biryani University

ওয়েবডেস্ক: এক দিকে ভারত যখন বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে বিরিয়ানি রাঁধা নিয়ে আর্থিক জরিমানা করল ছাত্রদের, অন্য দিকে ঠিক সেই বছরেই পাকিস্তানে জন্ম নিল বিশ্বের প্রথম বিরিয়ানি বিশ্ববিদ্যালয়!

সমাপতন না সেই পুরোনো মতে পরস্পরের ঠিক উলটো কাজটা করা?

সেই কূটকচালির দিকটা বাদ দিয়েও বলা যায়, বিশ্বের দরবারে এ এক বড়োসড়ো নজির! জাতীয় খাদ্য নিয়ে স্কুলও নয়, একটা আস্ত বিশ্ববিদ্যালয় খুলে ফেলার উদাহরণ খুব কমই দেখতে পাওয়া যায়।

উঁহু! বিশ্বাস করতে অসুবিধা হলেও ব্যাপারটাকে রসিকতা ভাববেন না। পাকিস্তানে ২০১৭ সালে সত্যিই খুলেছে বিরিয়ানি বিশ্ববিদ্যালয়। স্বাদে আর গন্ধে যে পদ তামাম দুনিয়া মাতিয়ে রেখেছে, তার উৎকর্ষের উৎস সন্ধানেই নিবেদিতপ্রাণ এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা। মূলত বিরিয়ানি-প্রেমী অধ্যাপক ইয়াসির পুরির পরিচালনায় গড়ে উঠেছে এই বিশ্ববিদ্যালয়।

“মূলত তিন ভাগে এখানে বিরিয়ানি নিয়ে চর্চা হয়। যার প্রথমটা অবশ্যই রন্ধন কৌশল সংক্রান্ত। সুপ্রাচীন যুগের বিরিয়ানি রাঁধার কায়দা থেকে আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে রাঁধা – এই বিস্তৃত সময়সীমার অসংখ্য রন্ধন কৌশল নিয়ে কাজ করছি আমরা। শিখছি এবং শেখাচ্ছি তা সবাইকে”, জানিয়েছেন অধ্যাপক ইয়াসির।

দুই নম্বর ধাপ খুব স্বাভাবিক ভাবেই বিরিয়ানির উপাদান সংক্রান্ত। “কী কী ব্যবহার করা উচিত বিরিয়ানি রান্নায়, তা এক একটি পদ্ধতি অনুযায়ী আমরা বিশ্লেষণ করে দেখছি। কেন না, উপাদানের হেরফেরে বিরিয়ানির রং, রূপ, স্বাদ, গন্ধ – সব কিছুই বদলে যায়। সেই অনুযায়ী এক এক রকমের বিরিয়ানি এক একটি অঞ্চলের নামে পরিচিতি পায়”, ব্যাখ্যা করে বুঝিয়েছেন ব্যাপারটা অধ্যাপক।

তিন নম্বর ধাপটিই বোধহয় সবার সব চেয়ে ভালো লাগবে। সেটা হল বিরিয়ানি অ্যাপ্রিসিয়েশন কোর্স। “পাতে পড়ল আর গোগ্রাসে শেষ করে দিলাম – এ রকম ভাবে কোনো খাবারেরই আসল স্বাদ পাওয়া যায় না। বিরিয়ানির মতো সূক্ষ্ম পদের তো নয়ই! তাই এই কোর্সে আমরা কী ভাবে বিরিয়ানি উপভোগ করতে হয়, সেটা শেখাই”, দাবি প্রতিষ্ঠাতা ইয়াসিরের।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ঘাঁটলে সে কথা সম্যক বোঝাও যাচ্ছে। স্পষ্ট চোখে পড়ছে, কী ভাবে এক একটি অঞ্চলের বিরিয়ানিকে নম্বর দিয়ে তার উৎকর্ষ বিচার করা হচ্ছে। দেখা যাচ্ছে, আপাতত ৪টি কোর্স নিয়েই কেমন মেতে উঠেছে বিরিয়ানি বিশ্ববিদ্যালয়। “আপাতত মাত্র চারটি কোর্স দিয়ে পঠনপাঠন শুরু হলেও এ বছরের মধ্যেই আমরা ১৩টি কোর্স প্রচলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি”, জানিয়েছেন অধ্যাপক পুরি।

তবে, বিশ্ববিদ্যালয়টা পাকিস্তানে, অতএব সেখানে ভারতীয়রা ইচ্ছে থাকলেও যোগ দিতে পারবেন না, এ ভেবে মন খারাপ করার প্রয়োজন নেই। অনলাইনেও কোর্স করাচ্ছে বিরিয়ানি ইউনিভার্সিটি। ক্লিক করে দেখুন না কোনোটা আপনাকে স্যুট করে কি না!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here