youtube shooting

ক্যালিফোর্নিয়া: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ইউটিউবের সদর দফতরেও এ বার আতঙ্কের ছায়া। মহিলা বন্দুকবাজের হামলায় আহত হলেন তিন জন। পরে অবশ্য নিজের মাথায় বন্দুক চালিয়েই আত্মহত্যা করেন ওই মহিলা।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে একটা অর্থাৎ ভারতীয় সময়ে রাত সোয়া একটা নাগাদ এই ঘটনাটি ঘটেছে। সানফ্রানসিস্কো শহরের দক্ষিণে অবস্থিত এই সংস্থার সদর দফতরের চৌহদ্দিতে হঠাৎ করে গুলি চালাতে চালাতে ঢুকে পড়েন  এক মহিলা। আতঙ্কে ছুটে পালাতে দেখা যায় সংস্থার কর্মচারীদের।

গুলিচালনার ঘটনায় আহত হয়েছেন তিন জন। এঁদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানানো হয়েছে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী তথা সংস্থার কর্মচারী ডায়ানা আর্স্পিগার বলেন, ওই বন্দুকবাজের হামলার সময়ে তিনি সদর দফতরের দ্বিতীয় তলে নিজের কাজ করছিলেন। চেঁচামিচি শুনে জানলার কাছে গিয়ে ওই মহিলাকে দেখতে পান তিনি। তাঁর কথায়, ওই মহিলা চশমা পরেছিলেন এবং তাঁর মুখ ঢাকা ছিল। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা সংস্থার কনফারেন্স ঘরে লুকিয়ে পড়েন। তাঁর কথায়, “একটা আতঙ্কের মুহূর্ত কাটল।”

কয়েক জনকে গুলি করার পরেই নিজের মাথায় গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই বন্দুকবাজ। তাঁর নাম নাসিম আঘদাম বলে জানা গিয়েছে। তিনি ইউটিউবের কর্মচারী ছিলেন। এই ঘটনার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের কোনো যোগসূত্র উড়িয়ে দিয়েছে পুলিশ। তাদের দাবি, পারিবারিক অশান্তির জন্যেই এই কাজ করেছেন ওই মহিলা।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইউটিউবের মুখপাত্র ক্রিস ডেল বলেছেন, “আজ মনে হচ্ছে পুরো ইউটিউবের সংস্থা, সব কর্মচারীই একটা বড়ো আঘাত পেয়েছে। যাঁরা আহত হয়েছেন তাঁদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।” এই হামলার বিস্তারিত বিবরণ দেওয়া হয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here