নিয়ে যাওয়া হচ্ছে সেয়ককে। ছবি: রয়টার্স

নিউ ইয়র্ক: বারাক ওবামা-সহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের পার্সেল বোমা পাঠানোর অভিযোগে গ্রেফতার করা হল সিজার সেয়ক নামক বছর ৫৬-এর এক ব্যক্তিকে। শুক্রবার ফ্লোরিডা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অতীতেও বিভিন্ন রকম অপরাধমূলক ঘটনায় নাম জড়িয়েছে সেয়কের। বেশ কয়েক বার জেলেও যেতে হয়েছে তাঁকে। তিনি একজন রিপাবলিকান সমর্থক বলে জানা গেছে। এর আগে ২০০২ সালে মিয়ামি-ডেড কাউন্টিতে বোমা হামলার হুমকি দিয়ে গ্রেফতার হয়েছিল সেয়ক। ১৯৯১ সালেও চুরির দায়েও তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

এ দিকে শুক্রবার আরও তিন জনকে এই সন্দেহজনক পাঠানো হয়েছিল। তবে যাঁদেরই এই পার্সেল পাঠানো হয়েছে, তাঁরা সবাই কোনো না কোনো ভাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা করেছিলেন।

বিস্ফোরক পাঠানো, চিঠির মধ্যে দিয়ে বেআইনি ভাবে বিস্ফোরক পাচার করা, প্রাক্তন প্রেসিডেন্টকে হুমকি দেওয়া-সহ একাধিক অভিযোগ আনা হয়েছে এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে বহু বছর জেলে কাটাতে হবে সেয়ককে।

আরও পড়ুন শেষ মুহূর্তে পরিবেশবান্ধব বাজি তৈরি করা সম্ভব নয়, সাফ কথা রাজ্যের বাজি ব্যবসায়ীদের

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাতে হিলারি ও বিল ক্লিনটনের বাড়ির ঠিকানায় পাঠানো একটি পার্সেলে বোমা পাওয়া যায়। এর পর বুধবার সকালে ওয়াশিংটন ডিসিতে ওবামার বাড়ির ঠিকানায় পাঠানো আরেকটি পার্সেল পরীক্ষা করেও বোমার সন্ধান পান গোয়েন্দারা। মার্কিন ধনকুবের জর্জ সোরোসের নিউ ইয়র্ক সিটির বাড়ির ঠিকানাতেও একটি বোমা পাঠানো হয়। বোমাগুলো প্রায় ছয় ইঞ্চি দীর্ঘ একটি পাইপের ভেতরে বিস্ফোরক পাউডার ভরে তৈরি করা হয়েছিল বলে জানা যায়। এ ছাড়া গত কয়েক দিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বিডেন, অভিনেতা রবার্ট ডি নিরোসহ আরও কয়েক জন হাইপ্রোফাইল ব্যক্তির ঠিকানায়ও বোমা পাঠানো হয়েছে।

তার পরেই তদন্ত শুরু করে পুলিশ। জানা যায়, নিছক ভয় দেখানোর জন্যই এই কাজ করেছে সেয়ক।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here