প্যারিস: এক ব্যক্তি এক সেনার বন্দুক কেড়ে নেওয়ার পর গুলি করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সকালে প্যারিসের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর ওরলিতে। ঘটনার পর বিমানবন্দর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যাত্রীদের বিমানবন্দরে নামতে নিষেধ করে দেওয়া হয়েছে।

প্যারিসের দক্ষিণে ১৩ কিলোমিটার দূরে ওরলি বিমানবন্দর। বিমানবন্দর সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে এক দল সেনা যখন সেখানকার সাদার্ন টার্মিনালে টহল দিচ্ছিল, তখন এক ব্যক্তি এক সেনার অস্ত্র কেড়ে কাছাকাছি একটি দোকানে ঢুকে পড়ে। নিরাপত্তা বাহিনীর লোকরা ওই দোকানে হানা দিয়ে তার কাছ থেকে ওই অস্ত্র কেড়ে নেয় এবং তাকে গুলি করে হত্যা করে। গোটা এলাকাটি ঘিরে ফেলা হয়। ওই ব্যক্তির আরও কোনো সহযোগী আছে কিনা তা খুঁজে দেখতে জোরদার তল্লাশি অভিযান শুরু হয়। ওই ব্যক্তি যে আত্মঘাতী বোমারু নয়, সে ব্যাপারেও পুলিশকে নিশ্চিত হতে হয়।   

নিরাপত্তা বেষ্টনী থেকে দূরে থাকার জন্য পুলিশ সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছে। ওরলি থেকে বিমান ওঠা-নামা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যে সব যাত্রীর ওরলি থেকে বিমান ধরার কথা তাঁদের বিকল্প ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পুরো বিমানবন্দর খালি করে দেওয়া হয়েছে।  

এ দিকে প্যারিসের উত্তর শহরতলিতে যানবাহন পরীক্ষা করার সময় এক পুলিশ অফিসার গুলিতে আহত হন। আক্রমণকারী গুলি চালিয়ে একটি গাড়ি করে পালিয়ে যায়। এই ঘটনার সঙ্গে ওরলি বিমানবন্দরের ঘটনার কোনো যোগ আছে কিনা পুলিশ তা খতিয়ে দেখছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন