নোবেল পুরস্কার ২০১৯-এর বিজয়ী অভিজিত বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে ৫টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

0

ওয়েবডেস্ক: সোমবার নোবেল কমিটি ঘোষণা করে, অধ্যাপক অভিজিত বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর স্ত্রী এস্টার ডাফলো এবং মাইকেল ক্রেমার অর্থনীতিতে এ বছরের নোবেল পুরস্কারের পাচ্ছেন। কমিটি জানায়, তিনজন অর্থনীতিবিদকে “বৈশ্বিক দারিদ্র্য বিমোচনে তাঁদের পরীক্ষামূলক পদ্ধতির জন্য”ই এই সম্মানে ভূষিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক অভিজিত সম্পর্কে ৫টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

১. অভিজিত বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। তিনি ‘এসেজ অব ইনফরমেশন ইকোনমিক্স’ শীর্ষক ডক্টরাল থিসিস লিখেছেন ১৯৮৮ সালে পিএইচডি অর্জন করেন। এমনকী সাউথ পয়েন্ট স্কুলের ছাত্র ছিলেন তিনি।

২. অভিজিৎ ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির ফোর্ড ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশনাল অর্থনীতির অধ্যাপক।

৩. ২০০৩ সালে এস্টার ডাফলো এবং সেন্দিল মুল্লাইনাথনকে সঙ্গে নিয়ে তিনি ‘আবদুল লতিফ জামিল পভার্টি অ্যাকশন ল্যাব’ (জে-পাল) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

আরও পড়ুন: অমর্ত্য সেনের পর দ্বিতীয় বাঙালি অর্থনীতিবিদের নোবেল জয় ]

৪. তিনি ‘পুওর ইকোনমিক্স’ (এস্টার ডাফলোর সঙ্গে)-সহ চারটি বইয়ের লেখক। ‘পুওর ইকোনমিক্স’ ‘গোল্ডম্যান শ্যাশ বিজনেস বুক অব দ্য ইয়ার’ জিতেছে।

[ আরও পড়ুন: নোবেলজয়ী অভিজিতকে শুভেচ্ছা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ]

৫. তিনি দু’টি তথ্যচিত্রের সহ-পরিচালনাও করেছেন: ২০১৯ সালে ‘দ্য ম্যাগনিফিকেন্ট জার্নি: টাইমস অ্যান্ড টেলস অব ডেমোক্রেসি’ (রানু ঘোষের সহ-পরিচালিত) এবং ২০০৬ সালে ‘দ্য নেম অব দ্য ডিজিজ’।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.