ঘরোয়া নির্যাতনের চিত্রিত ভিডিও, হৃদয় বিদীর্ণ করে ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

0
domestic violence

ওয়েবডেস্ক: মেয়েদের উপর ঘরোয়া নির্যাতনের স্তরগুলি চিত্রিত করার একটি ভিডিও টুইটারে ভাইরাল হয়েছে। জেনান মুসা নামে এক মহিলা টুইটারে ওই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখানো হয়েছে, আপত্তি সত্ত্বেও জোর করে বিয়ের আসরে নিয়ে যাওয়ার জন্য কী ভাবে এক জন মহিলাকে পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়। সেই সমস্ত দৃশ্যগুলিই মেকআপের মাধ্যমে একের পর এক স্তরগুলিকে অতিক্রম করে এগিয়ে গিয়েছে।

জেনান ভিডিওটি শেয়ার করার সময় ক্যাপশনে লিখেছেন, “ঘরোয়া নির্যাতনের বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোর কী শক্তিশালী ক্লিপ”। ভিডিওটির শুরুতে, কোনো মহিলার উদ্দেশে গালাগাল শুরু হওয়ার আগে, তাঁর ফুল পাওয়া এবং তাঁর প্রতি স্নেহের জন্য তাঁকে খুশি হতে দেখা যায়।

তবে নিজের সঙ্গীর উদ্দেশে প্রতিশ্রুতি দেওয়ার কথা উঠতেই সহিংসতা শুরু হয়। ক্লিপটিতে ধীরে ধীরে ওই মহিলাকে ক্ষতবিক্ষত করা হয়েছে এবং কী ভাবে তিনি নিজের মতের বিরুদ্ধে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে বাধ্য হয়েছেন এবং ক্ষতবিক্ষত হয়েছেন, সেটা মেক-আপের মাধ্যমে করা ফুটিয়ে তোলার পাশাপাশি তাঁর ক্ষতগুলিকেও আড়াল চেষ্টার দৃশ্যগুলি চিত্রিত হয়েছে।

ভিডিওটির শেষপর্বটি ভীষণভাবে হৃদয়বিদারক। কারণ শেষমেশ দেখা যাচ্ছে মহিলা ভারী চোট পেয়েছেন, যার জেরে তাঁর করুণ চোখ কান্নায় ভেঙে পড়ছে।

ভিডিওটি অনলাইনে পোস্ট হওয়ার পরে, টুইটারিয়েতদের একাংশ ঘরোয়া নির্যাতনের বিরুদ্ধে এবং কী ভাবে মহিলাদের অত্যাচারিত হতে হয়, তার বিরুদ্ধে মন্তব্যের ঝড় তোলেন। কোনো মহিলা পরিবারের মত মেনে বিয়ে না করতে চাইলে সমাজও তাঁকে ভিন্ন চোখে দেখে বলে মন্তব্য করেন অনেকেই।

এক টুইটারিয়েত লিখেছেন, “পুরুষদের কে বোঝাবে, এক জন মহিলাকে পুরুষের মতো চিন্তাভাবনার শরিক হওয়ার জন্য মারধরের প্রয়োজন নেই”! বাকি অনেকেই এই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও তৈরির জন্য মহিলার প্রশংসা করেছেন।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.