stephanie clifford

ওয়েবডেস্ক: ২০১৫ সালের একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে আমেরিকার প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষের প্রসারিত যৌনাঙ্গের গড় আকার ১৩.২৪ সেন্টিমিটার। তবে স্কেলে না মাপলেও সে দেশের রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের যৌনাঙ্গের আকার ও আকৃতি সম্বন্ধে যাবতীয় তথ্য উঠে এল নিজেকে তাঁর শয্যাসঙ্গিনী হিসাবে দাবি করা এক পর্ন তারকার নতুন বইয়ে।

বছরখানেক সময় ধরেই স্টর্মি ড্যানিয়েল বিছানায় ডোনাল্ড ট্রাম্পের দক্ষতা নিয়ে নাগাড়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে চলেছেন। আমেরিকার প্রেসিডেন্টের প্রাক্তন শয্যাসঙ্গিনী হিসাবে দাবি করে স্টর্মি ট্রাম্পের যৌনক্ষমতাকে তুলনা করেছেন তাঁর ব্যক্তিগত ভাবে পছন্দ নিন্টেন্ডো নামের একটি ভিডিও গেমের চরিত্রের সঙ্গে। স্টর্মি পেশাগত ভাবে এক জন পর্ন তারকা, তাঁর আসল নাম স্টেফানি ক্লিফোর্ড। দ্য গার্ডিয়ানের কাছে দেওয়া একটি পুরনো সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেছেন, ট্রাম্পের যৌনাঙ্গটি সাধারণের তুলনায় ছোটো। এই ধরনের বেশ কিছু তথ্য সবিস্তারে তুলে ধরা হয়েছে তাঁর নতুন বই ‘ফুল ডিসক্লোজার’-এ।

ওই সাক্ষাৎকারে স্টর্মি ট্রাম্পের যৌনাঙ্গ সম্বন্ধীয় যাবতীয় বিবরণ উজাড় করে দিয়েছিলেন। ‘খদ্দের’ হিসাবে দেশের ভাবী রাষ্ট্রপতি বিছানায় ঠিক কতটা শক্তিশালী, সে বিষয়ও গোপন রাখেননি। স্টর্মি লিখেছেন, “তাঁর সঙ্গে চিত্তাকর্ষক যৌনতার স্বাদ মিলতে পারে। তবে পুরুষের গড় আকারের থেকে বেশ কিছুটা ছোটো ট্রাম্পের যৌনাঙ্গ। কিন্তু খদ্দের হিসাবে মোটেই ছোটো নন ট্রাম্প”।

কারণ হিসাবে স্টর্মির দাবি, “এটা ঠিক ট্রাম্প নিজেও জানতেন তাঁর এই অস্বাভাবিক যৌনাঙ্গের ব্যাপারে। ছোটো হলে কী হবে, এর মাথাটা মাশরুমের মতো। মানে উত্তেজিত হওয়ার পর যা একেবারে ব্যাঙের ছাতার আকার ধারণ করে”।

আরও খোলসা করে স্টর্মি বলেন, “আমি সেখানে থুথু দিয়েছি। তার পর সেই ব্যাঙের ছাতার সুখ অনুভব করেছি”। এমন মন্তব্যের পর অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে। কেউ কেউ বলেন, স্টর্মি সেই ব্যাঙ রাজকুমারীর স্মৃতি উসকে দিতে চেয়েছেন। যে তার ব্যাঙ ভৃত্যের সঙ্গে যৌনক্রীড়া করত।


আরও পড়ুন: ভোটে জেতার জন্য ১ লক্ষ ৩০ হাজার ডলার দিয়ে এই পর্নতারকার মুখ বন্ধ করেছিলেন ট্রাম্প?

একই ভাবে ভিডিও গেমের চরিত্র মারিও কার্টের সঙ্গেও তুলনা টেনেছেন স্টর্মি। এবং তা এতটাই নিখুঁত ভাবে যে, টুইতারিয়েতরাও বলতে বাধ্য হচ্ছেন, “হ্যাঁ, আমরা এক মত, ওটা আদতে ব্যাঙের ছাতার মতোই…”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন