ওয়েবডেস্ক: কিছু দিন আগেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি হাফিজ সঈদকে ‘সাহেব’ আখ্যা দিয়ে বলেছিলেন তাঁর বিরুদ্ধে পাকিস্তানে কোনো মামলা নেই। এর এক মাসও কাটল না, ফের ডিগবাজি খেল পাকিস্তান। হাফিজ সঈদকে জঙ্গি ঘোষণা করে তাঁর সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়াকে জঙ্গি সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করল তারা।

উল্লেখ্য, জামাত-উদ-দাওয়া আগে থেকেই রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বীকৃত জঙ্গি সংগঠন এবং হাজিফ একজন জঙ্গি। কিন্তু রাষ্ট্রপুঞ্জকে এত দিন মান্যতা দেয়নি ইসলামাবাদ। সোমবার হঠাৎ তাদের মত পালটে গেল। রাষ্ট্রপুঞ্জ স্বীকৃত সমস্ত জঙ্গি সংগঠনকে নিজেদের দেশে নিষিদ্ধ করার জন্য একটি অর্ডিন্যান্সে সই করলেন পাক প্রেসিডেন্ট মামুন হুসেন।

এই অর্ডিন্যান্সের ফলে পাকিস্তানের সন্ত্রাস-বিরোধী আইনের আওতায় চলে এলেন হাফিজ সঈদ এবং জামাত। এর ফলে পাকিস্তান যদি মনে করে তা হলে খুব সহজেই হাফিজ এবং তাঁর সংগঠনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে। সংগঠনের অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টও ফ্রিজ করে দিতে পারে পাকিস্তান। তবে তাঁর বিরুদ্ধে পাকিস্তান কী পদক্ষেপ করবে সেই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত বছর নভেম্বরে গৃহবন্দি দশা থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন হাফিজ। তার পর থেকে বারবার কাশ্মীরের নাম করে ভারতের বিরুদ্ধে হুমকি দিয়েছেন তিনি।

সন্ত্রাসবাদীদের অর্থ জোগানের ওপরে কড়া নজর রাখার জন্য তৈরি সংগঠন ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের (এফএটিএফ) চাপেই পাকিস্তানের এই পদক্ষেপ বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। পরের সপ্তাহেই এফএটিএফের সভা, তার আগে সম্ভবত নিজেদের মুখ বাঁচাতেই এই পদক্ষেপ করল পাকিস্তান।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন