এই প্রথম কোনো হিন্দু মহিলা পুলিশ অফিসার নিয়োগ হল পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশে

0
Pushpa Kolhi

ওয়েবডেস্ক: হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রথম মহিলা হিসাবে পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের পুলিশ আধিকারিক নির্বাচিত হলেন পুষ্পা কোহলি। তিনি সিন্ধ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে প্রাদেশিক প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় দক্ষতা অর্জন করেছিলেন। তাঁকেই সিন্ধু পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক বা অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেকটর (এএসআই) হিসাবে নিয়োগ করা হল।

সংবাদ সংস্থা বিবিসি-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পুষ্পা বলেন, তিনি সিন্ধুপ্রদেশের একটি প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে উঠে এসেছেন। দারিদ্র্যকে অনেক কাছ থেকে দেখেছেন তিনি।

এ বছরের জানুয়ারিতে সুমন কুমারী মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ পাকিস্তানে সিভিল জজ হিসাবে নিয়োগ হন, তিনিই এই পদে নিয়োগপ্রাপ্ত প্রথম হিন্দু মহিলা। সুমন, যিনি সিন্ধু প্রদেশের কাম্বার-শাহদাদকোটের বাসিন্দা, তাঁর নিজের জেলাতেই তিনি বর্তমানে কর্মরত। অন্য দিকে বোদানি, যিনি সিন্ধুর শাহদাদকোট অঞ্চলের বাসিন্দা, তিনি সিভিল জজ / জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের মেধা তালিকায় ৫৪তম স্থানে রয়েছেন।

বর্তমানে হিন্দুরা পাকিস্তানের বৃহত্তম সংখ্যালঘু সম্প্রদায় হিসাবে চিহ্নিত হয়েছেন। সরকারি হিসেব অনুসারে, পাকিস্তানে ৭৫ লক্ষ হিন্দু বাস করেন। তবে সম্প্রদায়ের মতে, দেশে ৯০ লক্ষেরও বেশি হিন্দু বসবাস করছেন সেখানে।

পাকিস্তানের হিন্দু জনসংখ্যার সিংহভাগ সিন্ধু প্রদেশে বাসিন্দা। যেখানে তাঁরা মুসলমানদের সঙ্গে সংস্কৃতি, ঐতিহ্যে এবং ভাষা ভাগ করে নিয়েছেন।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.