ওয়াশিংটন: বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সামরিক বাহিনী নাকি আরও শক্তিশালী হবে। প্রতিযোগিতাটা এবার আর অন্য কোনও দেশের সঙ্গে নয়, নিজের সঙ্গেই। মার্কিন ইতিহাসে নাকি আগে কখনও এরকমটা হয়নি। জানালেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট। কনজারভেটিভ পলিটিকাল অ্যাকশন কনফারেন্স (সিপিএসি)- এর মঞ্চে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানালেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সর্বকালের সেরা সেনাবাহিনী তৈরি করবে তাঁর প্রশাসন। 

আক্রমণ এবং প্রতিরক্ষা, দুই খাতেই বিপুল ব্যয়ের পক্ষে প্রেসিডেন্ট। “আগের থেকে আরও বড় এবং শক্তিশালী হতে হবে সামরিক বাহিনীকে”, জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। “আশা করছি, এই বিপুল শক্তি আমাদের কোনোদিন প্রয়োগ করতে হবে না, কিন্তু অন্য কোনও দেশ যেন আমাদের সঙ্গে ঝামেলা করার সাহসও না পায়”। 

সিপিএসি-এর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা কনজারভেটিভরা বেশ সন্তুষ্টই হয়েছেন প্রেসিডেন্টের ‘আশ্বাসবাণী’তে। আমেরিকা-মেক্সিকোর মাঝে দেওয়াল তোলার প্রস্তাবও সিপিএসি-র মঞ্চে কুড়িয়ে নিয়েছে ট্রাম্প অনুরাগীদের হাততালি। তাঁদের কারও কারও মাথার টুপিতে আবার উঁকি দিচ্ছিল প্রেসিডেন্টের শ্লোগান। 

 সমালোচকরা অবশ্য বলছেন অন্য কথা। মার্কিন নাগরিকদের ওপর থেকে কর তুলে নেওয়া, বিপুল খরচ করে সামরিক বাহিনীকে সর্ব শক্তিমান বানানোর পরিকল্পনা সুনিশ্চিত করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজেট ঘাটতিকে। এই প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সিন স্পাইসার যথারীতি ট্রাম্পের স্বপক্ষে যুক্তি খাড়া করে জানিয়েছেন, “আগামী দিনে প্রেসিডেন্টের বাজেট সংক্রান্ত সব প্রস্তাবই হবে স্বচ্ছ”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন