ইসলামাবাদ: গুপ্তচরবৃত্তি এবং ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ‘রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস উইং'(র)-এর হয়ে কাজ করার অভিযোগে ভারতের নৌবাহিনীর প্রাক্তন অফিসার কুলভূষণ যাদবকে মৃত্যুদণ্ড দিল পাকিস্তানের একটি সামরিক আদালত। আদালতের এই রায়ে রীতিমতো ক্ষুব্ধ ভারত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, যদি এই রায় কার্যকর করা হয়, তা হলে তা হবে ঠান্ডা মাথায় ছক কষে খুন।

দিল্লিতে পাকিস্তানের হাই কমিশনার আব্দুল বশিতকে ডেকে পাঠিয়ে তাঁর হাতে একটি ‘ডিমার্শ’ ধরিয়ে দেওয়া হয়। তাতে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের এই বিচারপ্রক্রিয়া একেবারেই ‘প্রহসন’। একই সঙ্গে ভারতের হাতে বন্দি যে সব পাকিস্তানির বুধবার মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল, তা স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।   

পাকিস্তানে বিচারপ্রক্রিয়া চলাকালীন ভারতীয় দূতাবাসের আধিকারিকদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর পক্ষ থেকে এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, সে দেশের সেনাপ্রধান যাদবের মৃত্যুদণ্ডের খবরটি নিশ্চিত করেছেন। গত বছরের ৩ মার্চ কুলভূষণকে বালুচিস্তানের মাশকেল থেকে গ্রেফতার করে পাক গোয়েন্দা বাহিনী। সেখানে তিনি হুসেন মুবারক প্যাটেল নামে সক্রিয় ছিলেন বলে অভিযোগ।

পাকিস্পাতনাক সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর টুইট করে জানিয়েছে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তি ও অন্তর্ঘাতমূলক কাজের জন্য ভারতের র’ এজেন্ট কুলভূষণকে কোর্ট মার্শালের মাধ্যমে পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে।

 

পাক সামরিক বাহিনীর দাবি, কুলভূষণ স্বীকার করেছেন যে, র তাঁকে গুপ্তচরবৃত্তি/অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করে বা ওই ধরনের নানা কাজের পরিকল্পনা ও সমন্বয় ঘটিয়ে পাকিস্থানের সুস্থিতি নষ্ট করা ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালানোর দায়িত্ব দিয়েছিল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here