New York City Ban Salary History

ওয়েবডেস্ক : চাকরি পাল্টে কোনো নতুন প্রতিষ্ঠানে যোগ দিতে গেলেই, জিজ্ঞাসা করা হয়, আগের প্রতিষ্ঠানে কত বেতন পেতেন? আর বেতনের উপর ভিত্তি করেই ঠিক হয় নতুন সংস্থা আপনার বেতন।

এই পদ্ধতি বন্ধ করল নিউইর্য়ক। নতুন আইন করে বলা হয়েছে, চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান চাকরিপ্রার্থীকে জিজ্ঞাসা করতে পারবেন না আগের প্রতিষ্ঠানে তিনি কত বেতন পেতেন। মূলত বেতন বৈষম্য রুখতেই এই পদক্ষেপ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কই প্রথম শহর যেখানে আইন করে এই ধরনের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল।

শুধু তাই নয়, কোনো চাকরিদাতা যদি প্রার্থীর আগের প্রতিষ্ঠানের বেতন সম্পর্কে জানতে চান কিংবা কোনো নথি ঘেঁটে তা বের করার চেষ্টা করেন, তবে তাঁকে আড়াই লাখ ডলার জরিমানা করা হবে।

আরও পড়ুন : অস্বাভাবিক বেতন পার্থক্য, সিইওরা পাচ্ছেন সাধারণ কর্মীদের ১২০০ গুণ বেশি 

নিউইয়র্ক শহরে মানবাধিকার কমিশনার কারমেলিন ম্যালালিস এক বিবৃতিতে বলেন, নারী এবং বিভিন্ন বর্ণের মানুষের যোগ্যতা অনুযায়ী বেতন পাওয়া উচিত। তিনি বর্তমানে বা এর আগে কী পরিমাণ বেতন পেতেন তা দিয়ে নতুন বেতনকাঠামো নির্ধারণ হওয়া উচিত নয়। এই আইন চাকরিপ্রার্থীদের জন্য যোগ্যতা অনুযায়ী যথাযথ বেতনে নিয়ে আলোচনা করার সুযোগ সৃষ্টি করবে।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, পুরুষদের চেয়ে ২০ শতাংশ কম বেতন পান মহিলারা। ওয়াশিংটনের ওমেনস পলিসি রিসার্চের পরিসংখ্যান বলছে, নিউইয়র্কে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় শ্রম দেওয়ার জন্য পুরুষ যেখানে এক ডলার পান, নারী সেখানে পান ৮৭ সেন্ট।
জানা গেছে, নিউইয়র্কের ব্যবসায়ী এবং বেসরকারি সংস্থায় চাকরিদাতাদের সংগঠন পার্টনারশিপ ফর নিউইয়র্ক সিটি এই আইনের প্রধান বিরোধী ছিল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here