‘দেশেই রয়েছি, তাই আমিই প্রেসিডেন্ট’, তালিবানকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ জানালেন গনি সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রবিবার তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন যে তালিবানদের কাছে কোনো দিনও মাথা নত করবেন না তিনি। এর দিন দুয়েক পরেই নিজেকে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে তালিবানকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন সদ্য প্রাক্তন গনি সরকারের উপরাষ্ট্রপতি আমরুল্লা সালেহ্।

এর পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন যে কোথাও যাননি তিনি, রয়েছেন আফগানিস্তানেই। তালিবান যতই হম্বিতম্বি করুক, সংবিধান অনুযায়ী তিনিই এখন দেশের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট। এমনই দাবি করেছেন তিনি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টুইট করে সালেহ লেখেন, “ভ্রম সংশোধন: আফগানিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী, নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট যদি গরহাজির থাকেন, পালিয়ে গিয়ে থাকেন, ইস্তফা দিয়ে থাকেন অথবা মারা গিয়ে থাকেন, সে ক্ষেত্রে ভাইস প্রেসিডেন্টই ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট বলে বিবেচিত হবেন। এই মুহূর্তে দেশেই রয়েছি আমি এবং আমিই বর্তমানে বৈধ ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট। এ ব্যাপারে সমর্থন এবং ঐকমত্য পেতে সমস্ত রাজনীতিকের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি আমি।”

এ প্রসঙ্গে আরও পড়তে পারেন

তালিবানকে প্রতিরোধ করার প্রস্তুতি? আফগানিস্তানের প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্টের মন্তব্য ও একটি ছবি ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

পাঞ্জশিরে রয়েছেন সালেহ

কাবুলের উত্তরপূর্ব প্রান্তে অবস্থিত পাঞ্জশির উপত্যকা। কোনো দিনও এই অঞ্চল তালিবানের দখলে যায়নি। ৯০-এর দশকে তালিবান যেমন এই পাঞ্জশিরকে কবজা করতে পারেনি, তেমনই তার আগের দশকে সোভিয়েত ইউনিয়নও পারেনি। ভূপ্রকৃতিগত কারণে এই উপত্যকা দখল করা যায় না বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এই উপত্যকাতেই বর্তমানে সালেহ রয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

শুধু পাঞ্জশিরে থাকাই নয়, তালিবানকে প্রতিরোধ করার জন্য় তিনি ঘুঁটি সাজাচ্ছেন বলেও মনে করা হচ্ছে। সম্প্রতি একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে যে ওই অঞ্চলে তালিবান বিরোধী মুখ আহমেদ শাহ মাসুদের ছেলের সঙ্গে বৈঠক করছেন সালেহ।

আরও পড়তে পারেন

মহিলারাও কাজ করবেন তবে শরিয়া আইন মেনে, অবস্থান বদলের ইঙ্গিত দিল তালিবান

‘কাশ্মীর দ্বিপাক্ষিক এবং অভ্যন্তরীণ বিষয়’, নয়াদিল্লির অবস্থানেই সায় দিল তালিবান

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন