Connect with us

বিদেশ

ধর্ষকদের রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদ করার আইনে সম্মতি পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের

পাকিস্তানে লাগাতার বাড়তে থাকা ধর্ষণের ঘটনার প্রেক্ষিতে এ বার এই নতুন আইন আনতে চলেছে তারা।

Published

on

Imran Khan

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ফাঁসি দিয়েও কোনো কাজ হয় না। বন্ধ হয় না ধর্ষণ। সে কারণে এ বার ধর্ষকদের রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদ করার আইন আনতে চলেছে পাকিস্তান। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রাথমিক ভাবে সেই খসড়া আইনে নিজের সম্মতি দিয়েছেন।

পাকিস্তানের জিও টিভি সূত্রে এই খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে সরকারি ভাবে এখনও এটা নিয়ে কিছু ঘোষিত হয়নি।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদের পাশাপাশি ধর্ষকদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দেওয়ার দাবি তোলেন ইমরান খানের (Imran Khan) ক্যাবিনেটের অনেকেই। এর পরেই ওই খসড়া আইনে সম্মতি দেন ইমরান। পাক আইনসভার সদস্য ফয়জল জাভেদ খান জানান, শীঘ্রই লিঙ্গচ্ছেদ সংক্রান্ত বিলটি পার্লামেন্টে পেশ করা হবে।

Loading videos...

রাসায়নিক ভাবে লিঙ্গচ্ছেদের পাশাপাশি পুলিশে বেশি সংখ্যক মহিলাদের নিয়োগ, ফাস্ট ট্র‌্যাকিং কোর্টের কথাও বলা হয়েছে ওই খসড়ায়।

ইমরান জানান, তাঁর নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা সরকারের কর্তব্য। এ ব্যাপারে কোনো গাফিলতি তিনি বরদাস্ত করবেন না। আইন দ্রুত পাস হয়ে কড়া ভাবে প্রয়োগ হবে বলে মন্তব্য করেন ইমরান। পাক প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, নির্যাতিতারা নির্ভয়ে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। তাঁর এবং তাঁর পরিবারের সুরক্ষা এবং পরিচয় গোপন রাখার দায়িত্ব সরকারের।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে লাহোরে ধর্ষণ করে খুন করা হয় এক ৭ বছরের শিশুকন্যাকে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে ও ধর্ষকদের জন্য কড়া আইনের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছিল গোটা দেশ। 

এর পর ২০২০ সালে পাকিস্তানে এক যুবতীকে গণধর্ষণের পর নগ্ন করে রাস্তায় হাঁটায় তিন যুবক। পাশবিক এই ঘটনাটি ঘটে রাওয়ালপিন্ডিতে। নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলেও পরে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ।

সে বার প্রতিশ্রুতি দিলেও নয়া কোনো আইন আনেনি পাক সরকার। কিন্তু লাগাতার বাড়তে থাকা ধর্ষণের ঘটনার প্রেক্ষিতে এ বার এই নতুন আইন আনতে চলেছে পাকিস্তান।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

‘কংগ্রেসকে শক্তিশালী করতে আহমেদ পাটেলের ভূমিকা অনস্বীকার্য’, শোক প্রকাশ করলেন নরেন্দ্র মোদী

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

বিদেশ

তিন মাস ‘নিখোঁজ’ থাকার পর অবশেষে প্রকাশ্যে জ্যাক মা

যে রকম রহস্যজনক ভাবে মা নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন, তার থেকেও বেশি রহস্য বাড়িয়ে প্রকাশ্যে চলে এলেন তিনি।

Published

on

jack ma

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ১০ অক্টোবর শেষ টুইট করেছিলেন তিনি। তার পর পুরোপুরি ‘উধাও’ হয়ে গিয়েছিলেন চিনের বিখ্যাত উদ্যোগপতি জ্যাক মা (Jack Ma)। অবশেষে তিন মাস পর ফের প্রকাশ্যে এলেন মা। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গ্রামীণ এলাকার শিক্ষকদের উদ্দেশে বার্তা দিতে দেখা গেল তাঁকে।

গত বছর অক্টোবর মাসের পর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না ‘অ্যান্ট’ এবং ‘আলিবাবা’ সংস্থার মালিক মা-র। সারাদিনে একাধিক বিষয়ে টুইট করতে থাকা মা’র ১০ অক্টোবর থেকে নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে বেশ রহস্য ঘনীভূত হয়।

বিষয়টি প্রথম নজরে আসে, যখন একটি টিভি শোয়ের বিচারক পদ থেকে মা-কে সরিয়ে অন্য আর এক বিচারককে আনা হয়। অনুষ্ঠানটি চূড়ান্ত পর্বের কোনো প্রচারেও দেখা যাচ্ছিল না মা-কে।

Loading videos...

এর কিছু দিন আগেই চিন সরকার ও রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক পরিষেবার সমালোচনা করে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন তিনি। শি চিনফিং সরকারের নিন্দা করায় তাঁর ওপরে খোদ চিনা প্রেসিডেন্ট রুষ্ট ছিলেন বলেন দাবি বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমের।

চিনা কমিউনিস্ট পার্টির প্রভাবশালী নেতা হলেও চিনফিংয়ের সঙ্গে মা-য়ের দ্বন্দ্ব বহুদিনের। মা-য়ের নিখোঁজ রহস্য সেই জল্পনাই আরও উস্কে দেয়। এর পাশাপাশি চিনফিং সরকারের একাধিক নীতির সমালোচনা করে মা বলেন, দেশে বহু নিয়ম-কানুনের ফলে দেশের মানুষ দমবন্ধ হয়ে পড়েছে।  

চিনের সবচেয়ে বিত্তশালী তো বটেই, গোটা বিশ্বের ২৫ জন ধনীর মধ্যে তিনি অন্যতম জ্যাক মা। মোট সম্পত্তির পরিমাণ পাঁচ হাজার কোটি ডলারেরও বেশি। কিন্তু চাঁচাছোলা ভাষায় চিনা সরকারের সমালোচনা করতে পিছপা হতেন না তিনি।

তবে সরকারের সমালোচনা করার পর মা-য়ের সংস্থা অ্যান্ট-কে আর্থিক নজরদারি সংস্থার কোপে পড়তে হয় বলেও খবর। এবং তার ঠিক পরেই চিনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তালিকা থেকে সরে যায় তাঁর নাম।

চিন-আমেরিকা দ্বন্দ্বের পরিস্থিতিতেও নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে কমপক্ষে দু’হাজার ভেন্টিলেটর দান করে স্বয়ং ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন মা। মনে করা হচ্ছে বেজিং সেটাও ভালো চোখে দেখেনি। তবে যে রকম রহস্যজনক ভাবে মা নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন, তার থেকেও বেশি রহস্য বাড়িয়ে প্রকাশ্যে চলে এলেন তিনি।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

আজ থেকে ছ’টি দেশে কভিডের টিকা পাঠাচ্ছে ভারত

Continue Reading

বিদেশ

অফিসে শেষ দিনে ডোনাল্ড ট্রাম্প বললেন, “বাইডেনের সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করুন”

প্রথম বার, পরবর্তী প্রশাসনের সাফল্য কামনা করলেন ট্রাম্প।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: প্রেসিডেন্ট পদে নিজের শেষ দিন কিছুটা ভাঙলেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফলের পর এই প্রথম বার, পরবর্তী প্রশাসনের সাফল্য কামনা করলেন তিনি। ভাবী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের (Joe Biden) জন্য জনগণকে প্রার্থনাও করতে বললেন ট্রাম্প।

বুধবার প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন বাইডেন। ইতিমধ্যেই ওয়াশিংটনে পৌঁছে গিয়েছেন তিনি। তবে অতীতের ‘ট্র্যাডিশন’ পালটে বাইডেনের শপথানুষ্ঠানে থাকবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। এমনকি ক্যাপিটল ভবনে তাঁর সমর্থকদের হামলা এবং বিদায়ের আগেই ইম্পিচ হওয়ার পর গত এক সপ্তাহ ধরে প্রকাশ্যে দেখাই মিলছিল না ডোনাল্ড ট্রাম্পের। অবশেষে এক ভিডিওবার্তায় নীরবতা ভেঙে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বক্তব্য দিয়েছেন।

গত বছর নভেম্বরে নির্বাচনের পর থেকেই বার বার ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলছিলেন ট্রাম্প। কোনো ভাবেই নিজের পরাজয় স্বীকার করেননি। ভোটের ফল বদলে দেওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টেও কড়া নেড়েছিলেন ট্রাম্প। এমনকি আধিকারিকদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগও উঠেছিল ট্রাম্পের বিরুদ্ধে।

Loading videos...

কিন্তু তাঁর কোনো চেষ্টাই সফল হয়নি। মসনদ তাঁকে ছাড়তে হচ্ছেই। তবে এখনও পর্যন্ত ব্যক্তিগত ভাবে বাইডেনকে অভিনন্দন কিংবা প্রচলিত রীতি অনুযায়ী ওভাল অফিসে চায়ের নিমন্ত্রণ করেননি ট্রাম্প।

ওয়াশিংটন জুড়ে ব্যাপক প্রস্তুতি

এ দিকে, বাইডেনের শপথকে কেন্দ্র করে হোয়াইট হাউসের বাইরে ওয়াশিংটন শহরে নেওয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে জনসাধারণের উপস্থিতিতে রাখা হয়েছে কড়াকড়ি। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে থাকবেন ন্যাশনাল গার্ডের সদস্যরা।

গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল ভবনে যে হামলা হয়েছিল, ওই ধরনের হামলার আশঙ্কা এক্কেবারে দেওয়া হচ্ছে না। সেই জন্য মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনীর সশস্ত্র সদস্যদের। নিরাপত্তা বিবেচনায় ‘সবুজ’ ও ‘লাল’ এই দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে বিভিন্ন এলাকাকে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

ভারতে সক্রিয় রোগী নামল দুই লক্ষের নীচে, কেরল বাদে বাকি দেশে আক্রান্ত ৭,৬৩৭

Continue Reading

বিদেশ

ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে নরওয়েতে মৃত ২৩, শুরু তদন্ত

শারীরিক ভাবে অপেক্ষাকৃত দুর্বল, আশি বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যে এই ভ্যাকসিনের বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে।

Published

on

নরওয়েতে ৩০ হাজার মানুষ করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার পর নরওয়েতে (Norway) ২৩ জন বৃদ্ধের মৃত্যু উদ্বেগ বাড়িয়েছে। শুধু তাই নয়, ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে এই ২৩ জন ছাড়াও আরও বেশ কয়েক জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু হরেছে।

ব্লুমবার্গের রিপোর্ট অনুযায়ী, ফাইজার-বায়োএনটেকের (Pfizer-BioNTech) করোনা ভ্যাকসিন (Coronavirus Vaccine) নেওয়ার স্বল্প সময়ের মধ্যেই ২৩ জন বৃদ্ধের মৃত্যুর তদন্ত করছেন নরওয়ের চিকিৎসকেরা। তাঁরা জানিয়েছেন, শারীরিক ভাবে অপেক্ষাকৃত দুর্বল, আশি বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যে এই ভ্যাকসিনের বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে।

তবে যাঁরা মারা গিয়েছেন, তাঁদের মৃত্যুর সঙ্গে ভ্যাকসিনের কোনো সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে কি না, সে বিষয়ে নিশ্চিত নন চিকিৎসকেরা। যে ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের মধ্যে ১৩ জন ডায়রিয়া, বমি বমি ভাব এবং জ্বরের মতো উপসর্গগুলি দেখা দিয়েছিল। যা অন্য়ান্য এমআরএনএ ভ্যাকসিনের সাধারণ লক্ষণ হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

Loading videos...

জানা গিয়েছে, নরওয়ের এই মৃত্য়ুর ঘটনার জেরে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ফাইজার। তারা এখন ইউরোপে নিজেদের তৈরি ভ্যাকসিন সরবরাহ সাময়িক ভাবে হ্রাস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, নরওয়েজিয়ান ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথ ৮০ বছরের বেশি বয়সিদের টিকাকরণে সতর্কতা জারি করেছে। জানিয়েছে, যাঁদের আয়ু কম, তাঁরা এই ভ্যাকসিন থেকে খুব বেশি উপকৃত হবেন না।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বর মাস থেকেই নরওয়েতে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। ফাইজার এবং মোডার্না মিলিয়ে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ টিকা নিয়েছেন। গত বছরের শেষদিকে নরওয়েতে অনুমতি পেয়েছিল ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন। জানুয়ারির শুরুতে মোডার্না (Moderna Inc) অনুমোদন পায়। তবে ২৩ জন বৃদ্ধের মৃত্যুর পর চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়েই টিকা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

এর আগে ফাইজারের ভ্য়াকসিন নেওয়ার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ফ্লোরিডা থেকে আসা এক ৫৬ বছর বয়সি চিকিৎসকের মৃত্যু হয়। আরও পড়তে পারেন এখানে: ফাইজারের করোনা টিকা নেওয়ার ১৬ দিন পর মৃত্যু চিকিৎসকের

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল1 hour ago

এগিয়ে থেকেও কেরলের কাছে ২-১ গোলে হারল বেঙ্গালুরু

রাজ্য5 hours ago

দৈনিক সংক্রমণের হার সামান্য বাড়লেও রাজ্যে দৈনিক মৃত্যু মে’র পর সর্বনিম্ন

দেশ5 hours ago

২০১৮ সালের আধার রায় পুনর্বিবেচনার আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

রাজ্য6 hours ago

তিন দিনের সফরে রাজ্য এল নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য7 hours ago

তৃণমূলেও ‘কাজ করতে’ পারলেন না শান্তিপুরের ‘কংগ্রেস’ বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য, এ বার গেলেন বিজেপিতে

ক্রিকেট7 hours ago

নির্বাসন কাটিয়ে ১৬ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ শাকিব আল হাসান

বিনোদন7 hours ago

‘তাণ্ডব’ তদন্তে মুম্বই পৌঁছালো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ

ক্রিকেট8 hours ago

খোলা চিঠিতে ভারতকে কৃতজ্ঞতা জানাল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

election commission of india
রাজ্য2 days ago

বুধবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য3 days ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

দেশ3 days ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

দেশ3 days ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি জেনে নিন

দেশ3 days ago

শনিবার নিয়েছিলেন টিকা, রবিবার উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মীর

antonio lopez habas
ফুটবল3 days ago

জিততে না পারলেও হতাশ নন আন্তোনিও লোপেজ আবাস

কলকাতা3 days ago

আজ থেকে আর প্রয়োজন নেই ই–পাসের, খুলছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের একাধিক গেটও

কেনাকাটা

কেনাকাটা16 hours ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা1 week ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

নজরে