‘লাস্ট ক্রিস্টমাস, আই গিভ ইউ মাই হার্ট/ বাট দ্য ভেরি নেক্সট ডে, ইউ গিভ ইট অ্যাওয়ে/…’ 

ক্রিসমাসেই তিনি ভক্তদের কাছে তার হৃদয় রেখে চলে গেলেন। ৫৩ বছর বয়েসে মারা গেলেন বিখ্যাত ব্রিটিশ গায়ক, গীতিকার জর্জ মাইকেল। ‘লাস্ট ক্রিস্টমাস’ তার জয়প্রিয় তম গানগুলির মধ্যে অন্যতম।

তাঁর পাবলিসিস্ট জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ডশায়ারের গোরিং-এ নিজের বাড়িতে ক্রিসমাসের দিন রাতে মারা গেছেন এই শিল্পী। তবে শিল্পীর মৃত্যুর কারণ নিয়ে যথেষ্ট ধোঁয়াশা থেকে গিয়েছে। থেমস ভ্যালির পুলিশ জানিয়েছে, শিল্পীর মৃত্যুর কারণ নিয়ে এখনও তারা কোন স্পষ্ট ব্যাখ্যা পাননি। আবার কোনও অস্বাভাবিকতাও তাদের চোখে পড়েনি। মৃত্যুর পর জর্জের দেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এলেই মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে। বেশ কিছুদিন ধরেই শিল্পী নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। 

পাবলিসিস্ট জানিয়েছেন, জর্জের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শিল্পীর প্রয়াণে ইতিমধ্যেই তারা শোকস্তব্ধ। তাই তার চান না এ নিয়ে বেশি হইচই হোক।

আশির দশকে হোয়াম! নামে একটি ব্যান্ডে তরুণ কণ্ঠশিল্পী হিসাবে কেরিয়ার শুরু করেন জর্জ। তার পর নিজেই হয়ে ওঠেন ‘আইকন’। তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে মঞ্চ কাঁপানো এই শিল্পী নানা সময় ড্রাগ এবং পুলিশ ঝামেলা জড়িয়ে পড়েন।  সারা বিশ্ব তার অ্যালবাম ১০ কোটিরও বেশি বিক্রি হয়েছে। লাস্ট ক্রিস্টমাস ছাড়াও তার বিখ্যাত গানগুলির মধ্যে রয়েছে, কেয়ারলেস হুইম্পার, ওয়ান মোর ট্রাই, ওয়েক মি আপ বিফোর ইউ গো এবং ফাদার ফিগার। শিল্পীর প্রয়াণে শোকস্তব্দ বিশ্বের সঙ্গীত মহল। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here