imran khan pakistan

ইসলামাবাদ: সামনের মাসেই সাধারণ নির্বাচন পাকিস্তানে। তার আগে বড়োসড়ো ধাক্কা খেলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা তেহরিক-এ-ইনসাফের নেতা ইমরান খান। তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করে দিয়েছে কমিশন। একই রকম ভাবে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে দেশের প্রধানমন্ত্রী শাহীদ খাকান আব্বাসির।

এ বার নির্বাচনে ইমরানের দলকে ডার্ক হর্স বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে। অনেকে তো ইতিমধ্যেই ধারণা করে ফেলেছেন যে ইমরানই এ বার প্রধানমন্ত্রী হবেন। তবে মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া ইমরানের কাছে ধাক্কা হলেও, তাঁর প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন এখনও রয়েছে। কারণ ইমরানে দেশের পাঁচটা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। এর মধ্যে দুটো কেন্দ্রে তাঁর মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

প্রযুক্তিগত ত্রুটির জন্য একটা কেন্দ্রের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে, অন্যটার বাতিল হওয়ার কারণ অসম্পূর্ণ তথ্য। অন্য দিকে আব্বাসি একটি কেন্দ্র থেকেই মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন। কর সংক্রান্ত কিছু ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য সেই মনোনয়ন বাতিল করে দিয়েছে কমিশন। দুই নেতাই অবশ্য এই নির্দেশের বিরুদ্ধে আদালতে আবেদন করতে পারেন।

তবে নওয়াজ শরিফের পরিবারের তিন সদস্যের মনোনয়ন জমা করেছে কমিশন। তাঁরা হলেন নওয়াজের মেয়ে মারিয়াম, ভাই শাহবাজ এবং ভাইপো হামজা। অন্য দিকে পাকিস্তানের অন্যতম বিরোধী দল, পাকিস্তান পিপলস পার্টির প্রধান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি এবং তাঁর বাবা আসিফ আলি জারদারির মনোনয়ন জমা করেছে নির্বাচন কমিশন।

আগামী ২৫ জুলাই দেশে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here