ইমরান খানের সম্ভাব্য ভারত সফর নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া বিরোধীদের

0
Imran-Khan
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও)-এর বার্ষিক বৈঠকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে ভারত। তবে তাঁর এই সম্ভাব্য ভারত সফর আদৌ সঠিক পদক্ষেপ কি না, তা নিয়েই দেশের অন্দরে চলছে জোর জল্পনা।

বিভিন্ন বিরোধী দলগুলি ইমরানের সম্ভাব্য ভারত সফরের বিরোধিতা করছে। আবার কেউ কেউ বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে না চাইলেও অনেকেই কেন্দ্রের পদক্ষেপকে সমর্থন জানাচ্ছে।

২০০১ সালে রাশিয়া, চিন, কিরগিজ প্রজাতন্ত্র, কাজাখাস্তান, তাজিকিস্তান এবং উজবেকিস্তানের রাষ্ট্রপতিদের সহমতের ভিত্তিতে সাংহাইয়ের একটি শীর্ষ সম্মেলনে এসসিও প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। গত ২০০৫ সাল থেকে এসসিও-তে পর্যবেক্ষক দেশ হিসাবে ছিল ভারত। ২০১৭ সালে পাকিস্তান এসসিও-র পূর্ণাঙ্গ সদস্য হয়ে ওঠে।

চলতি বছরেই ভারত প্রথমবারের জন্য এই সংগঠনের আয়োজন করছে। স্বাভাবিক ভাবেই সদস্য দেশগুলির শীর্ষস্তরের প্রতিনিধিদের উপস্থিত থাকাটাই বাঞ্ছনীয়। কিন্তু ভারত-পাক কূটনৈতিক সম্পর্কের জেরে ইমরানকে আমন্ত্রণ জানানো অথবা সেই আমন্ত্রণ রক্ষায় তাঁর ভারত আগমন নিয়ে দুই দেশের রাজনৈতিক মহলে জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।

যদিও আপাতত বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে নারাজ বিরোধী দল কংগ্রেস। দলের নেতা আনন্দ শর্মা জানিয়েছেন, “এ বিষয়ে মন্তব্য করা নিষ্প্রয়োজন। ভারত আয়োজক দেশ, স্বাভাবিক ভাবেই পাকিস্তানকে আমন্ত্রণ জানানোই রীতি। কিন্তু ইমরান খান আসবেন কি না, সেটা তাঁদের ব্যাপার”।

তবে এনসিপির তরফে বিরোধিতা করা হয়েছে কেন্দ্রের এই পদক্ষেপের। দলের নেতা মজিদ মেনন জানিয়েছে, এখানে অন্তরঙ্গতার কোনো স্থান নেই।

আরজেডি নেতা মনোজ ঝা জানান, এক দিকে আমরা সম্পর্ক ত্যাগ করার কথা বলছি, অন্য দিকে আবার তাদের আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। উন্নত গণতন্ত্রে এ ধরনের আচরণ মানায় না।

আরও পড়ুন: পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ভারতে আসার আমন্ত্রণ

প্রসঙ্গত, অর্থনৈতিক এবং সুরক্ষা সম্পর্কিত এই সংগঠনটিতে বর্তমানে সদস্য দেশের সংখ্যা আট। তবে সংগঠনে চিনের প্রভাবই অত্যধিক।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.