বিয়ের পরে আয়াকো এবং মোরিয়া

টোকিও: একজন সাধারণ নাগরিককে বিয়ে করার জন্য রাজপরিবারের পরিচয় ছেড়ে দিলেন জাপানের রাজকুমারী আয়াকো তাকামোদো। একটি জাহাজ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কেই মোরিয়াকে সোমবার বিয়ে করেছেন আয়াকো।

আয়াকোর বয়স ২৮ বছর আর মোরিয়ার ৩২। আয়াকো জাপানের সম্রাট আকিহিতোর তুতো ভাই তাকামাদোর তৃতীয় কন্যা। আয়াকো এবং মোরিয়া তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানটি রাজকুমারীর প্রপিতামহ সম্রাট মেইজির স্মৃতির উদ্দেশে উৎসর্গ করেছেন।

সাধারণ নাগরিকদের বিয়ে করার পথ খোলা রেখেছে জাপানের রাজপরিবার। সম্রাট আকিহিতোই ছিলেন প্রথম যুবরাজ যিনি একজন সাধারণ নাগরিককে বিয়ে করেছিলেন। সম্রাজ্ঞী মিচিকোর সঙ্গে তাঁর দেখা হয়েছিল টেনিস কোর্টে। কিন্তু মেয়ে হয়ে রাজপরিবারের বাইরে বিয়ে করায় জাপানের আইন অনুযায়ী আয়াকোর রাজকীয় পরিচয় বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে। তিনি রাজপরিবারের পারিতোষিক আর পাবেন না। শুধু জাপান সরকারের পক্ষ থেকে তাঁকে কিছু টাকা দেওয়া হবে।

সংবাদসংস্থা রয়টার্সের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, জাপানের রাজপরিবারে পুরুষের সংকট দেখা দিয়েছে। সিংহাসনের উত্তরাধিকার হিসেবে রয়েছেন হাতে গোনা কয়েকজন মাত্র সদস্য। এঁরা হলেন যুবরাজ নারুহিতো, তাঁর ভাই ফুমিহিতো, তাঁর ভাইপো হিসাহিতো ও মাসাহিতো। আগামী বছর বাবা সম্রাট আকিহিতোর অবসরের পর সিংহাসনে বসবেন তাঁর ছেলে যুবরাজ নারুহিতো।

এই অবস্থায় উত্তরাধিকার রীতির পরিবর্তন প্রত্যাশা করেছেন রাজপরিবারের সদস্যরা। কিন্তু রক্ষণশীল এই রাজপরিবার কোনো রাজকুমারীকে সম্রাটের মুকুট পরতে দিতে রাজি নয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here