Connect with us

বিদেশ

মডার্নার দাবি তাদের টিকা করোনা ঠেকাতে ৯৪.৫ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর

শীঘ্রই তারা মার্কিন সরকারের কাছে এটি জরুরী চিকিৎসার জন্য ব্যবহারের অনুমতি দেওয়ার আবেদন জানাবে।

Published

on

মডার্না
প্রতীকি ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সুখবর শোনালো মার্কিন বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি মডার্না ইনকপোর্রেশন। সংস্থার দাবি তাদের তৈরি টিকা কোভিড ১৯ ঠেকাতে ৯৪.৫ শতাংশ কার্যকর।

দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, তৃতীয় পর্যায়ের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে পাওয়া তথ্যে উপর দাঁড়িয়ে এই দাবি মডার্নার।

সংস্থাটি জানিয়েছে, শীঘ্রই তারা মার্কিন সরকারের কাছে এটি জরুরী চিকিৎসার জন্য ব্যবহারের অনুমতি দেওয়ার আবেদন জানাবে।

Loading videos...

মার্ডান হল দ্বিতীয় সংস্থা যারা গত দাবি করল তাদের টিকা করোনা ঠেকাতে ৯০ শতাংশ কার্যকর। এর আগে ফাইজার জানিয়েছে, তাদের তৈরি টিকা ৯০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর।

এই খবরের প্রতিক্রিয়া

লন্ডন স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও হাইজিনের অধ্যাপক স্টিফান ইভান্স জানিয়েছেন,‘‘ মডার্নার এই ঘোষণাটি যথেষ্ট উৎসাহজনক, এটি শুধু গ্রহণযোগ্যভাবে কার্যকরী নয় আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে বেশি কার্যকরী। অন্যগুলির থেকে এই প্রেস রিলিজটি অনেক সুনির্দিষ্ট।’’

ইম্পিরিয়াল কলেজ লন্ডন-এর এক্সপেরিমেন্টাল মেডিসিনের অধ্যাপক, পিটার ওপেনশাহ জানিয়েছেন, মডার্নার এই খবরটি অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ এবং আশাব্যাঞ্জক, যে আগামী কয়েকমাসের মধ্যে আমাদের কাছে ভালো ভ্যাকসিনের একটি বিকল্প থাকবে।’’

মডার্নার আশা, তাদের তৈরি টিকা ফিজের মধ্যে ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ৩০ দিন পর্যন্ত থাকবে।

তারা আরও জানিয়েছে মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় এই টিকাকে ৬ মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যাবে।

এর আগে ফাইজার জানিয়েছিল, তাদের তৈরি টিকা মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পরিবহন এবং সংরক্ষণ করা যাবে।

কয়েকদিন আগেই পুনে-ভিত্তিক ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (SII)-র কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছিলেন, বিশ্বের বৃহত্তম কোভিড-১৯ প্রস্তুতকারী অ্যাস্ট্রাজেনেকার (AstraZeneca) ১০ কোটি ডোজ আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই হাতে পেতে পারে ভারত!

ভ্যাকসিনটির তৃতীয় তথা শেষ পর্যায়ের পরীক্ষা চলছে। কার্যকারীতার দিক থেকে ইতিবাচক ফল মিলিছে।

বিদেশ

ধর্ষকদের রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদ করার আইনে সম্মতি পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের

পাকিস্তানে লাগাতার বাড়তে থাকা ধর্ষণের ঘটনার প্রেক্ষিতে এ বার এই নতুন আইন আনতে চলেছে তারা।

Published

on

Imran Khan

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ফাঁসি দিয়েও কোনো কাজ হয় না। বন্ধ হয় না ধর্ষণ। সে কারণে এ বার ধর্ষকদের রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদ করার আইন আনতে চলেছে পাকিস্তান। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রাথমিক ভাবে সেই খসড়া আইনে নিজের সম্মতি দিয়েছেন।

পাকিস্তানের জিও টিভি সূত্রে এই খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে সরকারি ভাবে এখনও এটা নিয়ে কিছু ঘোষিত হয়নি।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদের পাশাপাশি ধর্ষকদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দেওয়ার দাবি তোলেন ইমরান খানের (Imran Khan) ক্যাবিনেটের অনেকেই। এর পরেই ওই খসড়া আইনে সম্মতি দেন ইমরান। পাক আইনসভার সদস্য ফয়জল জাভেদ খান জানান, শীঘ্রই লিঙ্গচ্ছেদ সংক্রান্ত বিলটি পার্লামেন্টে পেশ করা হবে।

Loading videos...

রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদের পাশাপাশি পুলিশে বেশি সংখ্যক মহিলাদের নিয়োগ, ফাস্ট ট্র‌্যাকিং কোর্টের কথাও বলা হয়েছে ওই খসড়ায়।

ইমরান জানান, তাঁর নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা সরকারের কর্তব্য। এ ব্যাপারে কোনো গাফিলতি তিনি বরদাস্ত করবেন না। আইন দ্রুত পাস হয়ে কড়া ভাবে প্রয়োগ হবে বলে মন্তব্য করেন ইমরান। পাক প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, নির্যাতিতারা নির্ভয়ে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। তাঁর এবং তাঁর পরিবারের সুরক্ষা এবং পরিচয় গোপন রাখার দায়িত্ব সরকারের।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে লাহোরে ধর্ষণ করে খুন করা হয় এক ৭ বছরের শিশুকন্যাকে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে ও ধর্ষকদের জন্য কড়া আইনের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছিল গোটা দেশ। 

এর পর ২০২০ সালে পাকিস্তানে এক যুবতীকে গণধর্ষণের পর নগ্ন করে রাস্তায় হাঁটায় তিন যুবক। পাশবিক এই ঘটনাটি ঘটে রাওয়ালপিন্ডিতে। নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলেও পরে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ।

সে বার প্রতিশ্রুতি দিলেও নয়া কোনো আইন আনেনি পাক সরকার। কিন্তু লাগাতার বাড়তে থাকা ধর্ষণের ঘটনার প্রেক্ষিতে এ বার এই নতুন আইন আনতে চলেছে পাকিস্তান।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

‘কংগ্রেসকে শক্তিশালী করতে আহমেদ পাটেলের ভূমিকা অনস্বীকার্য’, শোক প্রকাশ করলেন নরেন্দ্র মোদী

Continue Reading

বিদেশ

‘যা করতে হয় করুন’, পরাজয় প্রায় স্বীকারই করে ফেললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

নমনীয় হলেন ট্রাম্প। ক্ষমতা হস্তান্তর দলের জন্য বরাদ্দ অর্থ দ্রুত প্রকাশ করার নির্দেশ দিলেন তিনি

Published

on

Donald Trump

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভেবেছিলেন যে করেই হোক গদি আঁকড়ে পড়ে থাকবেন তিনি। কিন্তু যত দিন এগোল বুঝতে পারলেন সেটা সম্ভব নয়। ভোটে কারচুপি হয়েছে, তাঁর এই অভিযোগ বার বার খারিজ করে দিয়েছে সে দেশের নির্বাচন কমিশন। তাঁর সতীর্থদের অনেকেই বলছিলেন এ বার পরাজয় স্বীকার করার সময়ে এসে গিয়েছে তাঁর।

না, সরকারি ভাবে এখনও পরাজয় স্বীকার তিনি করেননি। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump) সোমবার যে মন্তব্যটা করেছে সেটা প্রায় পরাজয় স্বীকার করে নেওয়ারই সমান।

জো বাইডেন (Joe Biden) এবং কমলা হ্যারিসের (Kamala Harris) ক্ষমতা হস্তান্তর দলের জন্য সরকারি বরাদ্দ আটকে দিয়েছিল ট্রাম্প প্রশাসন। আগামী জানুয়ারিতে পদে বসবেন বাইডেন, হ্যারিস। কিন্তু তার আগে ক্ষমতা হস্তান্তর যাতে মসৃণ হয়, সে কারণে একটি বিশেষ দল তৈরি করা হয়। বিদায়ী প্রশাসনই সেই দলের জন্য অর্থ বরাদ্দ করে। কিন্তু ট্রাম্প প্রশাসন সেটা আটকে দিয়েছিল।

Loading videos...

কিন্তু এ বার নমনীয় হলেন ট্রাম্প। ক্ষমতা হস্তান্তর দলের জন্য বরাদ্দ অর্থ দ্রুত প্রকাশ করার নির্দেশ দিলেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, ক্ষমতা হস্তান্তরের দলকে অর্থ বরাদ্দের বিরোধিতা তিনি করছেন না। তাঁর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য, “যেটা করতে হয়, করে ফেলুন।” এর পরেই স্থানীয় পরিষেবা সংক্রান্ত প্রশাসনের প্রধান এমিলি মার্ফি জানিয়ে দেন, ওই দলের জন্য বরাদ্দ অর্থ প্রকাশ করা হচ্ছে।

এই খবরে রীতিমত উচ্ছ্বসিত টিম বাইডেন। বিবৃতি দিয়ে তারা জানিয়েছে, “ক্ষমতা হস্তান্তরের ব্যাপারটা মসৃণ করার জন্য এটা খুবই দরকার ছিল।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, “অতিমারিকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা, অর্থনীতিকে সঠিক পথে নিয়ে আসার মতো যে যে সমস্যা এখন আমাদের দেশে রয়েছে, সেগুলির সমাধানের জন্য এই সিদ্ধান্ত খুব জরুরি ছিল।”

উল্লেখ্য, গত পুরো ভোট গণনা শেষ হওয়ার আগেই গত ৭ নভেম্বর সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেরিয়ে যান জো বাইডেন। কিন্তু কখনই নিজের পরাজয় স্বীকার করেননি ট্রাম্প। অন্যদিকে বার বার তিনি বলেছেন এই ভোটে কারচুপি হয়েছে। এমনকি সুপ্রিম কোর্টে কড়া নাড়ার হুমকিও দিয়েছেন তিনি।

এর পর গণনা যত এগিয়েছে, বাইডেনও ততই এগিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত জো বাইডেন পান ৩০৬টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট। ট্রাম্পের ঝুলিতে আসে ২৩২টি।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

মালদহের মানিকচকে ভেসেল উলটে ৮টি ট্রাক পড়ল গঙ্গায়, বেশ কিছু মানুষ নিখোঁজ

Continue Reading

বিদেশ

যুদ্ধ বাধাতে পারেন ‘দুর্বল’ জো বাইডেন, আশঙ্কা করছে চিন

চিন সরকারকে এমনই পরামর্শ দিলেন সে দেশের কূটনীতিবিদ তথা সরকারি উপদেষ্টা ঝেং ইয়ংনিয়ান

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: জো বাইডেন (Joe Biden) এলেই যে দুই দেশের সম্পর্কের উন্নতি হবে, এই ভ্রম কাটিয়ে ওঠা উচিত। বরং ‘দুর্বল’ বাইডেন দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ বাধিয়ে দিতে পারেন। এমনই আশঙ্কা করছে চিন।

পরাজয় এখনও স্বীকার না করলেও ডোনাল্ড ট্রাম্পের (Donald Trump) বিদায় কার্যত সময়ের অপেক্ষা। গোটা বিশ্ব এখন আমেরিকার ক্ষমতা বদলের দিকে অতি উৎসাহে তাকিয়ে রয়েছে। ঠিক সেই সময়েই চিন সরকারকে এমনই পরামর্শ দিলেন সে দেশের কূটনীতিবিদ তথা সরকারি উপদেষ্টা ঝেং ইয়ংনিয়ান। তাঁর মতে, ডেমোক্র্যাট বাইডেনের জমানায় আমেরিকা ও চিনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

দীর্ঘমেয়াদি কূটনৈতিক কৌশলের রূপরেখা তৈরি করতে অগস্ট মাসে ঝেংকে উপদেষ্টা নিয়োগ করেন চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। আমেরিকার রাজনৈতিক রদবদল এবং দুই দেশের সম্পর্কে তার কী প্রভাব পড়তে পারে, তা নিয়ে গুয়াংঝৌতে সম্প্রতি একটি আলোচনাসভায় যোগ দেন তিনি। সেখানেই বাইডেন সম্পর্কে জিনপিং সরকারকে সতর্ক করে দেন ঝেং।  

Loading videos...

ঝেং বলেন, ‘‘পরিস্থিতি আর আগের মতো নেই। ঠান্ডা যুদ্ধের ঘোর এখনও কাটেনি ওদের। রাতারাতি তা কাটবেও না। আমেরিকার সমাজ দ্বিধাবিভক্ত। বাইডেন কিছু করতে পারবেন বলে মনে হয় না আমার। প্রেসিডেন্ট হিসেবে দুর্বল উনি।” 

ঝেং আরও যোগ করেন, “চিনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে পারেন বাইডেন। অনেকে হয়তো বলবেন, ট্রাম্প গণতন্ত্র এবং বাক স্বাধীনতার বিরোধী। বাইডেন নন। কিন্তু আমার মতে, ট্রাম্প যুদ্ধে আগ্রহী নন। কিন্তু ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট যে কোনো মুহূর্তে যুদ্ধ বাধিয়ে ফেলতে পারেন।’’

করোনাভাইরাস থেকে শুরু করে উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের একাধিক অভিযোগ রয়েছে চিনের বিরুদ্ধে। গত এক বছরে নানা ঘটনার মধ্যে দিয়ে চিন-মার্কিন সম্পর্কে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। অনেকেরই ধারণা ছিল, আমেরিকায় ক্ষমতা বদল হওয়ার ফলে সেই সম্পর্ক হয়তো উন্নতি হতে পারে। কিন্তু তেমনটা মনে করেন না ওই চিনা বিশেষজ্ঞ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ প্রয়াত

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল16 mins ago

ফকল্যান্ড যুদ্ধে হারের প্রতিশোধ নিল ‘ঈশ্বরের হাত’

দেশ36 mins ago

ধর্মঘট আপডেট: জায়গায় জায়গায় পথ ও রেল অবরোধ বাম-কংগ্রেস কর্মীদের, ব্যাহত জনজীবন, বিক্ষিপ্ত অশান্তি

কেনাকাটা41 mins ago

শীতের নতুন কিছু আইটেম, দাম নাগালের মধ্যে

শরীরস্বাস্থ্য1 hour ago

করোনাকালে শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য হু-র স্বাস্থ্য সতর্কতা

winter 2020
রাজ্য1 hour ago

‘নীবর’-এর কারণে পারদ বেড়ে ১৮-তে, শীত ফিরতে পারে রবিবার থেকে

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৪৪৮৯, সুস্থ ৩৬৩৬৭

ফুটবল2 hours ago

দিয়েগো মারাদোনার পূর্ণাবয়াব স্ট্যাচু বসাচ্ছে গোয়া সরকার

দেশ2 hours ago

সক্রিয় রোগী ফের বেড়ে সাড়ে ৪ লক্ষের ঘরে, তবে দৈনিক সংক্রমণ ও সংক্রমণের হার কমছে

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৪৪৮৯, সুস্থ ৩৬৩৬৭

বিনোদন3 days ago

মাদক মামলায় জামিন পেলেন ভারতী সিংহ ও হর্ষ লিম্বাচিয়া

ফুটবল3 days ago

সুসাইরাজকে বাদ দিয়েই ডার্বি জয়ের ছক আবাসের

ফুটবল2 days ago

পিকে-চুণী স্মরণে ডার্বি শুরুর আগে নীরবতা পালন হোক, আইএসএল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাল ইস্টবেঙ্গল

ফুটবল2 days ago

পেনাল্টি কাজে লাগিয়ে প্রথম ম্যাচে ৩ পয়েন্ট ঘরে তুলল হায়দরাবাদ

জীবন যেমন3 days ago

বদরাগী মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক সামলাবেন কী করে ? রইল টিপস

দেশ18 hours ago

সংক্রমণে লাগাম টানতে ১ ডিসেম্বর থেকে নতুন বিধিনিষেধ, নির্দেশিকা জারি কেন্দ্রের

Allahabad High Court
দেশ2 days ago

‘প্রিয়ঙ্কা-সালামাতকে আমরা হিন্দু-মুসলিম হিসেবে দেখি না,” ঐতিহাসিক রায় এলাহাবাদ হাইকোর্টের

কেনাকাটা

কেনাকাটা41 mins ago

শীতের নতুন কিছু আইটেম, দাম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীত এসে গিয়েছে। সোয়েটার জ্যাকেট কেনার দরকার। কিন্তু বাইরে বেরিয়ে কিনতে যাওয়া মানেই বাড়ি এসে এই ঠান্ডায়...

কেনাকাটা1 day ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা5 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা1 week ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

নজরে