Us and Russia
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: “আমেরিকা এবং রাশিয়ার সম্পর্ক ক্রমশ খারাপ থেকে আরও খারাপ হচ্ছে”। বৃহস্পতিবার সম্প্রচারিত একটি সাক্ষাৎকারে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন স্বীকার করে নেন, “মস্কো এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে দূরত্ব ক্রমশ বাড়ছে। সাম্প্রতিক কালে রাশিয়ার উপর আমেরিকার চাপিয়ে দেওয়া একাধিক নিষেধাজ্ঞাই এর জন্য দায়ী”।

মির টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া ওই ভিডিও সাক্ষাৎকারে পুতিন বলেন, “সম্পর্কে ক্রমাবনতি চওড়া হচ্ছে”।

প্রসঙ্গত, আগামী মাসেই জাপানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে জি-২০ সম্মেলন। যেখানে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। তার আগেই পুতিনের এ ধরনের মন্তব্য বিশ্ব জুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। ট্রাম্প প্রশাসনের উপর আগাম চাপ বাড়াতে পুতিন এই মন্তব্য করেছেন কি না, তা নিয়েও চলছে বিস্তর জল্পনা।

[ ভারত সফরের আগে মার্কিন বিদেশ সচিবের গলায় বিজেপির নির্বাচনী স্লোগান! ]

প্রসঙ্গত, সিরিয়া বা ইউক্রেন নিয়ে আমেরিকা-রাশিয়া রাজনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে আগেই স্পষ্ট বার্তা দিয়েছিল পুতিন প্রশাসন। তাদের দাবি, এই ধরনের রাজনৈতিক বিষয় দুই দেশের অভ্যন্তরীণ সম্পর্কে কোনো প্রভাব ফেলছে না। তবে রাশিয়ার উপর চাপিয়ে দেওয়া আমেরিকা নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গ উত্থাপন করে পুতিন ফের বিতর্কে ঘৃতাহুতি করলেন বলেই ধারণা করছে ওয়াকিবহাল মহল।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here