ভুয়ো রাজপুত্র পকেটে পুরেছিলেন ৫৭ কোটি টাকা! ১৮ বছর কারাবাসের নির্দেশ আদালতের

ওয়েবডেস্ক: প্রায় তিন দশক ধরে ভুয়ো রাজপুত্র সেজে একাধিক দুর্নীতিতে জড়িত ফ্লোরিডার এক বাসিন্দাকে ১৮ বছরের কারাবাসের নির্দেশ দিল আদালত।

জানা গিয়েছে, সৌদি রাজপুত্রের মতো পোশাক পরে সঙ্গে বেশ কয়েক জন দেহরক্ষী নিয়ে ঘুরে বেড়াতেন অ্যান্টনি জিগন্যাক নামের ওই ব্যক্তি। শুধু তাই নয়, তিনি হাসিল করেছিলেন ভুয়ো কূটনৈতিক সংশাপত্রও। যা দেখিয়ে তিনি একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে অন্যায্য সুবিধা এমনকী টাকা আদায়ও করেছেন বলে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এই কম্মটি তিনি বিনা বাধায় প্রায় তিন দশক ধরে চালিয়ে এসেছিলেন।

সর্বক্ষণ সৌদি রাজপুত্রের মতো পোশাক পরিহিত অ্যান্টনি নিজেকে সৌদি রাজপুত্র খালিদ বিন আল-সৌদি হিসাবেই পরিচয় দিতেন। মিয়ামির অভিজাত ফিশার দ্বীপে বসবাসকারী ওই ভুয়ো রাজপুত্র সেখানকার সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীদের ব্যবসা করার সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা-সহ অন্যান্য উপহার আদায় করে নিতেন সহজেই। এ ক্ষেত্রে তাঁর হাতিয়ার ছিল ওই ভুয়ো কূটনৈতিক শংসাপত্র।

ব্যবসায় বিনিয়োগের লক্ষ্যে প্রায় ডজনখানেক উদ্যোগপতি তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করেন বলে প্রমাণিত হয়েছে। অ্যান্টনির বাড়ির নামটাও ছিল বেশ আকর্ষণীয়। ‘সুলতান’ নামের বাড়িটিতে প্রবেশের পরই যে তাঁর পোশাক, আচার-আচরণ দেখে আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের বিশ্বাস অর্জনে সফল হতো অ্যান্টনি, সে কথা বলাই বাহুল্য।

সৌদি রাজুপুত্রের আদলে পোশাকের পাশাপাশি নিজের ভ্রমণের জন্য ব্যাক্তিগত বিমানও ব্যবহার করতেন অ্যান্টনি। ২০১৭ সালে ফ্লোরিডার ওই দ্বীপে গিয়ে ওঠেন তিনি।

[ কেন প্রকাশ্য মঞ্চে ৫ নারীকে চুম্বন? ব্যাখ্যা ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্টের ]

জানা গিয়েছে, কলোম্বিয়ায় জন্ম অ্যান্টনির। মাত্র সাত বছর বয়সেই তাঁকে দত্তক নেন মিচিগানের একটি পরিবার। দীর্ঘ সময়ের ভুয়ো পরিচয় দিয়ে তিনি প্রায় ৫৭ কোটি টাকা (ভারতীয়) আদায় করেছেন বলে জানিয়েছে আদালত।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন