ওয়েবডেস্ক: চলতি বছরের অক্টোবরের ১৬ তারিখ! ওটা এক দিকে যেমন নিক জোনাসের জন্মদিন, ঠিক তেমনই তাঁর সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিয়ের নির্ধারিত দিনও! অন্য অনেকের মতো তাই সাসেক্সের ডাচেসও প্রহর গুনছিলেন দিনটা কবে আসবে!

https://www.instagram.com/p/Bi9JNoLBS6J/?utm_source=ig_web_copy_link

হাজার হোক, সৌজন্য বলে একটা জিনিস আছে তো! প্রিয়াঙ্কা যেমন সেজেগুজে এসে তাঁর বিয়েতে হাজিরা দিয়ে গিয়েছেন, এ বার তো সেটা ডাচেসেরও ফিরিয়ে দেওয়ার পালা! না হলে সবাই ভাবতে পারেন- রাজপরিবারে বিয়ে হয়ে একটু বেশিই অহঙ্কার হয়েছে হলিউডের নায়িকা মেগান মার্কলের!

আরও পড়ুন: সামনের বছরেই মা হচ্ছেন মেগান, তার আগে নিজের মৃত্যুকামনা ডাচেসের বাবার!

তা ছাড়া, সৌজন্যের কথাটা এক ধারে ঠেলেও রাখা যায়! মেগান তো ডাচেস হয়ে ওঠার কত আগে থেকে প্রিয়াঙ্কার প্রিয় বন্ধু! আর প্রিয় বন্ধু হলে যা হয় আর কী! একজনের বিয়েতে অন্যে ব্রাইডসমেড বা মেড অব অনর হবে না, তাও কী হতে পারে! প্রিয়াঙ্কা তো কেমন সেজেগুজে সে কর্তব্যও পালন করেছেন! ডাচেসও তাই তৈরি হচ্ছিলেন বন্ধুর বিয়েতে ব্রাইডসমেড হবেন বলে, বিয়ে শেষে নবদম্পতির শুভেচ্ছায় শ্যাম্পেনে চুমুক দেবেন বলে!

কিন্তু বাদ সাধছে রাজপরিবারের নিয়মকানুন! এটা ঠিক, ইউনাইটেড কিংডমের রাজপরিবারের কেউ বন্ধুর বিয়েতে ব্রাইডসমেড হতে পারবেন না, তেমনটা কোথাও স্পষ্ট করে লেখা নেই! কিন্তু পাশাপাশি রয়েছে মর্যাদাসূচক আইন- রাজপরিবারের কেউ সাধারণ মানুষের পিছনে হাঁটতে বা দাঁড়াতে পারবেন না! এ দিকে ব্রাইডসমেড হলে ডাচেসকে বিয়ের রীতি মেনে থাকতে হবে প্রিয়াঙ্কার পিছনেই! পাশাপাশি রয়েছে এক তাত্ত্বিক দিক- প্রাচীন রীতি অনুযায়ী ব্রাইডসমেড কথার মানে নববধূর ঝি!

https://www.instagram.com/p/BjjFjLvDi_Z/?utm_source=ig_web_copy_link

ফলে, আপাতত সাসেক্সের ডাচেসের মুখে হাসি প্রায় নেই বললেই চলে! রাজপরিবার তো তাঁর ইচ্ছা মেনে নেবে না, এ দিকে মন ভাঙবে বন্ধুরও! মনে তাই কেবল চিন্তা, প্রিয়াঙ্কা কি ব্যাপারটা বুঝে তাঁর অপারগতাকে উপেক্ষা করবেন না?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন