qatar

দোহা: পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলিতে কি নারী স্বাধীনতার ছবিটা বদলাতে শুরু করেছে? প্রথমে মহিলাদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে দিয়েছিল সৌদি আরব। এ বার নিজেদের ঐতিহ্যশালী শুরা কাউন্সিলে এই প্রথম বার মহিলাদের সদস্য করল কাতার।

বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত এই নির্দেশ দিয়েছে কাতার। আইন প্রণয়ন হোক বা সরকারের সাধারণ নীতি, সব কিছুতেই গুরুত্বপূর্ণ মতামত দেয় এই কাউন্সিল। মত দেয় বাজেট নিয়েও। ৪৫ সদস্যের এই কাউন্সিলে এ বার চার জন মহিলাকে নিয়োগ করা হয়েছে।

কাতারের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, “শুরা কাউন্সিলের কয়েক জন সদস্যের সদস্যপদ পুনর্নবীকরণ করা এবং সেই সঙ্গে ২৮ জন নতুন সদস্যকে নিয়োগ করার ব্যাপারে একটি নির্দেশ জারি করেছেন কাতারের আমির শেখ তামিম-বিন-হামিদ আল-থানি। নতুন সদস্যদের মধ্যে চার জন মহিলা রয়েছেন। কাতারের ইতিহাসে এই প্রথম।”

যে চার জন মহিলাকে নিয়োগ করা হয়েছে তাঁদের নাম যথাক্রমে হেসা আল-জাবের, আয়েশা ইউসুফ আল-মানাই, হিন্দ আব্দুল রহমন আল-মুফতাহ এবং রিম আল-মানসুরি।”

কূটনৈতিক দিক থেকে গত কয়েক বছরের মধ্যে সব থেকে খারাপ অবস্থায় এখন কাতার। প্রতিবেশীদের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞায় টালমাটাল দেশ। এই আবহেই এই নীতি পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিল তারা।

দেশের একমাত্র গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত সেন্ট্রাল মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলে ২০১৫-তে দু’জন মহিলা নির্বাচিত হন। ২০১৯ থেকে শুরা কাউন্সিলের নির্বাচনও গণতান্ত্রিক ভাবে করা যায় কি না সে চিন্তাভাবনা করছে কাতার।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here