দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে ভালো-মন্দ শোনাতে গিয়ে তিনি যে নিজেই ফাঁপরে পড়ে যাবেন কে ভেবেছিল?

সাংবাদিক ওলিভিয়া নুজি বলছেন, ৩০ জুলাই ট্রাম্প হিলারিকে উদ্দেশ করে টুইটে লিখেছেন, জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে হিলারি ক্লিন্টনের বলার কোনও অধিকার নেই। আর এই কথাগুলোই লিখতে গিয়ে মাত্র ২১টি শব্দের মধ্যে তিনটির বানান ভুল করে বসেন ট্রাম্প। টুইটারে ট্রাম্প ‘loose’ শব্দটি লিখতে গিয়ে লিখেছেন ‘lose’ , ‘instincts’-এর বদলে লিখলেন ‘insticts’ আর  ‘judgement’- পরিবর্তে লিখলেন  ‘jugment’।

ঘটনায় “Make Amerika spell again @real Dolad Trump”  বলে টুইট করেছেন অন্য এক জন।

প্রতিপক্ষকে ভোটে হারাতে পারলে আমেরিকার অধিনায়কত্ব তাঁর হাতেই এসে পড়বে। সেই বিরাট সম্ভাবনার মুখে দাঁড়িয়ে এই ভুলগুলো বিশ্ববাসীর কাছে খুবই হাস্যকর করে তুলেছে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here