earthquake

ইসলামাবাদ: ভূমিকম্প পূর্বাভাসের বিশ্বাসযোগ্য কোনো মাধ্যম এখনও আবিষ্কার করে উঠতে পারেননি বিজ্ঞানীরা। বছরের পর বছর সে চেষ্টা চললেও এখনও সফল হয়ে ওঠেনি। কিন্তু বিজ্ঞানীরা চাইলে এই ব্যাপারে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের সাহায্য নিতেই পারেন। কারণ তারা এখন থেকে ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দেওয়াও শুরু করেছে। এ হেন পূর্বাভাসকে পাকিস্তান সরকার কিন্তু যথেষ্ট গুরুত্বও দিচ্ছে। সতর্ক করা হয়েছে দেশের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে।

এই মর্মে পাকিস্তানের সরকারের ভূমিকম্প মোকাবিলা দফতর আর্থকোয়েক রিকন্সট্রাকশন অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন অথোরিটিকে (ইআরআরএ) একটি চিঠি দেয় আইএসআই। সেখানে বলা হয়, অদূর ভবিষ্যতে তীব্র ভূমিকম্প হবে ভারত মহাসাগরে। তার তীব্রতা এতটাই বেশি থাকবে যে পাকিস্তান-সহ দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশই এর প্রভাবে কেঁপে উঠবে। আইএসআইয়ের থেকে এই সতর্কবার্তা পাওয়ার পরে পাক সরকারকে চিঠি দিয়ে সব কিছু জানায় ইআরআরএ।  শুক্রবার এই চিঠিটাই লিক হয়ে যায়। এর পরেই হুলুস্থুলু পড়ে যায় পাকিস্তান জুড়ে। সমস্ত দফতরকে চূড়ান্ত সতর্ক থাকতে আবেদন করে ইআরআরএ।

তবে এই খবর চাউর হতেই টুইটার এবং ফেসবুকে আইএসআইকে বিদ্রূপও করেছেন পাকিস্তানের নাগরিকরা।

তবে সাধারণ মানুষ ব্যাপারটাকে গুরুত্ব না দিলেও নড়ে উঠেছে পাক সরকার। দেশের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের ডিরেক্টর জেনারেল গুলাম রসুল বলেন, “এই সতর্কবার্তা পাওয়ার পর আমার দফতর-সহ সরকারের বিভিন্ন দফতর প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে।” তবে এই পূর্বাভাসের যে কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই সে কথাও জানিয়ে দিয়েছেন রসুল।

‘আসন্ন’ এই ভূমিকম্পটিকে মোকাবিলা করার জন্য অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মীদের নিয়ে একটি তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ইআরআরএ। আইএসআইয়ের এই ভূমিকম্পের পূর্বাভাসের সত্যতা স্বীকার করেছেন ইআরআরএ-এর এক আধিকারিক, তবে তিনি একটা ‘রুটিনমাফিক কাজ’ আখ্যা দিয়ে দায় এড়িয়ে গিয়েছেন।

এই ভূমিকম্পের পূর্বাভাস নিয়ে যারা বিদ্রুপ করেছেন, তাদের মধ্যে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে পাকিস্তানের প্রাক্তন দূত হুসেন হাক্কানি। টুইটে তিনি বলেন, “আইএসআই এখন ভূমিকম্পও পূর্বাভাস করছে। এরা যে পাকিস্তানের জিওলজিক্যাল সার্ভে এবং ভূমিকম্প পূর্বাভাস সংস্থা সেটা তো আগে জানতাম না।”

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here