পারদের উত্থান ভাঙছে অতীতের সব রেকর্ড, তীব্র তাপপ্রবাহে পুড়ছে ইউরোপের একাধিক দেশ

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত জুনে রেকর্ড ভাঙা তাপপ্রবাহে জর্জরিত হয়েছিল কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটা অংশ। পারদ উঠে গিয়েছিল প্রায় ৫০ ডিগ্রির কাছাকাছি। মাস দেড়েক পর এ বার একই অবস্থার সম্মুখীন ইউরোপের একটা বড়ো অংশ। ইতিমধ্যেই কিছু কিছু জায়গায় পারদের উত্থান ভেঙে দিয়েছে অতীতের সব রেকর্ড। জায়গায় জায়গায় দেখা দিয়েছে ভয়াবহ দাবানল।

ইতালিতে পারদ ৪৯ ডিগ্রিতে

গত বুধবার, ইতালির সিসিলি দ্বীপের অন্তর্গত ফ্লোরিডিয়া শহরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৪৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা জানিয়েছে, ইউরোপের ইতিহাসে এটাই সর্বোচ্চ তাপমাত্রার সর্বকালীন রেকর্ড। ১৯৭৭ সালে গ্রিসের এথেন্সে রেকর্ড করা ৪৮ ডিগ্রির পারদকেও ছাপিয়ে গিয়েছে এটি। পারদ পঞ্চাশ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যাবে এমন সতর্কতাও জারি করা হয়েছিল। তবে সেটা এখনও পর্যন্ত হয়নি।

Shyamsundar

শুক্রবার রোম, ফ্লোরেন্স এবং বলোগনাতে পারদ ৩৯-৪০ ডিগ্রির কাছাকাছি ঘোরাফেরা করেছে। তীব্র এই তাপপ্রবাহের কারণে মানুষ অতিষ্ঠ। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই পরিস্থিতিতে বাড়িতে একা থাকেন এমন বৃদ্ধ-বৃদ্ধা এবং গৃহহীনরা সব থেকে অসহায় অবস্থায় পড়তে পারেন। তাঁদের দিকে নজর দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন করা হয়।

তীব্র দহনের জেরে জায়গায় জায়গায় তাপপ্রবাহ দেখা দিয়েছে। দক্ষিণ ইতালির কালাব্রিয়াকে দাবানল ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ইতিমধ্যেই সেখানে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে দাবানলের কারণে। ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘি তাঁর জরুরি অবস্থা দফতরের প্রধানকে কালাব্রিয়ায় পাঠিয়েছেন।

পুড়ছে স্পেনও

ইতিমধ্যে গরমে পুড়তে শুরু করেছে স্পেন। আগামী দিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যেতে পারে। শুক্রবার গ্রানাডা বিমানবন্দরে দুপুর ৩টের সময় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার সতর্কতা দেওয়া হয়েছে। শনিবার দক্ষিণ স্পেনে পারদ ৪৭ ডিগ্রি ছাপিয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদি সেটা হয়, তা হলে সর্বকালীন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করবে দেশটা। ছাপিয়ে যাবে ২০১৭ সালে রেকর্ড করা ৪৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে।

স্পেনেও দাবানল দেখা দিয়েছে জায়গায় জায়গায়। আগুন আয়ত্তে আনার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে দমকলবাহিনী।

আরও কয়েকটি দেশের বিপদের আশঙ্কা

ইতালি আর স্পেনের পাশাপাশি তীব্র তাপপ্রবাহের কবল থেকে বাদ যাবে না ফ্রান্স, গ্রিস, তুরস্ক, পর্তুগালও। আশঙ্কা এমনই। ইতালি সীমান্তের কাছে অবস্থিত ফ্রান্সের প্রোভেন্স অঞ্চলে শনিবার এবং রবিবার পারদ ৪০ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলতে পারে।

পর্তুগালেও শনিবার এবং রবিবার পারদ ৪০ ডিগ্রি পেরিয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দাবানলের আশঙ্কায় সাধারণ মানুষকে আপাতত কয়েকদিন কোনো অরণ্য ভ্রমণে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। একই অবস্থা হতে পারে গ্রিস এবং তুরস্কতেও। সব মিলিয়ে ইউরোপ জুড়ে গরমের পরিস্থিতি বেশ খারাপ।

আরও পড়তে পারেন

কোভিড বিধিনিষেধ আরও কিছুটা শিথিল করল রাজ্য

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন