Chinese state councilor and foreign minister Wang Yi

বেজিং: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমের দেশগুলি তাদের উপরেও আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপাক, সেটা চায় না চিন। স্পেনের বিদেশমন্ত্রী খোসে মানুয়েল আলবারেসকে এ কথা জানান চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই। ইউক্রেন পরিস্থিতি নিয়ে দু’দেশের বিদেশমন্ত্রীর বেশ কিছু ক্ষণ ফোনে কথা হয়।

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে হামলা চালানোর জন্য রাশিয়ার উপরে একগুচ্ছ নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ। এই পরিস্থিতিতে বিশ্ব অর্থনীতিতে কার্যত কোণঠাসা রাশিয়াকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে তার পুরনো বন্ধু দেশ চিন। মস্কোকে তারা সামরিক ও আর্থিক সাহায্য করছে বলে জানিয়েছে আমেরিকা।

বেজিংয়ের প্রতি হুমকির সুরে বাইডেন প্রশাসন জানিয়েছে, এ ভাবে যুদ্ধে রাশিয়াকে সাহায্য করলে তার ফল ভুগতে হবে চিনকেও। তবে চিন এবং রাশিয়া দুই দেশই অবশ্য সামরিক সাহায্যের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। তার পরেই আজ হঠাৎ অন্য সুর চিনের গলায়।

স্প্যানিশ বিদেশমন্ত্রীকে ওয়াং ই বলেন, ‘‘চিন এই (ইউক্রেন) সমস্যার অংশীদার নয়, হতেও চায় না। আমরা এ-ও চাই না যে, আমাদের উপরে পশ্চিমী নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দেওয়া হোক।’’ চিনা বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর এই ফোনালাপ সম্বন্ধে নিজেই টুইট করেছেন স্পেনের মন্ত্রী। তিনি জানান, ওয়াং ই বলেছেন, ‘‘ইউক্রেন সমস্যা ইউরোপের বহু দিনের অভ্যন্তরীণ সঙ্কটের ফল।”

আরও পড়তে পারেন

ন্যাটোয় ‘না’ জেলেনস্কির, রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতার পথে ইউক্রেন?

কেরলে সংক্রমণ বাড়ল তিনশো, ভারতেও তাই

পাল্টা জবাব রাশিয়ার! বাইডেন-সহ একাধিক মার্কিন আধিকারিকের ওপরে জারি নিষেধাজ্ঞা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন