নিবার্চনী প্রচারে তিনি যেসব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিন্দা করেছেন, সেইসব প্রতিষ্ঠান থেকেই বিপুল অঙ্কের ঋণ নিয়ে বসে আছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদের রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের মালিকানাধীন বিভিন্ন সংস্থা। সে দেশের নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে এই রিপোর্ট। রিপোর্টে প্রকাশ, বিভিন্ন সংস্থা থেকে ট্রাম্পের সংস্থাগুলো যা ঋ‌ণ নিয়েছে, তার পরিমাণ অন্তত ৬৫০ মিলিয়ন ডলার(ভারতীয় মুদ্রায় ৪,৩৬৩.৯ হাজার কোটি টাকা)। নিউইয়র্ক ট্রাম্পের স্থাবর সম্পত্তি নিয়ে নিজস্ব তদন্ত চালায়। পত্রিকাটি তার রিপোর্টে বলেছে, দেশের ফেডারেল নির্বাচন কমিশন-কে ট্রাম্প নিজের সম্পত্তির যা পরিমাণ জানিয়েছেন, তাঁর সংস্থাগুলির ঋণের পরিমাণ তার দ্বিগুনেরও বেশি।

ব্যাঙ্ক অফ চায়না ও গোল্ডম্যান স্যাক্‌সের মত যেসব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তিনি নির্বাচনী প্রচারে মুণ্ডপাত করেছেন, সেগুলির থেকেও প্রচুর ঋণ নিয়ে বসে আছে ট্রাম্পের মালিকানাধীন সংস্থাগুলি। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা এইসব সংস্থাগুলি থেকে টাকা নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন ট্রাম্প। তাঁর অভিযোগের তির ছিল তাঁর দলেরই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী টেড ক্রুজ ও ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনের দিকে। টাইমসের রিপোর্টে আরও প্রকাশ, ট্রাম্পের ব্যবসার সঙ্গে পরোক্ষ ভাবে অংশীদারিত্বে জড়িয়ে রয়েছে তিনটি সংস্থা, সেগুলিও বিভিন্ন সংস্থা থেকে ঋণ নিয়েছে। সেই ঋণের পরিমাণ ২ বিলিয়ন ডলার(ভারতীয় মুদ্রায় ১.৩ লক্ষ কোটি টাকা)।

ফেডারেল নির্বাচন কমিশনকে ট্রাম্প যে খতিয়ান দিয়েছেন, সেই অনুযায়ী তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ১.৫ বিলিয়ন ডলার(১ লক্ষ কোটি টাকা)।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here