মহাশূন্যে শুক্রাণু ছেড়ে গতি পরীক্ষা নাসা-র, চলছে প‌‌ৃথিবীর বাইরে প্রাণবিকাশের পরীক্ষা

0
351
nasa

ওয়েবডেস্ক: পুরুষের শরীর থেকে স্খলিত হওয়ার পর নারীর শরীরের অভ্যন্তরে কিছুটা পথ পাড়ি দেওয়ার ব্যাপার থাকে তাদের। সেই পর্ব মিটিয়ে যদি ডিম্বাণুর সঙ্গে মিলিত হয় শুক্রাণু, তবেই নিষেক ঘটে!

এবং শুক্রাণুর এই গতিবেগকে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে মাধ্যাকর্ষণ শক্তি! এই শক্তিকে পাশ কাটিয়ে পৃথিবীর বুকে কোনো কিছু হওয়ার জো নেই!

বিজ্ঞাপন

ফলে, ক্রমশ ভরে আসা এই পৃথিবীকে এক পাশে সরিয়ে রেখে যখন বিকল্প বাসস্থানের খোঁজ চলছে মহাশূন্যে, তখন পাশাপাশি প্রজননের ব্যাপারটা নিয়েও ভাবিত হল নাসা। পরীক্ষা করে দেখতে চাইল- মহাশূন্যে, মাধ্যাকর্ষণের শক্তি যেখানে নেই, সেখানে কেমন গতিতে চলাফেরা করতে পারে শুক্রাণুরা। পরীক্ষার জন্য মানুষের হিমায়িত শুক্রাণু পাঠানো হল মহাকাশযানে।

অবশ্য, শুধুই মানুষের শুক্রাণু নয়। বলদের শুক্রাণু নিয়েও এই পরীক্ষা সম্পাদন করে দেখেছে নাসা বলে খবর। জানা গিয়েছে, হিমায়িত এই শুক্রাণুকে রাসায়নিকের মাধ্যমে চলমান স্তরে নিয়ে আসা হয়েছে। তার পর তা ছুড়ে দেওয়া হয়েছে মহাকাশযানের অভ্যন্তরে। এবং পরীক্ষাকে সার্থক প্রতিপন্ন করে খুব ঠিকঠাক ভাবেই মহাশূন্যে ঘোরাফেরা করেছে শুক্রাণুরা। শুধু তা-ই নয়, তাদের গতিবেগও কিছুটা বেড়েছে বলেই জানানো হয়েছে নাসা-র তরফে।

পরীক্ষার এই সাফল্যে স্বাভাবিক ভাবেই সন্তুষ্ট নাসা। তবে মহাশূন্যে প্রাণবিকাশের পরীক্ষা তো আর শুধু এটুকুতেই সমাপ্ত হওয়ার নয়। সে জন্য এই পরীক্ষার যাবতীয় রিপোর্ট কানসাসের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

বাকিটা এখনও রয়ে গিয়েছে গবেষণার স্তরেই! দেখা যাক, কানসাস থেকে এর পরে কী খবর আসে!

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here