ওয়েবডেস্ক: যা দেখা যাচ্ছে, আরিজোনার মেসার ব্যানার ডেসার্ট মেডিক্যাল সেন্টারে যেন জন্মোৎসব শুরু হল! তাও আবার মেটারনিটি ওয়ার্ডে নয়, এ ক্ষেত্রে গর্ভধারণ করেছেন হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে কর্মরত ১৬ জন নার্স! সেই খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়ে গিয়েছে কানাকানি- ব্যাপারটা কী? হাসপাতালের জলহাওয়ায় এমন কিছু আছে না কি যার জেরে রাতারাতি গর্ভবতী হয়ে পড়ছেন নার্সরা?

এ প্রসঙ্গে ওই ১৬ জন গর্ভবতী নার্সের এক জন পেইজ প্যাকার্ডের বিবৃতির দিকে চোখ রাখা যেতে পারে। “আমি এটা জানি- আমাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন একই সময়ে ফার্টিলিটি চিকিৎসার কল্যাণে মা হওয়ার সৌভাগ্যলাভ করেছেন। বাকি আমরা মা হয়েছি স্বাভাবিক ভাবেই। তবে একই সময়ে হওয়াটা নেহাতই কাকতালীয়, পরিকল্পনা করে আমরা এ সব করিনি”, জানাচ্ছেন পেইজ!

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীর ছবি নিয়ে নেটদুনিয়ায় রঙ্গ-ঝড়

যা হোক, আপাতত হাসপাতাল জুড়ে যে একটা হইচই চলছে, তা বলাই বাহুল্য। এমনকি সেই হইচইয়ের জেরে বদলে যাচ্ছে ক্যান্টিনের স্বাস্থ্যকর মেনুও। “প্রথম দিন আমাদের একজন ক্যান্টিন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করে, স্যান্ডউইচটা যেন গর্ভবতীদের স্বাদের উপযুক্ত করে তৈরি করা হয়। পরের দিনেই দেখা গেল, ক্যান্টিনে টক-ঝাল আচার আর তেলতেলে মুখরোচক খাবার আমাদের জন্য পরিবেশন করা হচ্ছে”, বলছেন পেইজ!

অবশ্য, শুধুই খাবার নয়! নার্সদের অনাগত খোকা-খুকিদের জন্য এখন থেকেই এক উপহারও প্রস্তুত করে রেখেছে হাসপাতাল। ওই ১৬ জনের প্রত্যেকে পেয়েছেন সদ্যোজাতকে পরানোর জন্য ঢিলেঢালা পাতলুন! তাতে লেখা আছে- “আরে রিল্যাক্স করো! তোমাদের মা একজন দক্ষ নার্স!” পাশাপাশি, নার্সরা যখন মা হয়ে যাবেন, তখন মাতৃত্বকালীন অবসরে কাজ চালানোর জন্য লোকও খুঁজছে কর্তৃপক্ষ!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন