স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে শান্তির ঘণ্টাধ্বনি বেজে ওঠে। প্রতি বছর এই দিনটিতে। ১৯৪৫ সালে ৬ আগস্ট ঠিক এই সময়েই মার্কিন যুদ্ধবিমান  পরমাণু বোমা ছুঁড়েছিল শহরটার উপর। মৃত্যু ও ধ্বংসের সেই মহা ইতিহাস বহু আলোচিত। শনিবারও শহরে জড়ো হয়েছিলেন প্রায় ৫০ হাজার মানুষ। তার মধ্যে ছিলেন সেই দিনের ঘটনার সাক্ষী কেউ কেউও। এদিনের জমায়েতে হিরোশিমার মেয়র কাজুমি মাতসুই তুলে আনলেন কিছুদিন আগেই হিরোশিমা সফর করে যাওয়া যাওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কথা। ওবামাই প্রথম ক্ষমতায় আসীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি হিরোশিমায় আসেন।

মেয়র মাতসুই এদিন দুনিয়ার রাষ্ট্রনেতাদের ওবামার দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে হিরোশিমায় আসার আমন্ত্রণ জানান। আবেদন জানান, পরমাণু অস্ত্র মুক্ত পৃথিবী তৈরি করার। গত মে মাসে হিরোশিমায় এসে ওবামা আশা প্রকাশ করেছিলেন আমেরিকা সব পরমাণু শক্তিধর দেশগুলি ভয়ের যুক্তি মেনে না চলার সাহস দেখাবে এবং পরমাণু অস্ত্রবিহীন পৃথিবী গড়ে তোলার প্রয়াস নেবে। সে কথা টেনে এনে এদিন মেয়র বলেন, ‘ “চরম শত্রু” বলে কিছু হয় না, হিরোশিমার এই আন্তরিক বিশ্বাস যে প্রেসিডেন্টকে স্পর্শ করেছিল তা তাঁর কথা থেকেই পরিষ্কার’।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here