Kim Jong Un

খবরঅনলাইন ডেস্ক: তাঁর স্বাস্থ্য নিয়ে জল্পনাটা চলছে গত এপ্রিল থেকেই। সেই জল্পনায় নতুন মাত্রা যোগ করলেন দক্ষিণ কোরিয়ার এক প্রাক্তন সরকারি আধিকারিক।

তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে উত্তর কোরিয়ার সর্বেসর্বা কিম জ‌ং উন (Kim Jong Un) এখন গভীর কোমা আচ্ছন্ন। তাঁর পরিবর্তে দায়িত্ব সামলাচ্ছেন কিমের বোন কিম ইয়ো জং (Kim Yo Jong)।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট কিম ডে জুং-এর সহযোগী চ্যাং সং মিন সম্প্রতি সে দেশের সংবাদমাধ্যমে এই দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘আমার কাছে খবর কিম জং উন কোমায় রয়েছেন। কিন্তু তাঁর জীবন শেষ হয়নি।’’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘ক্ষমতার সম্পূর্ণ হাতবদল হয়নি। কিন্তু তাঁর অসুস্থতার জেরে যে শূণ্যতা তৈরি হয়েছে তা পূরণে সামনে আনা হয়েছে কিম ইয়ো জংকে।’’

গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার ন্যাশনাল ইনটেলিজেন্স সার্ভিসের প্রতিনিধিরা একটি রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেছিলেন। সেই বৈঠকের পর এই সংস্থার তরফে জানানো হয়, ‘‘কিম ইয়ো জং, ওয়ার্কার্স পার্টির সেন্ট্রাল কমিটির ভাইস ডিপার্টমেন্ট ডিরেক্টর হিসাবে রাষ্ট্র সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় পরিচালনা করছেন। যদিও ‘সর্বোচ্চ ক্ষমতা’ এখনও তাঁর দাদার হাতেই রয়েছে।’’

নিজের ‘চাপ কমাতেই’ নাকি বোনের হাতে কিছু ক্ষমতা তুলে দিচ্ছেন কিম। জানানো হয়েছিল দক্ষিণ কোরিয়ার সেই রিপোর্টে।

গত কয়েক মাস ধরেই জনসমক্ষে অনুপস্থিতি কিমকে নিয়ে জল্পনা বাড়িয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে। তাঁর শারীরিক অবস্থা ও মৃত্যু নিয়ে গত ক’মাসে বিভিন্ন খবর ছড়িয়েছে। এপ্রিলে ছড়িয়েছিল, হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচারের সফল না হওয়ায় গুরুতর অসুস্থ পিয়ংইয়ংয়ের শাসক।

তাঁর মৃত্যুর একটি ‘ফেক’ ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় জোরদার হয়েছিল জল্পনা। কিম জং উনের প্রয়াত দাদু ও উত্তর কোরিয়ার প্রাক্তন শাসক কিম টু সাং-এর জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠানে কিমের অনুপস্থিতি এই জল্পনার পারদ আরও চড়িয়েছিল। যদিও কিমের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উত্তর করিয়ার তরফে এখনও খোলসা করে কিছু বলা হয়নি।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

আজ কলকাতার জন্মদিন নয়, জোব চার্নক জনকও নন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন