বেইরুট: সিরিয়ার রাজধানীর দক্ষিণে দামাস্কাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং নিকটবর্তী সামরিক ঘাঁটিতে ইজরায়েলি হামলা। শনিবার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, এই হামলায় নিহত হয়েছেন পাঁচ সেনা।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা (SANA), নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সামরিক কর্তার মন্তব্য উদ্ধৃত করে বলেছে, হামলাগুলো হয়েছে শুক্রবার মধ্যরাতের পর। এর ফলে “ক্ষয়ক্ষতি”ও হয়েছে। তবে একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, লক্ষ্যবস্তুতে পৌঁছানোর আগেই কিছু ইজরায়েলি ক্ষেপণাস্ত্রকে গুলি করে ভূপতিত করা হয়েছে।

সিরিয়ায় ব্রিটেন-ভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন জানিয়েছে, এই ঘটনায় পাঁচ সিরিয়ান সেনা এবং ইরান-সমর্থিত গোষ্ঠীর দুই সদস্য নিহত হয়েছেন।

দিন দশেক আগেই ইজরায়েল উত্তরে সিরিয়ার আলেপ্পো বিমানবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায়। তার পরই দামাস্কাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এই হামলা।

উল্লেখযোগ্য ভাবে, এর আগে, গত ১০ জুন দামাস্কাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইজরায়েলি বিমান হামলার ফলে পরিকাঠামো এবং রানওয়ের উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়। যার ফলে মূল রানওয়েটি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। সংস্কার কাজ শেষে দু’সপ্তাহ পর বিমানবন্দরটি চালু হয়।

শেষ কয়েক বছর ধরে সিরিয়ার সরকার-নিয়ন্ত্রিত অংশের অভ্যন্তরে কয়েকশো হামলা চালিয়েছে ইজরায়েল। তবে এ ধরনের হামলায় বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই সরকারি ভাবে দায় অস্বীকার করা হয়েছে।

অন্য দিকে, ইজরায়েল স্বীকার করেছে, তারা ইরান-মিত্র জঙ্গি গোষ্ঠীর ঘাঁটিগুলিকে লক্ষ্য করে। যেমন লেবাননের হিজবুল্লা। এই সংগঠনটি সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আসাদের বাহিনীকে সমর্থন করার জন্য হাজার হাজার যোদ্ধা পাঠিয়েছে বলে দাবি করেছে ইজরায়েল। তবে ইরানের সঙ্গে বৃহত্তর ছায়াযুদ্ধের মধ্যেই ইজরায়েলি হামলার ঘটনাগুলি যথেষ্ট উদ্বেগ অব্যাহত রেখেছে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন