ইউকান্টান পেনিনসুলা (কোস্তা রিকা) :  চড়ুই পাখি আর বড়ো একটা দেখা যায় না বাংলায়। এক সময়ে বিজ্ঞানীরা হৈচৈ করেছিলেন বটে। বলেছিলেন, মোবাইল ফোনের টাওয়ার থেকে উৎসারিত তরঙ্গে ওদের ক্ষতি হচ্ছে। এ সবের মাঝে পেরিয়ে গিয়েছে বেশ কিছু বছর। বেড়েছে মোবাইল টাওয়ার আর কমেছে চড়ুই। আমরা না পারলেও কোস্তা রিকা পেরেছে। সেখানে সম্প্রতি মৌমাছিদের বাঁচাতে আইন করে বন্ধ করা হল জেনেটিকালি মডিফায়েড (জিএম) সয়াবিনের চাষ।

বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম মধু উৎপাদনকারী দেশ কোস্তা রিকায় জিএম সয়াবিন প্রস্তুত করে মনসানতো নামে একটি সংস্থা। এই সংস্থার বিরুদ্ধেই মামলা জিতলেন  ইউকান্টান পেনিনসুলা অঞ্চলের মৌমাছি চাষিরা। শুরুতে জিএম সয়াবিনের চাষের অনুমতি পেয়েছিল মনসানতো। সাধারণ মানুষের গণ বিক্ষোভ, পরিবেশবিদদের প্রতিবাদ সত্ত্বেও কোনো ফল হয়নি।  অথচ একাধিক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, মৌমাছিদের ওপর ভয়ংকর রকম প্রভাব ফেলতে পারে জেনেটিকালি মডিফায়েড শস্যের চাষ। শেষমেশ বিচারকরা পালটে ফেলেন রায়। রায়ে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, একই পরিবেশে মৌমাছি  এবং জিএম সয়াবিনের সহাবস্থান সম্ভব নয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here