ঋণের দায়ে দেউলিয়া শ্রীলঙ্কা। প্রতীকী ছবি: rappler.com-এর সৌজন্যে

লন্ডন: মুদ্রাস্ফীতি নাগালের বাইরে। ঋণে জর্জরিত শ্রীলঙ্কা (Sri Lanka Crisis)। কার্যত পুড়ে ছাই বিদেশি মুদ্রাভাণ্ডার। তবে শুধু এই দ্বীপরাষ্ট্রই নয়, বিশ্বের আরও কিছু দেশ এখন বিদেশি মুদ্রা সংকটের চরম স্তরে অবস্থান করছে।

ইতিমধ্যেই যে দেশগুলি ডিফল্ট

শ্রীলঙ্কা, লেবানন, রাশিয়া, সুরিনাম এবং জাম্বিয়া ইতিমধ্যেই ঋণ পরিশোধে অক্ষম। দোরগড়ায় দাঁড়িয়ে রয়েছে বেলারুশ। আরও ডজনখানেক দেশ এই বিপজ্জনক অঞ্চলে রয়েছে। ক্রমবর্ধমান ঋণের ব্যয়, মুদ্রাস্ফীতি এবং ঋণ সবে মিলে এই অর্থনৈতিক পতনের আশংকা তৈরি করেছে বলে দাবি করছেন অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা।

লাল-সতর্কতার আশেপাশে যে সব দেশ

অর্থনৈতিক সংকটের মুখে যে দেশগুলি: আর্জেন্টিনা, ইউক্রেন, তিউনিসিয়া, ঘানা, ইজিপ্ট, কেনিয়া, ইথিওপিয়া, এল সালভাদোর, পাকিস্তান, বেলারুশ, ইকুয়েডর এবং নাইজেরিয়া।

বিশ্লেষকদের মতে, পরিসংখ্যান চোখে জল এনে দেওয়ার মতোই। এক হাজার বেসিস পয়েন্ট বন্ডের ঊর্ধ্বসীমা ছাড়ানোর পর ঋণের পরিমাণ এখন ৪০ হাজার কোটি ডলার। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ঋণ আর্জেন্টিনার, ১৫ হাজার কোটি ডলার। এর পরেই রয়েছে ইকুয়েডর এবং মিশর। দুই দেশের ঋণের পরিমাণ যথাক্রমে ৪ হাজার কোটি ডলার এবং সাড়ে ৪ হাজার কোটি ডলার।

পরিত্রাণের উপায়?

এই পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার আশাও দেখছেন বিশ্লেষকরা। তাঁদের মতে, কিছু এখনও নিজের ঋণের দায় কমাতে পারে। তবে তার জন্য যে শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট দেশের প্রচেষ্টা যথেষ্ট, সেটাও নয়।

সংকট এড়ানোর জন্য দরকার আন্তর্জাতিক বাজারের স্থিতিশীলতা। সঙ্গে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (IMF)-এর আর্থিক সহযোগিতা। লাল-সতর্কতার আশেপাশে ঘোরাফেরা করা অর্থনীতির দেশগুলি তা হলেই হয়তো বড়োসড়ো ঝুঁকি এড়াতে পারে।

তথ্যসূত্র: Reuters

আরও পড়তে পারেন: 

প্রাক্তন নৌসেনা কর্মীর বাড়িতে হেরোইন তৈরির ল্যাবরেটরি, কাটোয়ায় গ্রেফতার ৪

একে একে সরে দাঁড়িয়েছে একাধিক বিরোধী দল, যশবন্ত সিনহাকে ভোট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল আপ

বাদল অধিবেশনের আগে সর্বদলীয় বৈঠক বয়কট তৃণমূলের, স্পিকারকে চিঠি

গুজরাত দাঙ্গার পর বিজেপি সরকারকে ফেলতে কংগ্রেসের কাছ থেকে ৩০ লক্ষ টাকা পেয়েছিলেন তিস্তা! দাবি তদন্তকারীদের

বুস্টার ডোজ নেওয়ার কথা ভাবছেন? জানুন কোথায়, কী ভাবে পাবেন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন