লন্ডন: সম্প্রতি এক আন্তর্জাতিক সমীক্ষায় দেখা গেছে, যে সব দেশের সমাজে ধর্মীয় প্রভাব বেশি, সেখানকার পড়ুয়াদের  বিজ্ঞান এবং অঙ্কের ভিত তত বেশি দুর্বল। সমীক্ষায় ধরা পড়েছে, সাধারণ ভাবে পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের মধ্যেই ধর্মীয় বিশ্বাসের প্রভাব বেশি থাকে। 

পৃথিবীর মোট ৮২ টি দেশ জুড়ে সমীক্ষা চালিয়েছেন মিসৌরি এবং লিডস্‌ বেকেট-এই দুটি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের বেশ কিছু গবেষক। এদের মধ্যে একজন হলেন গিজসবার্ট স্টোয়েট। তাঁর মতে, “শিক্ষাগত মান বাড়াতে স্কুল এবং শিক্ষা বিষয়ক নীতি থেকে ধর্মকে দূরে সরিয়ে রাখা উচিত”। 

 ৮২টি দেশের পড়ুয়াদের গত এক দশকের ‘পারফরমেন্স’ পর্যালোচনা করেই ‘ইন্টেলিজেন্স’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে সমীক্ষাটি। সমীক্ষা অনুযায়ী, ধর্মনিরপেক্ষ দেশগুলির পড়ুয়াদের বিজ্ঞান এবং অঙ্কের ভিত অনেক বেশি মজবুত। সেই তালিকার প্রথমেই রয়েছে চেক প্রজাতন্ত্র। তারপর একে একে জাপান, এস্তোনিয়া, সুইডেন, নরওয়ে। তালিকার সব শেষে রয়েছে জর্ডন, ইয়েমেন, মিশর, ইন্দোনেশিয়া, কাতার। গবেষকরা মনে করছেন শিক্ষা ব্যবস্থায় জোর না দিয়ে ধর্মীয় বিষয়ে অতিরিক্ত গুরুত্ব দেওয়ায় ক্রমশ পিছিয়ে পড়ছে উপসাগরীয় দেশগুলো। 

সমীক্ষা চালানোর সময় পড়ুয়াদের ধর্ম নিয়ে সরাসরি কোনো প্রশ্ন করা হয়নি, তাই শিক্ষার মানের ওপর ধর্মীয় প্রভাব কতটা নেতিবাচক, তা নিয়ে মন্তব্য করার সময় এখনও আসেনি, মনে করছেন অধ্যাপক স্টোয়েট। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here