modi trump harley davidson

নিউ ইয়র্ক: আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গলায় গলায় বন্ধুত্বের পথে কি এ বার কাঁটা বিছোতে চলেছে মোটরবাইকের শুল্ক-কাঁটা। অন্তত ইঙ্গিত তেমনই। কিছু দিন আগেই হার্লে ডেভিডসন মোটরবাইকের ওপর ভারতের চাপানো আমদানি শুল্কের ব্যাপারে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই রাগ যে এখনও যায়নি ফের সেটা আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলেন ট্রাম্প।

সপ্তাহখানেক আগে ট্রাম্পের ক্ষোভের পর হার্লে ডেভিডসন মোটরবাইকের ওপরে আমদানি শুল্ক কিছুটা কমিয়েছে ভারত। কিন্তু তাতেও যে চিড়ে ভেজেনি সেটা বুঝিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। হোয়াইট হাউসে মার্কিন রাজ্যগুলির গভর্নরদের নিয়ে বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, ভারত আমদানি শুল্ক কমালেও যুক্তরাষ্ট্র কিছুই পাচ্ছে না।

ট্রাম্প এ দিন বলেন, “কিছু দিন আগেই আমাকে ফোন করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী, যাঁকে অত্যন্ত ভালো একজন মানুষ বলে মনে করি। মোদী আমায় বললেন যে তাঁরা মোটরবাইকের ওপর আমদানি শুল্ক কমিয়ে পঞ্চাশ শতাংশ করেছেন। আমি বললাম ঠিক আছে। কিন্তু এর ফলে কী হল! আগেও আমরা কিছু পেতাম না, এখনও কিছু পাচ্ছি না। ওঁরা ৫০ শতাংশ আমদানি করছেন, আর ভাবছেন আমাদের বড়ো সাহায্য করেছেন। এটা কিছুই সাহায্য নয়।”

হার্লে ডেভিডসনের ওপরে ভারতের আমদানি শুল্ক চাপানোর ব্যাপারে পালটা হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন ট্রাম্পও। বলেছিলেন, ভারত যদি আমদানি শুল্ক না কমায় তা হলে যুক্তরাষ্ট্রে আসা ভারতের মোটরবাইকের ওপরেও শুল্ক চাপিয়ে দেবে তাঁর দেশ।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here