rajinikanth

ওয়েবডেস্ক: নতুন কোনো দক্ষিণী ছবির দৃশ্য?

আপাতদৃষ্টিতে তা-ই মনে হতে পারে বটে! মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরের মাটি চপার ছোঁয়ার সঙ্গে সঙ্গে তেমনটাই মনে হল! যখন সম্পূর্ণ নায়কোচিত মহিমা নিয়ে চপার থেকে নেমে এলেন রজনীকান্ত আর কমল হাসন। তবে, কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কিংবদন্তি এই দুই দক্ষিণী তারকার মালয়েশিয়া সফর নয়! বরং, তাঁরা দু’জনে দেশের জাতীয় স্টেডিয়ামে পৌঁছেছেন তামিল ছায়াছবি কারখানার উন্নতিকল্পে এক চাঁদা তোলার অনুষ্ঠানে।

rajinikanth

চমক আরও বাড়ল যখন দুই তারকা পাশাপাশি দাঁড়ালেন। এক দিকে কমল হাসন পরে রয়েছেন আপাদমস্তক সাদা পোশাক, অন্য দিকে রজনীকান্তের অঙ্গাবরণ পুরোটাই কালো! বড়ো আশ্চর্য এই সমাপতন! কেন না, কেরিয়ারে বেশির ভাগ সময়েই কমল হাসন যেরকম বেছে নিয়েছেন সদর্থক চরিত্র, তালাইভা তেমনই পছন্দ করেছেন এমন চরিত্রে অভিনয় যার কিছু ধূসর দিক থাকবেই! কখনও বা আবার সম্পূর্ণ নেতিবাচক চরিত্রেও ছায়াছবির রুপোলি পর্দায় ধরা দিয়েছেন তিনি!

তা, পোশাকের এই পরিকল্পনা সেই দিকটা মাথায় রেখে হতেই পারে! কেন না, অনুষ্ঠানটা যে শেষ পর্যন্ত তামিল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি সংক্রান্ত, রাজনৈতিক নয়। তবে শুধু পোশাকেই চমক শেষ নয়। ছায়াছবিতে যেমনটা দেখা যায়, ঠিক সেরকম ভাবেই রবিবারে দেখা গেল রজনী আর হাসনের শরীরী ভাষা। চপার থেকে নেমেই রজনীকান্ত ব্রাশ দিয়ে পরিপাটি করে নিলেন এলোমেলো চুল। কমলকেও সেই ব্রাশ যখন এগিয়ে দিলেন তিনি, সবিনয়ে তা প্রত্যাখ্যান করলেন নায়ক। ছায়াছবিতে যেমন তাঁর মাটির কাছাকাছি থাকা অবতার দেখা যায়, তেমন ভাবেই হাত দিয়ে চুল ঠিক করে নিলেন তিনি।

রাজনৈতিক মহলের অনুমান, এই ব্রাশ প্রত্যাখ্যানের গূঢ় তাৎপর্য থাকতেই পারে। যে দিন থেকে রাজনীতিতে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রজনীকান্ত, সে দিন থেকেই শুরু হয়েছিল এক জল্পনা। কমল হাসন আর রজনী কি এবার একসঙ্গে রাজনৈতিক দল চালাবেন? এই যোগের সম্ভাবনা যদিও বাতিল করে দিয়েছেন দুই তারকাই, তবুও জল্পনা থামছে না। বিশেষ করে এ দিনের অনুষ্ঠানে একই চপারে দু’জনের মালয়েশিয়া আসা সেই কানাকানি আরও বাড়িয়ে তুলল!

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন