তেহরান: ‘মানুষের ভুলেই’ ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল ইউক্রেনের বিমানকে লক্ষ্য করে। শনিবার সকালে এমনই স্বীকারোক্তি এসেছে ইরানের তরফে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে। পাশাপাশি ইরানের বিদেশমন্ত্রী জাভেদ শরদ টুইটারে বলেন, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হঠকারিতার জন্য যখন সংকট তৈরি হয়েছে, তখনই মানুষের ভুলে এই বিপর্যয় ঘটেছে।”

সশস্ত্র বাহিনীর প্রাথমিক তদন্তেই এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন জাভেদ। এই ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে দেশের জনগণ, শোকাহত পরিবার এবং ক্ষতিগ্রস্ত অন্যান্য দেশের কাছে শর্তহীন ভাবে ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, বুধবার ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়ে ১৭৬ জনের। সে দিনই ইরান জানিয়েছিল, তেহরানের ইমাম খামেনেই বিমানবন্দর থেকে বিমানটি টেক-অফ করার পরেই তার ইঞ্জিনে আগুন লেগে যায়। ইরানের অসামরিক বিমান সংস্থার প্রাথমিক তদন্ত বিমানটির ‘যান্ত্রিক ত্রুটি’র দিকেই ইঙ্গিত করেছে।

আরও পড়ুন শীত ফিরল দক্ষিণবঙ্গে, আরও পারদ-পতনের সম্ভাবনা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফে প্রথম থেকেই ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে বিমান ধ্বংসের কথা বলা হলেও, সেই দাবি এত দিন উড়িয়ে দিচ্ছিল ইরান। ইরানের সিভিল অ্যাভিয়েশন অর্গানাইজেশনের প্রধান বলেছিলেন, “ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র বিমানে ধাক্কা মারবে, এটা বৈজ্ঞানিক ভাবে পুরোপুরি অযৌক্তিক।”

ইরানের এই স্বীকারোক্তির পর নতুন করে কোনো অচলাবস্থার সৃষ্টি হয় কি না, সেটাই দেখার।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন