ওয়াশিংটন: তাঁর ইজরায়েলপন্থী মনোভাবের কথা আগেই প্রকাশ করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাই প্রেসিডেন্টের আসনে ট্রাম্প বসার আগেই প্যালেস্তাইনকে সাহায্যের জন্য আটকে থাকা অর্থ ছেড়ে দিয়ে গিয়েছেন বারাক ওবামা। পরিমাণটা ২২১ মিলিয়ন তথা ২২ কোটি ১০ লক্ষ ডলার। 

মার্কিন কংগ্রেসের রিপাবলিকান সদস্যরা অবশ্য এই অর্থসাহায্য করার ব্যাপারে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। সাধারণত মার্কিন কংগ্রেসের মতামত মানা হয় কার্যনির্বাহী শাখায়, কিন্তু এর কোনো আইনি কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। এই আপত্তি মানা বা না-মানা সম্পূর্ণ প্রেসিডেন্টের এক্তিয়ারে পড়ে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই এই অর্থসাহায্য ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট। প্যালেস্তিনীয় কর্তৃপক্ষ যুদ্ধবিধ্বস্ত ওয়েস্ট ব্যাঙ্ক আর গাজা স্ট্রিপে ত্রাণকাজ চালানোর জন্য এই অর্থ ব্যবহার করতে পারবে।

প্যালেস্তাইনের পাশাপাশি রাষ্ট্রপুঞ্জের বিভিন্ন শাখার জন্যও অর্থ ছাড়েন ওবামা। শান্তিস্থাপন, ওজোন সুরক্ষা আর যৌনশোষণ থেকে সুরক্ষার জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জকে দেওয়া এই অর্থ কাজে লাগানো হবে।

উল্লেখ্য, তেল আভিভ থেকে জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে আনার বার্তা দিয়ে নিজের ইজরায়েলপন্থী মনোভাবের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। সেই জন্য তাঁকে সতর্ক করেন ৭০টি দেশের রাষ্ট্রনেতা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here