ওয়াশিংটন: ইনি কোনো কিছুর ধার ধারেন না। কূটনৈতিক সৌজন্যতা বলে যে একটা বস্তু হয়, তা তাঁর অভিধানে নেই। এঁর কূটনৈতিক কাজকর্ম চালানোর স্টাইল হল কাঠখোট্টা, কর্কশ আর ‘আমেরিকাই প্রথম’ নীতিতে বিশ্বাস। তাই কূটনৈতিক সৌজন্য আর সামাজিক ভব্যতা জলাঞ্জলি দিতে বাঁধে না এঁর। ইনি ডোনাল্ড ট্রাম্প, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট।

মেক্সিকোর সীমান্ত বরাবর দেওয়াল তোলার যে প্রতিশ্রুতি তিনি দিয়েছেন তা বাস্তবায়িত করতে মেক্সিকো যদি পয়সা না দেয় তা হলে সে দেশের প্রেসিডেন্ট ঘরে বসে থাকুন –বাণিজ্য ও অভিবাসন বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনার জন্য মেক্সিকোর বিদেশমন্ত্রী লুইস বিদেগারায় যখন তাঁর দলবল নিয়ে ওয়াশিংটনে পৌঁছেছেন ঠিক তখনই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই টুইট বার্তা পেলেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিকে পেনা নিয়েতোর। এর পর আর কিছু করার ছিল না নিয়েতোর। ওই অপমানজনক বার্তা পাওয়ার চার ঘণ্টা পরে তাঁর প্রস্তাবিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফর বাতিল করেছেন তিনি। আগামী ৩১ জানুয়ারি নিয়েতোর যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাওয়ার কথা ছিল।

টুইটে ট্রাম্প আরও বলেছেন, “মেক্সিকোর সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য ঘাটতি ৬ হাজার কোটি ডলার। নাফটা (নর্থ আমেরিকান ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট) শুরু হওয়ার পর থেকে এটা একেবারে একপেশে ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেক কোম্পানি বন্ধ হয়ে গিয়েছে, অনেক কাজ চলে গিয়েছে। দেওয়াল তোলার খরচ যদি মেক্সিকো না দেয়, তা হলে আসন্ন বৈঠক বাতিল করে দেওয়াই ভালো।” বৃহস্পতিবারের আগেও দুই নেতার মধ্যে মিডিয়ার মাধ্যমে পরোক্ষ কথা কাটাকাটি হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here