নয়াদিল্লি: আগামী তিন দশকের মধ্যে বিশ্বের ৫০ শতাংশেরও বেশি মানুষ শুধুমাত্র আটটি দেশেই কেন্দ্রীভূত হবে। বিশ্ব জনসংখ্যার সম্ভাবনা ২০২২ (World Population Prospects 2022) নামে একটি প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘ (United Nations)।

1কোন আটটি দেশ?

আগামী তিন দশকে জনসংখ্যা বৃদ্ধির দিক থেকে তালিকার শীর্ষে থাকবে ৮টি দেশ। রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই দেশগুলির মধ্যে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান, মিশর, ইথিওপিয়া, নাইজেরিয়া, কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, ফিলিপাইন এবং তানজানিয়া প্রজাতন্ত্র।

2দ্বিগুণ করার লক্ষ্যে

উল্লেখযোগ্য ভাবে, বিশ্বের ৪৬টি স্বল্পোন্নত দেশ দ্রুত বর্ধনশীল দেশের তালিকায় রয়েছে। ওই দেশগুলি ২০৫০ সালের মধ্যে নিজেদের জনসংখ্যা দ্বিগুণ করার লক্ষ্যের দিকে এগোচ্ছে।

3ধীর জনসংখ্যা বৃদ্ধি

রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওশেনিয়া, নর্থ আফ্রিকা এবং পশ্চিম এশিয়া শতাব্দীর শেষ পর্যন্ত ইতিবাচক কিন্তু ধীর জনসংখ্যা বৃদ্ধির অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়েই যাবে।

4শীর্ষে পৌঁছোবে যারা

অনুমান করা হয়েছে, ইউরোপ, নর্থ আমেরিকা, পূর্ব এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, সেই সঙ্গে দক্ষিণ এশিয়া, প্রথমে নিজেদের শীর্ষে পৌঁছাবে এবং তার পর শতাব্দীর শেষ নাগাদ জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার হ্রাস পাবে।

5ভারত-চিন

বিগত কয়েক দশকে জনসংখ্যা বৃদ্ধির বেশিরভাগই এশিয়ার চারপাশে কেন্দ্রীভূত হয়েছে। যেখানে শুধুমাত্র চিন এবং ভারতের মতো একেকটি দেশে জনসংখ্যা ১৪০ কোটির আশেপাশে ঘুরছে। এই দুই দেশের মিলিত জনসংখ্যা পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার প্রায় ৩৭ শতাংশ।

6জনসংখ্যা বৃদ্ধির গতিতে হ্রাস

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের জনসংখ্যা বাড়ছে, তবে বৃদ্ধির গতি কমে গেছে। এই বছরের শেষের দিকে, ১৫ নভেম্বর সুনির্দিষ্ট ভাবে বিশ্বের জনসংখ্যা ৮০০ কোটিতে পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে।

7২০৫০-এ কত হবে?

রাষ্ট্রসঙ্ঘের রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০৩০ সালের মধ্যে পৃথিবীর মোট জনসংখ্যা পৌঁছোবে সাড়ে ৮০০ কোটিতে। তবে ২০৫০ সালে সেটাই পৌঁছাতে পারে ৯৭০ কোটিতে।

8উন্নয়নে চ্যালেঞ্জ

বিশ্লেষকদের মতে, অনিয়ন্ত্রিত জনসংখ্যা বৃদ্ধি যে কোনো দেশের উন্নয়নের কাছে একটি বড়ো চ্যালেঞ্জ। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান-সহ প্রতিটা ক্ষেত্রের প্রয়োজনীয়তা পূরণেই এই প্রতিফলন দেখা যায়।

*সমস্ত ছবি প্রতীকী এবং সংগৃহীত

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল