২৯ বছরে সর্বনিম্ন হল তেলের দাম

খবর অনলাইনডেস্ক: একেই করোনাভাইরাসের আতঙ্কে বিশ্ব জুড়ে আর্থিক মন্দার মতো পরিস্থিতি। এর ওপরে তেল নিয়ে রাশিয়ার (Russia) সঙ্গে ‘মূল্য যুদ্ধে’ নেমেছে সৌদি আরব (Saudi Arabia)। এর জেরে গত ২৯ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন স্তরে পৌঁছে গেল তেলের দাম।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ডব্লিউটিআই (WTI) ক্রুড তেলের দাম প্রায় ২৭ শতাংশ কমে ব্যারেল প্রতি হয়েছে ৩০.০৬ মার্কিন ডলার। এ দিন ব্রেন্ট (Brent) ক্রুড তেলের দাম কমেছে প্রায় ২৬ শতাংশ। বর্তমানে তা বিক্রি হচ্ছে ৩৩.৩৩ ডলারে।

১৯৯১ সালে, অর্থাৎ প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধের (First Gulf War) সময়ে শেষ বার এত কমেছিল তেলের দাম।

তেলের দামে এই সংকট শুরু হয়েছিল গত শুক্রবার থেকে। এ দিন সৌদি নেতৃত্বাধীন ওয়েল অ্যান্ড পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজের (ওপেক) (OPEC) ১৪ সদস্য ও রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন অন্যান্য তেল উৎপাদক দেশগুলো একটি আলোচনায় বসেছিল।

আরও পড়ুন দোলের সকালে শীতের পরশ, কিছুটা কমল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

করোনাভাইরাস সংকটে তেলের উৎপাদন কমানো হবে কি না, সেটাই ছিল এই আলোচনার মূল বিষয়বস্তু। তেলের দাম ধরে রাখতে প্রতি দিন দেড় মিলিয়ন ব্যারেল উৎপাদন কমানোর পক্ষে মত দেয় ওপেক, তবে এতে সম্মত হতে পারেনি রাশিয়া নেতৃত্বাধীন গোষ্ঠী।

ভিয়েনার ওই আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার পরপরই ধস নামে তেলের বাজারে। শুক্রবারই এর দাম পড়ে যায় গড়ে ১০ শতাংশ। দাম পতনের সেই ধারাকে অব্যাহত রেখে এ বার আরও বড়ো ধাক্কা দিল সৌদি আরব। রাশিয়ার ওপর চাপ বাড়াতে তারা তেলের দর ছয় থেকে আট ডলার পর্যন্ত কমিয়ে দিয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.