Connect with us

বিদেশ

করোনার চাপে পুরুষরা ঝুঁকছেন চকোলেটে, মহিলারা পর্ন ছবিতে: গবেষণা

করোনাভাইরাসের চাপ আচরণগত পরিবর্তন ঘটিয়ে দেওয়ায় বিপণনকারীদেরও দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হতে পারে!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: মানসিক চাপে পড়ে পুরুষরা না কি পর্ন ছবির প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন, অন্য দিকে মহিলারা আরও বেশি করে ঝুঁকে পড়েন চকোলেটের দিকে। এটা শুধুমাত্র একটা গতে বাঁধা অনুমান নয়, এটি বৈজ্ঞানিক সত্য। এমনটাই বলছে একটি ইজরায়েলি গবেষণা।

কিন্তু আশ্চর্যজনক ভাবে, করোনাভাইরাস সংক্রান্ত চাপে পড়ে পুরুষরা ফিরছেন চকোলেটে। অন্য দিকে, মহিলারা পর্ন ছবি এবং অ্যালকোহলের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন। একই সঙ্গে পুরনো পছন্দগুলিও সমানে বজায় থাকছে। নেজেভের বেন-গুরিয়ন বিশ্ববিদ্যালয় (বিজিইউ) এবং ইয়েশিভা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের প্রকাশের জন্য জমা দেওয়া একটি গবেষণাপত্র এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

Loading videos...

করোনা মহামারির সময়কালে অভ্যাসগত পরিবর্তন যাচাইয়ে গবেষকরা বেছে নেন ১১৫ জন ব্রিটিশ নাগরিককে। যাঁদের মধ্যে ছিলেন ৪৬ জন পুরুষ এবং ৬৯ জন মহিলা।

গিলফোর্ড গ্লেজার ফ্যাকাল্টি অব বিজনেস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টে বিজিইউ মার্কেটিং ল্যাব-এর প্রধান ডা. এনভ ফ্রেডম্যান বলেছেন, “অসংখ্য গবেষণায় দেখা যায় যে চরম চাপের সময়ে পুরুষরা সাধারণত বেশি পরিমাণে অ্যালকোহল পান করেন এবং পর্নগ্রাফি দেখেন। এ ধরনের পরিস্থিতিতে মহিলারা মিষ্টির দিকে ঝুঁকে থাকেন”।

তাঁর কথায়, “কোভিড-১৯ মহামারি সেই প্রচলিত ধারণার উল্টো ছবি তুলে ধরেছে। অর্থাৎ, করোনাকালে চরম চাপে থাকার দরুন মানুষের আচরণগত পরিবর্তনের সেই প্রচলিত ধারণায় পরিবর্তন ধরা পড়েছে”।

ফ্রেডম্যান বিশ্বাস করেন, মহামারির ক্রমবর্ধমান চাপের কারণে পুরুষ ও মহিলা উভয়ের ক্ষেত্রেই আবেগ নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা হ্রাস পেয়েছে।

একই সঙ্গে ফ্রেডম্যান জানান, বিপণনকারীরা ধরে নেন, পুরুষ এবং মহিলাদের চাহিদা ভিন্ন। যে কারণে তাঁরা নিজের পণ্যের বিপণনে লিঙ্গ বিভাজনকেও সূক্ষ্ম ভাবে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন।

এই বিষয়টিকে সামনে রেখে তিনি বিপণনকারীদের জন্যও দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। কোনো পণ্যের বিপণনে মূল ক্রেতাকে সামনে রেখেই যাবতীয় পরিকল্পনা নেওয়া হয়। স্বাভাবিক ভাবেই পর্ন বা অ্যালকোহলের ব্যবহার পুরুষরা বেশি করার কারণে সেগুলির বিপণনেও নির্দিষ্ট একটি পন্থা নেওয়া হয়। আবার চকোলেট জাতীয় পণ্যের কদর মহিলা মহলে বেশি থাকায়, সেগুলির বিপণনেও মহিলাদের বেশি করে গুরুত্ব দেওয়া হয়।

কিন্তু করোনাভাইরাসের চাপ এই আচরণগত পরিবর্তন ঘটিয়ে দেওয়ায় বিপণনকারীদেরও দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হতে পারে বলে জানান ফ্রেডম্যান।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

Caribbean Volcano: ক্যারিবিয়ানে জেগে উঠেছে আগ্নেয়গিরি, ভারতের বায়ুমণ্ডলে পৌঁছে গিয়েছে বিষাক্ত সালফার ডাইঅক্সাইড

মানবশরীরে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে।

Published

on

উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে কী ভাবে ক্যারিবিয়ান থেকে ভারতের দিকে এসে গিয়েছে সালফার ডাইঅক্সাইড। ছবি: সেন্টিনেল ৫ উপগ্রহ।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুদূর ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের ভয়াবহ আগ্নেয়গিরি। সেখান থেকে নির্গত বিষাক্ত গ্যাস ভারতের বায়ুমণ্ডলেও পৌঁছে গিয়েছে। উপগ্রহ চিত্র বিশ্লেষণ করে এমনই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এর পরিণাম ভয়াবহ হতে পারে বলে ইতিমধ্যেই সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

৯ এপ্রিল শুরু হয় অগ্ন্যুৎপাত

গত ৯ এপ্রিল আচমকা জেগে ওঠে এই ঘুমন্ত দৈত্য। ৪২ বছর ধরে ঘুমিয়ে ছিল সে। কিন্তু গত সপ্তাহের শুক্রবার সে জেগে ওঠে। ক্যারিবিয়ান সাগরের সেন্ট ভিনসেন্ট দ্বীপে অবস্থিত লা সুফ্রিয়া পর্বত। জেগে উঠেই প্রলয় শুরু করে সে। আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত এতটাই প্রবল যে বাতাসে ৬ কিমি অবধি উঁচুতে কালো ছাইয়ে ঢেকে যায়। এমনকি আশেপাশের ২০ কিমি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে সেই ছাই।

Loading videos...

অগ্ন্যুৎপাতের ফলে উড়ন্ত গরম ছাই বাড়ি ঘর ও ফসলের ওপরে পড়েছে। এর ফলে মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে ফসলের। আশেপাশের অঞ্চলের প্রায় ১৬ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদে সরানো হলেও প্রচুর প্রাণী মারা গিয়েছে। ফসলের ক্ষতি অপরিসীম।

আগ্নেয়গিরির অঞ্চলে উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে, সেন্ট ভিনসেন্টের প্রায় ১০ শতাংশ মানুষ এই এলাকায় বাস করে। কিন্তু বিপুল পরিমাণে ছাই রাস্তাঘাট, ট্রেনলাইনে পড়ে থাকার দরুণ উদ্ধারকাজে মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। তবে আশার কথা একটাই যে এখনও পর্যন্ত মানুষ মারা যায়নি।

জ্বলছে আগ্নেয়গিরি।

ভারতে পৌঁছে গেল বিষাক্ত সালফার ডাইঅক্সাইড

এই আগ্নেয়গিরি থেকে এখন অন্য ভয়ের জিনিস দেখতে পাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। অতলান্তিক মহাসাগর, আফ্রিকা মহাদেশ পেরিয়ে এই আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত বিষাক্ত সালফার ডাইঅক্সাইড এখন ভারতের বায়ুমণ্ডলে এসে গিয়েছে। সেন্টিনেল ৫ উপগ্রহ চিত্রে এই ছবি ধরা পড়েছে।

উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের উত্তর প্রান্ত থেকে উত্তরপশ্চিম ভারত পর্যন্ত সালফার ডাইঅক্সাইডের জমাট বাঁধা একটি সমান্তরাল রেখা তৈরি হয়ে গিয়েছে। ওই রেখা বরাবরই এগিয়ে আসছে এই বিষাক্ত গ্যাসটি। দেখে মনে হচ্ছে এর প্রভাব উত্তর ভারতে পড়তে পারে। তার পর সেটি চিনের দিকে এগিয়ে যেতে পারে। পূর্ব ভারতে এর প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা নেই বলেই মনে হচ্ছে।

শরীরে কুপ্রভাব ফেলতে পারে

মানুষের শরীরে খুব খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে সালফার ডাইঅক্সাইড। বিশেষত হাঁপানি, ব্রঙ্কাইটিস, হার্ট এবং ফুসফুসের রোগীদের সমস্যা আরও গুরুতর হতে পারে। এই গ্যাসটি মানুষের শরীরে গেলে মানুষের মৃত্যু পর্যন্তও হতে পারে। সাধারণত সালফার ডাইঅক্সাইড শরীরে যাওয়ার প্রভাব বোঝা যায় ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে।

ফলে পরিস্থিতি যে খুব একটা ভালো নয়, সেটা বোঝাই যাচ্ছে। উত্তর ভারতের বাসিন্দাদের সতর্ক থাকা ছাড়া আপাতত আর কোনো রাস্তা নেই।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Indianapolis Shooting: বন্দুকবাজের হামলায় হত ৮, নিহতদের মধ্যে চার জনই শিখ সম্প্রদায়ের

Continue Reading

বিদেশ

Indianapolis Shooting: বন্দুকবাজের হামলায় হত ৮, নিহতদের মধ্যে চার জনই শিখ সম্প্রদায়ের

১৯ বছরের বন্দুকবাজ নিজেও আত্মঘাতী হয়েছে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ফের বন্দুকবাজের হামলা আমেরিকায়। স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে এই হামলায় ৮ জনের মৃত্যু হল আমেরিকার ইন্ডিয়ানাপোলিসে। জখম হয়েছেন বহু। নিহতদের মধ্যে ৪ জন শিখ সম্প্রদায়ের বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, ইন্ডিয়ানাপোলিসের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে আমেরিকার বহুজাতিক পরিষেবা সংস্থা ফেডএক্সের গুদামেই এই হামলার ঘটনা ঘটে। এলোপাথাড়ি গুলি চালানোর পর বন্দুকবাজ নিজেও আত্মঘাতী হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে জানিয়েছে। ১৯ বছর বয়সি ওই বন্দুকবাজের নাম ব্রান্ডন স্কট হোল।

Loading videos...

হামলার ফলে ঘটনাস্থলেই মোট ৮ জনের মৃত্যু হয়। বহু মানুষ আহত। তাঁদের নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে আহতের সঠিক সংখ্যা এখনও নির্দিষ্ট করে জানায়নি পুলিশ। বন্দুকবাজের পরিচয় এবং কেন তিনি হামলা চালালেন, তা এখনও জানতে পারেনি পুলিশ।

নিহতদের মধ্যে শিখ সম্প্রদায়ের যাঁরা ছিলেন, তাঁদের নাম ও পরিচয় জানা গিয়েছে। এঁদের মধ্যে তিন জন মহিলা এবং একজন পুরুষ। সম্প্রদায়ের এক নেতা গুরিন্দর সিংহ খালসা সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন, “পুরো শিখ সম্প্রদায় এই ঘটনায় ভেঙে পড়েছে। আমরা সবাই মর্মাহত।”

বন্দুকবাজের হামলা আমেরিকার অন্যতম সমস্যায় পরিণত হয়েছে বিগত কয়েক বছরে। মাঝে মধ্যেই এ রকম নানা হামলার খবর শোনা যায়। গত মাসেই ক্যালিফোর্নিয়ায় বন্দুকবাজের হামলায় এক শিশু-সহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সেই ঘটনার কয়েক দিন আগেই কলোরাডোর একটি দোকানে এলোপাথাড়ি গুলিতে প্রাণ হারিয়েছিলেন ১০ জন।

ইন্ডিয়ানাপোলিসের এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

খবরঅনলাইনে আরও পরতে পারেন

Coronavirus Second Wave: কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন রাজ্যের আরও এক প্রার্থী

Continue Reading

বিদেশ

অ্যাস্ট্রাজেনেকা কোভিড ভ্যাকসিনের ব্যবহার স্থায়ী ভাবে বন্ধ করল ডেনমার্ক

কী এমন ঘটল, যে পাকাপাকি ভাবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ব্যবহার বন্ধ করে দিল ডেনমার্ক?

Published

on

AstraZeneca-twiter

খবর অনলাইন ডেস্ক: বিরল তবে মারাত্মক পার্শপ্রতিক্রিয়ার কারণে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের ব্যবহার সম্পূর্ণ ভাবে বন্ধ করে দিয়েছে ডেনমার্ক। ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং ইউরোপীয় ওষুধ নজরদারি সংস্থা এই ভ্যাকসিন ব্যবহার অব্যাহত রাখার পরামর্শ দিয়েছে। তা সত্ত্বেও ডেনমার্কের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, “দেশের টিকাকরণ কর্মসূচি অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন ছাড়াই এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে”।

Loading videos...

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেওয়ার পরে রক্ত জমাট বাঁধার বিরল কিন্তু গুরুতর কিছু ঘটনার কথা শোনা যায় বেশ কিছু দেশে। যার জেরে কোনো কোনো দেশ এই টিকার ব্যবহার সাময়িক ভাবে স্থগিত করে। তবে পাকাপাকি ভাবে ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ব্যবহার বন্ধের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল ডেনমার্ক।

জানা গিয়েছে, এক ডজনেরও বেশি দেশে সন্দেহজনক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার তথ্য উঠে আসে। ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সি এটিকে “নিরাপদ এবং কার্যকর” বলে গণ্য করার পরে কয়েকটি দেশ ফের ব্যবহার শুরু করেছে। তবে ডেনমার্ক অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরে পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অ্যাংলো-সুইডিশ ওষুধ প্রস্তুতকারকের তৈরি এই ভ্যাকসিন নিয়েছেন ডেনমার্কের ১ লক্ষ ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। তাঁদের মধ্যে দু’জনের ক্ষেত্রে টিকা নেওয়ার পরে রক্ত জমাট বাঁধার প্রমাণ মিলেছে। যা এই টিকার সঙ্গেই সম্পর্কযুক্ত বলে দাবি করা হয়েছে।

ডেনমার্কের সরকারি তথ্য অনুযায়ী, দেশের ৫৮ লক্ষ বাসিন্দার মধ্যে আট শতাংশ ইতিমধ্যে টিকার দু’টি ডোজ নিয়েছেন। অন্য দিকে একটি করে ডোজ নিয়েছে ১৭ শতাংশ। অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দেওয়ার পর ডেনমার্ক ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা ব্যবহার চালিয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন: এ বার ঘরে ঘরে কোভিড টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি, ৪৫ বছরের কম বয়সিরাও ভ্যাকসিন পেতে পারেন

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
Randeep Guleria
দেশ31 mins ago

কেন লাগামহীন করোনা? মূলত ২টি কারণকেই দায়ী করলেন এইমস ডিরেক্টর

election commission of india
রাজ্য1 hour ago

Bengal Polls 2021: প্রার্থীর মৃত্যুতে জঙ্গিপুর আসনে ভোট স্থগিত রাখল নির্বাচন কমিশন

ধর্মকর্ম1 hour ago

অন্নপূর্ণাপুজো: ব্যারাকপুর অন্নপূর্ণা মন্দিরে এ বার শারীরিক দূরত্ববিধি মেনেই পুজো

Lalu Prasad Yadav
দেশ2 hours ago

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় জামিন পেলেন লালুপ্রসাদ যাদব

Sonu Sood
বিনোদন2 hours ago

ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নেওয়ার পর কোভিড আক্রান্ত অভিনেতা সোনু সুদ

রাজ্য2 hours ago

Bengal Polls 2021: শীতলকুচির পর এ বার দেগঙ্গা, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ

দেশ3 hours ago

ট্রেন হোক বা স্টেশন, মাস্ক না পরলে বড়োসড়ো জরিমানা ঘোষণা রেলের

রাজ্য3 hours ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শীতলকুচি অডিয়ো ক্লিপ-কাণ্ডে নয়া মোড়, নির্বাচন কমিশনে বিজেপি

রাজ্য5 hours ago

Bengal Polls Live: ৪টে পর্যন্ত ভোট পড়ল প্রায় ৭০ শতাংশ

রাজ্য2 days ago

স্বাগত ১৪২৮, জীর্ণ, পুরাতন সব ভেসে যাক, শুভ হোক নববর্ষ

পয়লা বৈশাখ
কলকাতা2 days ago

মাস্ক থাকলেও কালীঘাট-দক্ষিণেশ্বরে শারীরিক দুরত্ব চুলোয়, গা ঘেষাঘেঁষি করে হল ভক্ত সমাগম

ক্রিকেট3 days ago

IPL 2021: আরসিবির হয়ে জ্বলে উঠলেন বাংলার শাহবাজ, তীরে এসে তরী ডোবাল হায়দরাবাদ

কোচবিহার2 days ago

Bengal Polls 2021: শীতলকুচির গুলিচালনার ভিডিও প্রকাশ্যে, সত্য সামনে এল, দাবি তৃণমূলের

গাড়ি ও বাইক2 days ago

Bajaj Chetak electric scooter: শুরু হওয়ার ৪৮ ঘণ্টা পরেই বুকিং বন্ধ! কেন?

দেশ3 days ago

ফের লকডাউনের আশঙ্কায় ভীত-সন্ত্রস্ত অভিবাসী শ্রমিকরা, কন্ট্রোল রুমে ফোনের পর ফোন ঝাড়খণ্ডে

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: ভয়াবহ কোভিড সংক্রমণের মধ্যে কী ভাবে ভোট, শুক্রবার জরুরি সর্বদল বৈঠক ডাকল কমিশন

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে