Connect with us

বিদেশ

সুর বদল ডোনাল্ড ট্রাম্পের, বললেন তিনি চান না নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়া হোক

তিনি বলেন, “আমি চাই না নির্বাচন পিছিয়ে যাক। আমি চাই নির্বাচন হোক। কিন্তু আমি তিন মাস অপেক্ষা করতে চাই না, তার পর দেখব ব্যালট হারিয়ে গিয়েছে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বেগতিক বুঝে সুর পালটালেন ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। প্রেসিডেন্ট নির্বাচন (US president election) পিছোনোর প্রস্তাব দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ট্রাম্প বললেন, তিনি চান না ভোট পিছিয়ে দেওয়া হোক। তাঁর কথায়, ডাকে পাঠানো ব্যালট গুনতে সপ্তাহের পর সপ্তাহ লাগবে এবং নির্বাচনী ফলে এর প্রভাব পড়তে পারে, এই আশঙ্কাই ব্যক্ত করেছিলেন তিনি।

আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। দ্বিতীয় দফার মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য লড়ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বিডেনের কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। প্রধান প্রধান জনমত সমীক্ষায় বিডেন বেশ ভালো রকম এগিয়ে আছেন।

বৃহস্পতিবারই টুইট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছিলেন, “২০২০-তে সার্বিক ডাক ভোটগ্রহণ (Universal Mail-in Voting) ব্যবস্থা চালু হলে মার্কিন ইতিহাসে সব চেয়ে ত্রুটিপূর্ণ নির্বাচন হবে এবং জালিয়াতি হবে।”

ট্রাম্প তাঁর টুইটে বলেন, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সব চেয়ে লজ্জাজনক ঘটনা হবে। যত দিন না জনগণ নিরাপদে, সুরক্ষিত হয়ে, যথাযথ ভাবে ভোট দিতে পারছেন, তত দিন ভোট পিছিয়ে দেওয়া হোক।”

আরও পড়ুন: ‘ভোটে জালিয়াতি হতে পারে’, এই ‘আশঙ্কায়’ নির্বাচন পিছোনোর প্রস্তাব দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

টুইটে এই বার্তা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সমালোচনায় মুখর হয়ে ওঠেন ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতারা। তাঁর দল রিপাবলিকান পার্টিরও অনেকে ট্রাম্পের এই বার্তায় সংশয় প্রকাশ করেন।

এই টুইট করার কয়েক ঘণ্টার পরেই নিজের বক্তব্য থেকে পিছিয়ে আসেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এক সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁর টুইট সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমি চাই না নির্বাচন পিছিয়ে যাক। আমি চাই নির্বাচন হোক। কিন্তু আমি তিন মাস অপেক্ষা করতে চাই না, তার পর দেখব ব্যালট হারিয়ে গিয়েছে। তখন সেই নির্বাচনের কোনো অর্থ হয় না।”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট সাংবাদিকদের বলেন, ডাকে ভোটগ্রহণ হলে ভোট গুনতে দেরি হবে এবং তার ফলে ভোটের ফল আসতে দেরি হবে।

“আমি সপ্তাহের পর সপ্তাহ, মাসের পর মাস অপেক্ষা করতে চাই না। আপনারা জানেন না, হয়তো সেটা বছরে গড়াবে। তার পর দেখা যাবে ব্যালট হারিয়ে গিয়েছে”, বলেন ট্রাম্প।    

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

বিজ্ঞান

মঙ্গলগ্রহের বুকে আরও তিনটে হ্রদের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা

বিজ্ঞানীদের ধারণা, মঙ্গলের জলাধারে জলের তাপমাত্রা -১০ থেকে -৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Published

on

InSight

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বছর দুয়েক আগে মঙ্গলগ্রহে (Mars) বরফের আস্তরণের নীচে একটি বড়ো হ্রদের সন্ধান পেয়েছিলেন গবেষকরা। এ বার তাঁরা খুঁজে পেলেন আরও তিনটি হ্রদ। ‘নেচার অ্যাস্ট্রোনমি’ পত্রিকায় প্রকাশিত এক গবেষণাপত্র থেকে তেমনটাই জানা গিয়েছে।

এই গবেষণার সঙ্গে যুক্ত অন্যতম গবেষক রোম বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রহ বিজ্ঞানী এলিনা পেত্তিনেল্লি জানাচ্ছেন, ‘‘আমরা ওই বড়ো হ্রদটি আগেই পেয়েছিলাম। কিন্তু এ বার ওটার কাছাকাছি আরও তিনটি হ্রদের সন্ধান পেয়েছি।’’

গবেষকরা জানাচ্ছেন, ওই চারটি জলাশয় ৭৫ হাজার বর্গকিলোমিটার জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে। বড় হ্রদটি ৩০ বর্গ কিলোমিটার জুড়ে অবস্থিত। তাকে ঘিরে রয়েছে বাকি তিনটি হ্রদ।

ভূগর্ভস্থ এই জলাশয়গুলির আবিষ্কারের পর মঙ্গল নিয়ে গবেষণা নতুন দিকে মোড় নিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই আবিষ্কারের পর সেই পুরনো প্রশ্ন আবার ফিরে আসতে পারে। তা হলে কি মঙ্গলে প্রাণের সন্ধান মিলতে পারে?

বিজ্ঞানীদের ধারণা, মঙ্গলের জলাধারে জলের তাপমাত্রা -১০ থেকে -৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই ঠান্ডায় হ্রদের জল তরল থাকার অর্থ তাতে প্রচুর লবণ রয়েছে। ব্রিটেনের সেন্ট অ্যান্ড্রুজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. ক্লেয়ার কাজিনস বছর দুই আগে বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাত্‍কারে বলছিলেন, “এমন ঠান্ডা আর লবনাক্ত জলে প্রাণের অস্তিত্ব পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।”

তবে, গবেষকরা জলের উপস্থিতি নিশ্চিত করার পর, মঙ্গলগ্রহে প্রাণের সন্ধান নিয়ে গবেষণায় যে গতি পাবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দু’সপ্তাহ আগে উত্তরপ্রদেশে গণধর্ষিতা হয়েছিলেন, দিল্লির হাসপাতালে মৃত্যু সেই তরুণীর

Continue Reading

বাংলাদেশ

অবৈধ পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকাডুবি, বাংলাদেশি-সহ উদ্ধার ২২

এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ১৩ জন। নিখোঁজ ব্যক্তিদের খুঁজতে উদ্ধারকাজ চালানো হচ্ছে।

Published

on

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে এ ভাবেই ঘটে নৌকাডুবি। ফাইল চিত্র।

ঋদি হক: ঢাকা

ভূমধ্যসাগরে (Mediterranean Sea) মৃত্যুর হাতছানিকে তোয়াক্কা না করে আগামী সোনালি দিনের স্বপ্ন গড়তে দালালের হাতে তুলে দিতে হয় লাখ লাখ টাকা। অনাহার, অর্ধাহারে রাতের আঁধারে পথ চলতে হয় হিংস্র জানোয়ারদের পাশ কাটিয়ে। রাতের পর রাত বনেবাদাড়ে কাটিয়ে লিবিয়া (Libya) থেকে নৌকাযোগে দুঃসাহসিক যাত্রা ইউরোপের (Europe) পথে। জঙ্গল থেকে সাগর, সাগর থেকে সাগরতীর – সর্বত্র মৃত্যু-সহ হাজারো নিগ্রহ সম্বল করেই তাঁদের যাত্রা। এমনি যাত্রায় শ’ শ’ তরুণের স্বপ্ন বিলীন হয়ে গেছে ভূমধ্যসাগরের অথৈ জলরাশিতে। কোনো দিন তারা মায়ের বুকে ফিরে আসবে না।

আবার ঘটল সেই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। এ বারের ঠিকানাও ভূমধ্যসাগর। এ ঘটনায় বাংলাদেশি-সহ (Bangladeshi) ২২ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও নিখোঁজ রয়েছেন ১৩ জন। নিখোঁজ ব্যক্তিদের খুঁজতে উদ্ধারকাজ চালানো হচ্ছে। 

জানা গেছে, লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি (Tripoli) থেকে ইউরোপে যাওয়ার সময় ভূমধ্যসাগরে বিভিন্ন দেশের ৩৫ জোন আরোহী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে যায়। ঘটনাটি বৃহস্পতিবার বিকেলের। নৌকাডুবির প্রত্যক্ষদর্শী লিবিয়ার জেলেরা।

তাঁরা বাংলাদেশি নাগরিক-সহ ২২ জনকে জীবিত উদ্ধার করেন। তাঁদের মধ্যে মিশর, সিরিয়া, সোমালিয়া, ঘানা-সহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক রয়েছেন। এ ঘটনায় আরও অন্তত ১৩ জন নিখোঁজ রয়েছেন। বুধবার ত্রিপোলির পূর্বাঞ্চলের জিলিতেন শহর থেকে নৌকাটি যাত্রা করে। উদ্ধারকাজ চালানোর সময় সিরীয় নারী ও পুরুষ-সহ তিনজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। লিবিয়ার উপকূলরক্ষীরা জানিয়েছেন, নিখোঁজ ব্যক্তিদের খুঁজতে উদ্ধারকাজ অব্যাহত রয়েছে। নৌকাটিতে ঠিক কত জন বাংলাদেশি নাগরিক ছিলেন, তা জানা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবে মৃত্যুর ঘটনা এটাই প্রথম নয়। গত বছর ১২ মে লিবিয়া থেকে নৌকাযোগে উত্তাল ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গেয়ে নৌকা ডুবে ৩৭ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। অবৈধ ভাবে ইতালি যাওয়ার পথে নৌকাটিতে থাকা অন্তত ৬৫ জন অভিবাসী প্রাণ হারান। তাঁদের বেশির ভাগই ছিলেন বাংলাদেশি। সংখ্যা ৩৭ জন। তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট এই খবর নিশ্চিত করে।

সে সময় তিউনিসিয়া উপকূলে ওই নৌকাডুবির পর জীবিত ডজনখানেক মানুষকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। যাঁদের মধ্যে বেলাল আহমেদ নামের এক বাংলাদেশি তাঁর ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন।

একজন একজন করে কী ভাবে তাঁরা ডুবে যাচ্ছিলেন তার বর্ণনা দিয়েছিলেন বেলাল। ৩০ বছরের বেলাল সেই নৌকাডুবির ঘটনায় দুই স্বজনকে হারান।  ইতালি অভিমুখী নৌকাটিতে ৫১ জন বাংলাদেশি ও তিনজন মিশরীয় ছাড়াও মরক্কো ও চাদের কয়েক জন ছিলেন। বাকিরা ছিলেন আফ্রিকান। উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে একটি শিশু-সহ মোট ১৪ জন বাংলাদেশি।

২০১১ সালে লিবিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর সেখান থেকে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক লিবীয় ও অন্যান্য দেশের বাসিন্দা সাগরপথে ইউরোপে যাওয়ার জন্য ভূমধ্যসাগরকে রুট হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে মে পর্যন্ত ১৭ হাজার অভিবাসী ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে পৌঁছেছে। এই যাত্রাপথে প্রায় ৫০০ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

বিতর্কিত কৃষি বিলের বিরোধিতায় বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগ করল অকালি দল

Continue Reading

দেশ

করোনাকে জয় করতে বিশ্বকে সাহায্য করতে পারে ভারত: রাষ্ট্রপুঞ্জের সভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

নরেন্দ্র মোদী বলেন, টিকা উৎপাদনে ভারতের ক্ষমতা এই মহামারি জিততে বিশ্বকে সাহায্য করবে।

Published

on

PM Narendra Modi in UNGA
সাধারণ পরিষদের ভার্চুয়াল সভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

খবর অনলাইন ডেস্ক: সমস্ত পরীক্ষানিরীক্ষা সফল হয়ে যাওয়ার পর একবার সাধারণ মানুষকে টিকা (Vaccine) দেওয়া শুরু হলে ভারত করোনা-সংকট (Coronavirus crisis) থেকে বিশ্বকে মুক্ত করার কাজে সাহায্য করতে পারে। রাষ্ট্রপুঞ্জের (United Nations) সাধারণ পরিষদের (General Assembly, UNGA) ৭৫তম সভায় এই কথা বলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী (Indian PM) নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)।

করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আরও বেশি কিছু করার জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জকে আহ্বান জানান মোদী।

শনিবার রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ পরিষদের ভার্চুয়াল সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বিশ্বে টিকার সর্ববৃহৎ প্রস্তুতকারী দেশ হিসাবে আমি আন্তর্জাতিক সমাজকে আরও একটি আশ্বাস দিতে চাই। টিকা উৎপাদন এবং সরবরাহের ক্ষেত্রে ভারতের যে ক্ষমতা আছে, তা এই সংকটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সমগ্র মানবজাতিকে সাহায্য করার কাজে ব্যবহার করা হবে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, টিকার তৃতীয় দফার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ক্ষেত্রে ভারত দ্রুত এগিয়ে চলেছে। টিকার নিরাপত্তা ও কার্যকারিতা যাচাইয়ের ক্ষেত্রে ব্যাপক হারে ট্রায়ালকেই সোনালি মান বলে ধরে নেওয়া হয়। এই টিকা মজুত করার ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ভারত সব দেশকে সাহায্য করবে।

নরেন্দ্র মোদী বলেন, “টিকা উৎপাদনে ভারতের ক্ষমতা এই মহামারি জিততে বিশ্বকে সাহায্য করবে। করোনাভাইরাস সংকটের সময় ভারত ১৫০টিরও বেশি দেশকে চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ করেছে।”

গত মাসে স্বাধীনতা দিবসের বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ভারতে তিনটি টিকা পরীক্ষার বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। “বিজ্ঞানীরা সবুজ সংকেত দিলেই আমরা উৎপাদনের পরিকল্পনা নিয়ে প্রস্তুত হয়ে যাব। খুব কম সময়ে কী ভাবে প্রতিটি ভারতীয়ের কাছে টিকা পৌঁছে দেওয়া যায় তার রোডম্যাপ আমাদের তৈরি হয়ে আছে।”

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

কোভিডের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এই প্রথম ভারতে ‘আর নম্বর’ নামল ১-এর নীচে

Continue Reading
Advertisement
Uncategorized18 hours ago

সরষের তেল থেকে এলপিজি হয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স, কাল থেকে যে ১০টি নিয়ম বদলে যাচ্ছে

Coronavirus durga puja
দেশ18 hours ago

ওনামেই বিপদ বাড়ল কেরলের, পুজোর আগে শিক্ষা নিতে হবে পশ্চিমবঙ্গকে

Uttar Pradesh Police
দেশ18 hours ago

আটকে রাখা হল পরিবারকে, ঘেঁষতে দেওয়া হল না সংবাদমাধ্যমকে, হাতরাসের তরুণীর শেষকৃত্য করল পুলিশ

corona
দেশ18 hours ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও সুস্থ হলেন আরও বেশি মানুষ, সক্রিয় রোগী আরও কমল ভারতে

দেশ19 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

mamata banerjee and sonia gandhi
রাজ্য19 hours ago

নয়া কৃষি আইন রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি কংগ্রেসের

suresh raina
ক্রিকেট20 hours ago

সংঘাত চরমে, ওয়েবসাইট থেকে সুরেশ রায়নার নাম মুছে দিল চেন্নাই সুপারকিংস

Rapes in India
দেশ20 hours ago

দৈনিক ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা ভারতে, চাঞ্চল্যকর তথ্য এনসিআরবির

দেশ19 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

north bengal rain
রাজ্য3 days ago

অতিবৃষ্টির হাত থেকে অবশেষে রেহাই পেল উত্তরবঙ্গ, আপাতত স্বস্তি

covid peak india
দেশ2 days ago

১৮ সেপ্টেম্বরের পর থেকে সক্রিয় রোগীর গ্রাফ নিম্নমুখী, কোভিডের চূড়া কি অবশেষে পেরোল ভারত?

coronavirus
দেশ2 days ago

দেশে নতুন কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যা গত ২৮ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন, ব্যাপক পতন মৃত্যুর সংখ্যাতেও

ganges cruise
কলকাতা3 days ago

মাত্র ৩৯ টাকায় গঙ্গাবক্ষে উপভোগ করুন ‘হেরিটেজ ক্রুজ’

Ration Card and Aadhaar Number
প্রযুক্তি3 days ago

অনলাইনে সত্যিই কি রেশন কার্ডে আধার লিঙ্ক করা যায়?

low pressure west bengal rain
রাজ্য3 days ago

অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে আসতে পারে নিম্নচাপ, তত দিন বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিই ভরসা দক্ষিণবঙ্গের

দুর্গা পার্বণ2 days ago

করোনাকালে আড়ম্বর থাকবে না, তবুও থাকবে চমক তেলেঙ্গাবাগানের পুজোয়

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 days ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা5 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা6 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা2 weeks ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

নজরে