Connect with us

বিদেশ

ইতিহাসে প্রথম বার তুষারপাত হল অতিপরিচিত এই দ্বীপে, দেখুন ভিডিও

hawaii snowfall

ওয়েবডেস্ক: আবহাওয়ার চূড়ান্ত ভেলকি। ইতিহাসে প্রথম বার তুষারপাত হল নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল হিসেবে পরিচিত প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপ হাওয়াইয়ে।

গত কয়েক দিন ধরেই হাওয়াই দ্বীপে চলছে ঝড়, বৃষ্টি। সেই সঙ্গে হচ্ছে তুষারপাতও।

হাওয়াই দ্বীপের মাউই অঞ্চলে পলিপলি স্টেট পার্কে প্রথম তুষারপাত হয়। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই পলিপলি পার্কের দিকে ভিড় জমাতে শুরু করেন সাধারণ মানুষ এবং পর্যটকরা।

আরও পড়ুন দূষণে দিল্লির ওপরে ভারতের তিন শহর, কলকাতা আছে কি?

কিন্তু সমস্যা অন্য জায়গায়। অভ্যাস নেই, তাই বরফে ঢাকা রাস্তায় গাড়ি চালাতে হিমসিম খাচ্ছেন চালকরা।

 

View this post on Instagram

 

Guess where every Toyota was today. We must of passed 100 on the way down . And one element

A post shared by Endo Lance (@lanceendo) on

উল্লেখ্য, সমুদ্রতল থেকে ৬,২০০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই পার্ক। উচ্চতা বেশি হলেও, এখানে কোনো দিনই বরফ পড়েনি বলে খবর।

শুধু তুষারপাতই নয়, শীতকালীন ঝড়বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে গোটা দ্বীপটি। গাছ পড়ার পাশাপাশি কিছু কিছু অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতিরও সৃষ্টি হয়েছে। হনলুলুর সব দর্শনীয় স্থান কয়েক দিনের জন্য বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

বিদেশ

বেইরুটের কিছু এলাকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত, নিহত শতাধিক

এই ঘটনায় জঙ্গিযোগ নেই বলেই মনে করছে লেবানন সরকার।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মঙ্গলবারের ভয়াবহ বিস্ফোরণের অভিজ্ঞতা এখনও ভুলতে পারেননি লেবাননের রাজধানী বেইরুটের (Beirut) বাসিন্দারা। বুধবার সকালেও বিস্ফোরণের প্রভাব রয়ে গিয়েছে শহরে। শহরের বেশ কিছু এলাকা কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত। এখনও ধিকি ধিকি আগুন জ্বলছে বন্দর এলাকায়।

লেবাননের (Lebanon) রেড ক্রস জানিয়েছে যে ইতিমধ্যেই বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। আহতের সংখ্যা চার হাজারেরও বেশি।

মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে প্রশাসন। বিস্ফোরণে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বুধবার জাতীয় শোক দিবস ঘোষণা করেছেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব।

মঙ্গলবার বিকেলে পর পর দু’টো জোরালো বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বেইরুটের বন্দর এলাকা। এর তীব্রতা এতটাই ছিল  যে ১০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত ঘরবাড়ি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কম্পন অনুভূত হয় বেইরুটের ২৪০ কিলোমিটার পশ্চিমে সাইপ্রাস দ্বীপেও।

এই ঘটনায় জঙ্গিযোগ নেই বলেই মনে করছে লেবানন সরকার। প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, বন্দর এলাকার একটি গুদামে ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুত ছিল গত ছয় বছর ধরে। তাতেই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

লেবাননের প্রধানমন্ত্রী এ-ও জানিয়েছেন, এত বিপুল পরিমাণে বিস্ফোরক মজুত কী ভাবে করা হল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোনো রকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা ছাড়া কেন এত বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক মজুত করা হয়েছে তাও খতিয়ে দেখা হবে। এই ঘটনার জন্য যারা দায়ী তাদের কঠোরতম শাস্তি দেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

একটা তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পাঁচ দিনের মধ্যে সেই কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান, গুদামে বা তার আশপাশে আগুন লেগে গিয়েছিল। সেই আগুনের জেরেই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

বিস্ফোরণস্থলের কাছাকাছি সব ঘরবাড়ি গুঁড়িয়ে গিয়েছে। ভেঙে পড়েছে বেশ কয়েকটি বহু তল। সেই ধ্বংসস্তূপের নীচে চাপা পড়ে যান অনেক মানুষ। এমনটাই জানাচ্ছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম।

এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, বেইরুটের বিস্ফোরণে এত লোকের প্রাণহানি হল, তার জন্য আমরা গভীর ভাবে শোকাহত।

Continue Reading

বিদেশ

বন্দর কর্তৃপক্ষের গাফিলতিকে দায়ী করলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী, উলটো সুর ডোনাল্ড ট্রাম্পের

“এটা এক ধরনের বোমা।”

বেইরুট: লেবাননের রাজধানী বেইরুটে (Beirut) ভয়াবহ বিস্ফোরণের পেছনে কোনো জঙ্গিযোগ নেই বলেই মনে করছে সে দেশের সরকার। বরং বন্দর কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত গাফিলতিকেই এই বিস্ফোরণের জন্য দায়ী করেছেন। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump) আবার অন্য কথা বলছেন।

লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেন, ২,৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট (Ammonium Nitrate) বিস্ফোরিত হয়েছে বেইরুট বন্দরে।

তিনি বলেন, “এটা কোনো ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না যে ছ ‘বছর ধরে কোনো সুরক্ষা ছাড়াই একটা গুদামে ২,৭৫০ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুত রাখা ছিল।” তাঁরা এটা নিয়ে নীরব থাকবেন না বলেও সাফ জানিয়েছেন দিয়াব।

ট্রাম্প দেখছেন জঙ্গিযোগ

“আমার দেখে মনে হচ্ছে এটা একটা হামলার ঘটনা।” হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সাধারণত, এই ধরনের হামলার ঘটনা ঘটলে জঙ্গি সংগঠনগুলি তার দায় স্বীকার করে নেয়। কিন্তু বেইরুটের ক্ষেত্রে এখনও সে রকম কিছু হয়নি। কিন্তু তবুও ট্রাম্প জঙ্গিযোগই দেখছেন।

তিনি বলেন, “এটা এক ধরনের বোমা। আমি আমাদের মহান সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেছি, তারাও সে রকমই ভাবছেন।”

তবে ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে ট্রাম্প বলেন, “মৃত এবং আহতদের পরিবারের প্রতি সমাবেদনা জানাচ্ছি। লেবাননকে যে কোনো ধরনের সাহায্য করতে প্রস্তুত আমেরিকা।”

উল্লেখ্য, বেইরুটের এই বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত ৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৩,৭০০ জন। তবে মৃতের সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পাড়ে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Continue Reading

বিদেশ

দু’টি ভয়ানক বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বেইরুট, হতাহত অগুনতি

দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের হিসাব অনুযায়ী আপাতত ৭৩টি দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। জখম হয়েছেন ৩৭০০ জন।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বন্দরে দু’টি বিশাল বিস্ফোরণে (Explosions) মঙ্গলবার থর থর কেঁপে উঠল বেইরুট (Beirut)। হতাহতের সংখ্যা অগুনতি।

প্রাথমিক খবর, দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের হিসাব অনুযায়ী আপাতত ৭৩টি দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। জখম হয়েছেন ৩৭০০ জন। বিস্ফোরণের অভিঘাতে বহু দূরের ঘরবাড়ি পর্যন্ত কেঁপে উঠেছে। আতঙ্ক আর বিশৃঙ্খলা গ্রাস করেছে লেবাননের (Lebanon) রাজধানী শহরকে। মৃতের সংখ্যা আরও অনেক বাড়বে তা নিঃসংশয়ে বলা যায়।

প্রথম বিস্ফোরণের তুলনায় দ্বিতীয় বিস্ফোরণটি ছিল আরও সাংঘাতিক। বিস্ফোরণ ঘটার সঙ্গে সঙ্গে মনে হল আগুনের একটা বিশাল গোলা ক্রমশ আকাশকে ঢেকে ফেলছে। ছবিটা অনেকটা নাগাসাকি-হিরোশিমার পরমাণু বিস্ফোরণের মতো।

দু’টো বিস্ফোরণের জেরে বন্দর এলাকা বন্দর এলাকা একেবারে ধূলিসাৎ হয়ে গিয়েছে। কয়েক কিলোমিটার দূরের ঘরবাড়ির ব্যালকনি ভেঙে পড়ে, উড়ে যায় জানলার কাচ। সারা শহর জুড়ে যেন বয়ে গিয়েছে একটা বিধ্বংসী টর্নাডো।

মধ্য বেইরুটের পুড়ে যাওয়া বাড়িগুলি ও ধ্বংসস্তূপ থেকে রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের কাজ চলছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান জানিয়েছেন, প্রাথমিক খবর, ২৭ জন মারা গিয়েছেন আর আহত হয়েছেন অন্তত আড়াই হাজার মানুষ। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, সর্বনাশা বিপর্যয় বলতে যা বোঝায়, অক্ষরে অক্ষরে তা-ই ঘটেছে।”

বন্দরে (Beirut Port) কর্মরত এক সেনা সংবাদসংস্থা এএফপি-কে বলেছেন, “ভেতরে একেবারে প্রলয় ঘটে গিয়েছে। সারা জায়গা জুড়ে মৃতদেহ ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।”

বিস্ফোরণ অঞ্চলের মধ্যে যাঁরা কাজ করেন, তাঁদের আত্মীয়স্বজনরা নিরাপত্তাবেষ্টনীর বাইরে জড়ো হয়েছেন। তাঁরা তাঁদের প্রিয়জনের খবর পাওয়ার জন্য উদগ্রীব। ওই সেনা বলেন, “অ্যাম্বুল্যান্স এখনও মৃতদেহ তুলছে।”

বেইরুট বন্দরের গভর্নর স্কাই নিউজকে বলেন, ঘটনাস্থলে কর্মরত দমকলের এক বাহিনী বিস্ফোরণের পর ‘উধাও হয়ে গিয়েছে’।

কী করে ঘটল বিস্ফোরণ

কী করে বিস্ফোরণ ঘটল সে সম্পর্কে পরিষ্কার করে কেউই কিছু বলতে পারছেন না।

বন্দরের যে এলাকায় বিস্ফোরণ ঘটেছে, সেখানে বেশ কিছু গুদাম আছে যাতে বিস্ফোরক মজুত থাকে বলে জানিয়েছে লেবাননের সরকারি সংবাদ সংস্থা এনএনএ এবং নিরাপত্তাবাহিনীর দু’টি সূত্র। নিরাপত্তাবাহিনীর তৃতীয় একটি সূত্র বলেছে, ওই এলাকায় কেমিক্যাল মজুত করা ছিল।

ওই গুদামগুলিতে কী ধরনের বিস্ফোরক বা কেমিক্যাল ছিল তা-ও এখনও জানা যাচ্ছে না।

লেবাননের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা প্রধান আব্বাস ইব্রাহিম বলেন, “তদন্তে প্রভাব ফেলতে পারে এমন কিছু আগে থেকে বলব না।”

এক ইজরায়েলি আধিকারিক বলেন, এই জোড়া বিস্ফোরণের সঙ্গে ইজরায়েলের কোনো সম্পর্ক নেই।

বিস্ফোরণের তীব্রতা

বিস্ফোরণের তীব্রতা এত সাংঘাতিক ছিল যে, শুধু বেইরুটই নয়, বহু দূরের অঞ্চলেও মনে হয়েছে, জোর ভূমিকম্প হচ্ছে।

২৪০ কিমি দূরে অবস্থিত ভূমধ্যসাগরের দ্বীপ নিকোসিয়া। সাইপ্রাসের শাসনাধীন সেই দ্বীপ থেকেও বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গিয়েছে।

কয়েক দশক ধরে বন্দরের কাছেই বাস করছেন অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক মাকরুহি ইয়ারগানিয়ান। ৭০-এর ঘরে তাঁর বয়স। বললেন, “মনে হল পরমাণু বোমা ফাটল। এই দীর্ঘ জীবনে অনেক কিছু অভিজ্ঞতা হয়েছে, কিন্তু এ রকম কখনও হয়নি। এমনকি ১৯৭৫-১৯৯০-এর গৃহযুদ্ধেও নয়।”

স্কুলশিক্ষক বললেন, “এই অঞ্চলের সমস্ত বাড়ি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। এই অন্ধকারে আমি শুধু কাচ আর ধ্বংসস্তূপের মধ্যে দিয়ে হাঁটছি।”   

Continue Reading
Advertisement
দেশ12 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫২৫০৯, সুস্থ ৫১৭০৬

গাড়ি ও বাইক5 hours ago

পেট্রোলচালিত গাড়ি ‘এস-ক্রস’ বাজারে নিয়ে এল মারুতি সুজুকি

রাজ্য2 days ago

লকডাউনের সূচি ফের বদলাল রাজ্যে

ক্রিকেট1 day ago

বিতর্কের মধ্যেই আইপিএলের সঙ্গত্যাগ করল চিনা সংস্থা ভিভো

দেশ10 hours ago

রুপোর ইট দিয়ে রামমন্দিরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

দেশ2 days ago

কমল নতুন আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার, রোগীবৃদ্ধির হারও সর্বনিম্ন স্তরে

রাজ্য3 days ago

এক দিনে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যায় রেকর্ড, রাজ্যে বাড়ল সুস্থতার হার

ক্রিকেট10 hours ago

আইপিএলের নিয়মাবলি: গুচ্ছের টেস্টিং, চলা-ফেরায় নিয়ন্ত্রণ, একটি দলের জন্য একটি হোটেল

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

things things
কেনাকাটা5 days ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা3 weeks ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা4 weeks ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

নজরে

Click To Expand